• ঢাকা
  • সোমবার, ২০ মে, ২০২৪, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১,

র‌্যাবের উদ্যোগে স্বাভাবিক জীবনে ফিরছেন ৩৫০ চরমপন্থী


সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি
প্রকাশিত: মে ২০, ২০২৩, ০১:১৯ পিএম
র‌্যাবের উদ্যোগে স্বাভাবিক জীবনে ফিরছেন ৩৫০ চরমপন্থী

সিরাজগঞ্জে র‍্যাবের কাছে আত্মসমর্পণ করে স্বাভাবিক জীবনে ফিরছেন সাড়ে তিন শ চরমপন্থী ও সর্বহারা সদস্য। তারা রাজশাহী ও যশোর অঞ্চলের এমএল লাল পতাকা, জনযুদ্ধ ও সর্বহারা পার্টির সদস্য। চরমপন্থীদের স্বাভাবিক জীবনে এনে পুনর্বাসন আর আইনগত সহায়তাও দেবে এলিট ফোর্স র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন-র‍্যাব।

রোববার (২১ মে) স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে অস্ত্র জমা দিয়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরবেন তারা।

জানা যায়, একসময় চরমপন্থী বা সর্বহারা সন্ত্রাসীদের ভয়ে কাঁপত দেশের উত্তর ও দক্ষিণ পশ্চিমাঞ্চল। বর্তমানে তাদের দাপট অনেকটাই কমে এসেছে। মাঝে কয়েক বছর বিভিন্ন সংস্থার মাধ্যমে বহু চরমপন্থী সদস্য আত্মসমর্পণ করলেও এখনো সক্রিয় এসব পার্টির সদস্যরা। অপরাধ জগতের সঙ্গে যুক্ত থাকায় তাদের পরিবার অনেক জায়গায়ই একঘরে। এখন মামলা তুলে নেওয়া আর স্বাভাবিক জীবনে ফেরার শর্তে আত্মসমর্পণ করতে চান কয়েকজন চরমপন্থী।

যারা আত্মসমর্পণ করতে চান, তাদের ডাকেই এবার সাড়া দিচ্ছে র‍্যাব। কয়েক মাস ধরে পরিকল্পনা করে, চরমপন্থীদের পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগের পর পুনর্বাসনের প্রক্রিয়া শুরু করে সংস্থাটি। জানা গেছে, রাজশাহী, পাবনা, সিরাজগঞ্জ ও যশোর, খুলনা অঞ্চলের এককালের ত্রাস এলএম লাল পতাকার ২৯৪ জন, জনযুদ্ধের ৮ জন এবং সর্বহারা পার্টির ২১, মোট ৩২৩ জন চরমপন্থী ২০০ অস্ত্রসহ আত্মসমর্পণ করবেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে।

র‍্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন বলেন, “উদয়ের পথে নামের একটি কর্মশালা আমরা করেছি। এখানে তাদের পরিবারের সদস্যদের হস্তশিল্পের প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে, কারিগরি প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে।”

Link copied!