• ঢাকা
  • শুক্রবার, ১৯ জুলাই, ২০২৪, ৪ শ্রাবণ ১৪৩১, ১৩ মুহররম ১৪৪৫

আওয়ামী লীগ নেতাকে হত্যা, ৩ দিন পর মামলা


পাবনা প্রতিনিধি
প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ১১, ২০২২, ০৯:৩৩ পিএম
আওয়ামী লীগ নেতাকে হত্যা, ৩ দিন পর মামলা

পাবনা পৌর আওয়ামী লীগ নেতা সাইদার রহমান মালিথা হত্যার ঘটনায় হেমায়েতপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ও সদর উপজেলা আওয়ামী লীগসহ সভাপতি আলাউদ্দিন মালিথাকে প্রধান আসামি করে মামলা করা হয়েছে।

রোববার (১১ সেপ্টেম্বর) দুপুরে সাইদারের ভাই আফজাল মালিথা বাদী হয়ে পাবনা সদর থানায় মামলাটি দায়ের করেন।

মামলায় আলাউদ্দিন মালিথার আপন ভাই রঞ্জু মালিথা, দুলাল মালিথা, আশরাফ মালিথাসহ ২০ জনকে আসামি করা হয়েছে।

তবে, হত্যাকাণ্ডের তিনদিন পেরোলেও পুলিশ এখনও হত্যায় অভিযুক্ত কাউকেই আটক করতে পারেনি।

নিহতের স্ত্রী দিলরুবা জাহান হত্যার ঘটনায় আলাউদ্দিন মালিথাকে দায়ী করেন।

পাবনা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমিনুল ইসলাম জুয়েল জানান, ময়নাতদন্ত শেষে শনিবার স্বজনদের কাছে লাশ হস্তান্তরের পর দাফন সম্পন্ন করা হয়েছে। নিহতের স্বজনরা রোববার দুপুরে লিখিত এজাহার জমা দিয়েছেন। তা মামলা হিসেবে সদর থানায় নথিভুক্ত হয়েছে।

ওসি আরও জানান, অভিযোগ ছাড়াও সম্ভাব্য সব ধরণের ক্লু খতিয়ে দেখছে পুলিশ। অভিযুক্ত আসামিরা ঘটনার পর থেকেই পলাতক। গ্রেপ্তারে পুলিশি অভিযান চলছে।

পাবনা পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি তসলিম হাসান সুমন এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে বলেন, ঘটনার কারণ যাই হোক, এটা পরিকল্পিত হত্যা। দোষী ব্যক্তিদের অবিলম্বে আইনের আওতায় এনে বিচারের মুখোমুখি দাঁড় করাতে হবে।

জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম ফারুক প্রিন্স এমপি বলেন, “সাইদার রহমান আওয়ামী লীগের ত্যাগী নেতা। এমন হত্যাকাণ্ড কোনোভাবেই মেনে নেওয়া যায় না। আমি পুলিশ প্রশাসনকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে ব্যবস্থা নিতে অনুরোধ করেছি।”

শুক্রবার (৯ সেপ্টেম্বর) জুমার নামাজের কয়েক মিনিট আগে সদর উপজেলার চর বাঙ্গাবাড়িয়া নজুর মোড়ের চায়ের দোকানে সায়েদুর রহমান কয়েকজনকে সঙ্গে নিয়ে বসে থাকাকালে দুর্বৃত্তরা তাদের ঘিরে এলোপাথাড়ি গুলি করলে ঘটনাস্থলে তার মৃত্যু হয়।
 

স্বদেশ বিভাগের আরো খবর

Link copied!