• ঢাকা
  • সোমবার, ১৫ জুলাই, ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১, ৮ মুহররম ১৪৪৫

স্ত্রীর ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করলেন যুবক


ফরিদপুর প্রতিনিধি
প্রকাশিত: জুলাই ১০, ২০২৪, ০৬:১৭ পিএম
স্ত্রীর ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করলেন যুবক
জেলার মানচিত্র

ফরিদপুরের বোয়ালমারী উপজেলার রুপাপাত ইউনিয়নের কলিমাঝি গ্রামে স্ত্রীর ওড়না দিয়ে ফাঁস নিয়ে আত্মহত্যা করেছেন সোহেল মিয়া (৩৫) নামের এক যুবক।

বুধবার (১০ জুলাই) সকালে তার মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ফরিদপুর শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়েছে।

এই ঘটনায় দুপুরের দিকে সোহেলের ভাই বাদী হয়ে থানায় অপমৃত্যু মামলা করেছেন। দুই ছেলে-মেয়ের জনক সোহেল বিয়ের পর থেকেই তার স্ত্রীকে নিয়ে সূর্যোগ গ্রামে শ্বশুরবাড়িতে থাকতেন।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়,  সাথে প্রায় ১৯ বছর আগে জেলার বোয়ালমারী উপজেলার রূপাপাত ইউনিয়নের সূর্যোগ গ্রামের নাগর মিয়ার ছেলে সোহেল মিয়ার সঙ্গে একই ইউনিয়নের কলিমাঝি গ্রামের মমতাজ উদ্দিনের মেয়ে ফাতেমার বিয়ে হয়। ভাড়ায় মোটরসাইকেল চালক সোহেল বিয়ের পর থেকে তিনি শ্বশুর বাড়িতেই থাকতেন। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় পারিবারিক কলহের জের ধরে সোহেল মিয়া তার স্ত্রী-সন্তানদের মারধর করেন।

মারধরের পর ফাতেমা বেগম বাচ্চাদের নিয়ে বাড়ির পাশের প্রতিবেশী খোকন মিয়ার বাড়িতে রাতে অবস্থান করেন। ওইদিন রাতে বাড়িতে একা ঘুমান সোহেল মিয়া। ওই রাতে সোহেল স্ত্রীর ওড়না দিয়ে নিজের বসতঘরের ফ্যানের সাথে গলায় ফাঁস নেন। বুধবার ভোরবেলা সোহেলের ছেলে রমিন মিয়া (১৪) ফজরের নামাজ পড়ে বাড়ি ফিরে জানালা দিয়ে দেখেন তার বাবা ফ্যানের সাথে ঝুলছেন।

মরদেহ উদ্ধারকারী কর্মকর্তা ডহরনগর পুলিশ ফাঁড়ির উপপরিদর্শক (এসআই) মো. আসলাম উদ্দিন বলেন, আত্মহত্যার খবর পেয়ে মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ফরিদপুর মর্গে পাঠানো হয়েছে। আত্মহত্যার ঘটনায় থানায় সোহেলের ভাই বাদী হয়ে একটু ইউডি মামলা করেছেন। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পাওয়ার পর পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Link copied!