• ঢাকা
  • বুধবার, ২৯ মে, ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২০ জ্বিলকদ ১৪৪৫

কেএনএফ প্রধানের স্ত্রীকে বান্দরবান থেকে লালমনিরহাটে বদলি


বান্দরবান প্রতিনিধি
প্রকাশিত: এপ্রিল ১১, ২০২৪, ০৮:৩০ পিএম
কেএনএফ প্রধানের স্ত্রীকে বান্দরবান থেকে লালমনিরহাটে বদলি
লাল সমকিম বম। ছবি : সংগৃহীত

বান্দরবানের সশস্ত্র সংগঠন কুকি-চিন ন্যাশনাল ফ্রন্টের (কেএনএফ) প্রধান নাথান বমের স্ত্রী ও রুমা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের নার্স লাল সমকিম বমকে তাৎক্ষণিক বদলি (স্ট্যান্ড রিলিজ) করে লালমনিরহাট ২৫০ শয্যার হাসপাতালে যোগ দিতে বলা হয়েছে।  

বৃহস্পতিবার (১১ এপ্রিল) এ তথ্য জানিয়েছেন বান্দরবানের সিভিল সার্জন মাহবুবুর রহমান।

মাহবুবুর রহমান জানান, একই হাসপাতালের নার্স দীপালি বাড়ৈকেও পাটগ্রাম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে বদলি করা হয়েছে। নার্সিং ও মিডওয়াইফারি অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের (ডিজিএনএম) দপ্তর থেকে জনস্বার্থে সোমবার (৮ এপ্রিল) তাৎক্ষণিক বদলির আদেশ দেওয়া হয়।

রুম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা গেছে, নাথান বমের স্ত্রী ও দীপালি বাড়ৈর সঙ্গে কেএনএফের যোগাযোগ আছে বলে সন্দেহ করছেন আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা। তাদের মাধ্যমে কেএনএফের বিরুদ্ধে চলমান অভিযানসংক্রান্ত তথ্য পাচার হওয়ার আশঙ্কা আছে। এ কারণে তাদের বদলি করা হয়েছে।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, লাল সমকিম বমকে এর আগে একবার জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছিল। তিনি তখন দাবি করেছিলেন, তার স্বামীর সঙ্গে কয়েক বছর ধরে তার যোগাযোগ নেই।  

স্থানীয় সূত্রে আরও জানা যায়, কেএনএফ প্রধান নাথান বমের বাড়ি রুমা বাজারসংলগ্ন ইডেনপাড়া। যেখানে নাথান বমের কৈশোর কেটেছে। সেখানে কাঁচা-পাকা একটি টিনশেড ঘরে থাকতেন নাথান বম। নাথানের মা-বাবা কেউ বেঁচে নেই। নাথানের স্ত্রী লাল সমকিম বম, তাদের দুই সন্তান স্কেন্ডি বম (৫) ও স্কলার বম (১৫)। স্কলার বর্তমানে ভারতের মিজোরামে মামার বাড়িতে থেকে পড়ালেখা করছে। স্কেন্ডি স্থানীয় একটি স্কুলে প্রাক-প্রাথমিকে পড়ছে।

এর আগে নাথানের নেতৃত্বাধীন কেএনএফ গত ২ এপ্রিল রুমা উপজেলা সোনালী ব্যাংকে হানা দিয়ে পুলিশ ও আনসার বাহিনীর ১৪টি অস্ত্র এবং চার শতাধিক গুলি লুট করে। এ ঘটনার একদিন পরই থানচি উপজেলার সোনালী ও কৃষি ব্যাংকে হানা দিয়ে প্রায় ১৮ লাখ টাকা লুট করে তারা। এসব ঘটনার পর বান্দরবানে কেএনএফের বিরুদ্ধে যৌথ অভিযান পরিচালিত হচ্ছে। এই অভিযানে এখন পর্যন্ত ৫৬ জন গ্রেপ্তার হয়েছে বলে জানা গেছে।

Link copied!