• ঢাকা
  • শুক্রবার, ২৪ মে, ২০২৪, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ১৬ জ্বিলকদ ১৪৪৫

গাছ কাটা বন্ধে প্রতিবাদ


টাঙ্গাইল প্রতিনিধি
প্রকাশিত: এপ্রিল ২৩, ২০২৪, ১০:১৯ এএম
গাছ কাটা বন্ধে প্রতিবাদ

সড়ক সম্প্রসারণের জন্য টাঙ্গাইল শহীদ স্মৃতি পৌর উদ্যানের কয়েকটি গাছ কাটার উদ্যোগ নিয়েছে টাঙ্গাইল পৌরসভা। এর প্রতিবাদ জানিয়েছে নাগরিক সমাজ। সোমবার (২২ এপ্রিল) সকালে পৌর উদ্যানে গাছ কাটা বন্ধের দাবিতে বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা), টাঙ্গাইল শাখা ও সবুজ পৃথিবীর যৌথ উদ্যোগে মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়।

পৌরসভা সূত্রে জানা যায়, টাঙ্গাইল শহরের প্রাণ কেন্দ্রে শহীদ স্মৃতি পৌর উদ্যানের অবস্থান। এর দক্ষিণ পাশ ঘেঁষে ক্লাব রোডের অবস্থান। সড়কটি পূর্ব দিকে ভিক্টোরিয়া রোড থেকে শুরু হয়ে পশ্চিমে কবি নজরুল সড়কে গিয়ে মিলেছে। ক্লাব রোডটি বর্তমানে ১২ থেকে ১৫ ফুট প্রশস্ত। এই সড়কটি সম্প্রসারণ করে ২০ ফুট করার উদ্যোগ নিয়েছে পৌরসভা। এজন্য পৌর উদ্যানের আটটি পুরোনো কড়ই গাছ কাটার সিদ্ধান্ত নিয়েছে পৌর কর্তৃপক্ষ।

শনিবার বেলা ১১টার দিকে পৌরসভার পক্ষ থেকে শ্রমিকরা গাছ কাটার জন্য শহীদ স্মৃতি পৌর উদ্যানে যান। তারা গাছের ডাল-পালা কাটতে শুরু করে। এ সময় পৌর উদ্যানে অবস্থানরত সাধারণ মানুষ তাদের বাধা দেয়। খবর পেয়ে নাগরিক সমাজের প্রতিনিধি এবং পরিবেশ সংগঠনের কর্মীরা উপস্থিত হন। তারা গাছ কাটার সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ জানান। গাছ কাটায় বাধা দেওয়ার খবর পেয়ে পৌরসভার মেয়র এসএম সিরাজুল হক আলমগীর পৌর উদ্যানে আসেন। তিনি জানান, যানজট নিরসনের জন্য ক্লাব রোড সম্প্রসারণ করা প্রয়োজন এ জন্য একটি প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে। সড়ক সম্প্রসারণের প্রয়োজনে কিছু গাছ কাটতে হচ্ছে।

নাগরিক সমাজের প্রতিনিধিরা জেলা প্রশাসনকে গাছ কাটার বিষয়টি অবহিত করেন। জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগের উপপরিচালক শিহাব রায়হান পৌর উদ্যানে আসেন। তিনি ক্লাব রোড সরেজমিন ঘুরে দেখেন। পরে গাছ কাটার কাজ স্থগিত রাখার নির্দেশ দেন।

রিকশা চালক মোতালেব মিয়া বলেন, “আমি শহর দিয়ে রিকশা চালাই। গরম লাগলে বা খারাপ লাগলে পৌর উদ্যানে এসে গাছের নিছে বসে বিশ্রাম নেই। শনিবার পৌর উদ্যানে এসে দেখি গাছের ডাল-পালা কাটছে দেখে মনটা খারাপ হয়ে গেল। প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি গাছ কাটা বন্ধ করা হোক।”

নাট্যকর্মী ও টাঙ্গাইল ক্লাবের যুগ্ম সম্পাদক সাম্য রহমান বলেন, “পৌরসভা অবৈধভাবে অনেক বেশি ব্যাটারিচালিত অটোরিকশার লাইসেন্স দিয়েছে। এ জন্য যানজট হচ্ছে। গাছ কেটে সড়ক সম্প্রসারণ করে যানজট নিরসন করা যাবে না।”

সাংস্কৃতিক কর্মী হেমায়েত হোসেন বলেন, “তিন দশকেরও বেশি সময় আগে শহীদ স্মৃতি পৌর উদ্যানের উন্নয়ন করা হয়। তখন এই গাছগুলো লাগানো হয়েছিল। এ গাছ উদ্যানে ছায়া দেয়। এর নিচে গরমে মানুষ বিশ্রাম নেয়। গাছ কেটে সড়ক সম্প্রসারণ করার সিদ্ধান্ত সঠিক না। এতে পরিবেশের ক্ষতি করা হবে।”

পরিবেশবাদী সংগঠন সবুজ পৃথিবীর সাধারণ সম্পাদক শহীদ মাহমুদ বলেন, “পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষার জন্য যখন বেশি বেশি গাছ লাগানোর প্রয়োজন, তখন পৌরসভা উন্নয়নের নামে গাছ কাটার উদ্যোগ নিয়েছে। এটা মেনে নেওয়া যায় না। গাছ রক্ষার দাবিতে সোমবার আমরা পৌর উদ্যানে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছি।”

টাঙ্গাইল পৌরসভার মেয়র এসএম সিরাজুল হক আলমগীর বলেন, ক্লাব রোড সম্প্রসারণ করা প্রয়োজন। এ জন্য কয়েকটি গাছ কাটতে হচ্ছে। বিভাগীয় বন কর্মকর্তার অনুমোদন নিয়ে কাটার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। জেলা প্রশাসনের স্থানীয় সরকার বিভাগের উপপরিচালক স্থগিত রাখতে বলেছেন। তাই গাছ কাটা বন্ধ রাখা হয়েছে। প্রশাসনের সাথে আলাপ করে পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে। 

Link copied!