• ঢাকা
  • রবিবার, ১৬ জুন, ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১, ৯ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

বিরল রোগে আক্রান্ত জামিল


ফরিদপুর প্রতিনিধি
প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ১০, ২০২১, ০৭:১১ পিএম
বিরল রোগে আক্রান্ত জামিল

বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশের পর ফরিদপুরের নগরকান্দায় বিরল রোগে আক্রান্ত জামিল হোসেন (১২) নামের সেই ছেলের চোখের অপারেশনের জন্য নেওয়া হয়েছে ঢাকায়। 

ঢাকার জাতীয় চক্ষু বিজ্ঞান ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। নগরকান্দা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জেতি প্রুর উদ্যোগ ও আর্থিক সহযোগিতায় চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকায় পাঠানো হয়।

শুক্রবার (১০ সেপ্টেম্বর) সকালে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) জেতী প্রু এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

জেতী প্রু বলেন, “বৃহস্পতিবার আমরা ছেলেটিকে চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠিয়েছি। ছেলেটির অপারেশন করানোর জন্য ঢাকার জাতীয় চক্ষু বিজ্ঞান ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।”

বিরল রোগে আক্রান্ত ছেলেটিকে নিয়ে গত মাসের মঙ্গলবার (৩ আগস্ট) “ছেলে গুণছেন মৃত্যুর প্রহর, সাহায্য চেয়ে মানুষের দ্বারে দ্বারে অসহায় মা” এই শিরোনামে কয়েকটি সংবাদমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশ হয়। সংবাদ প্রকাশের পর পরই নড়েচড়ে বসে উপজেলা প্রশাসন।

সংবাদ প্রকাশের পরের দিনই জেতি প্রু ওই বাড়িতে গিয়ে ওই পরিবারকে নগদ ১০ হাজার টাকা, একটি সরকারি ঘর ও ১০ কেজি চাল প্রদান করেন। এছাড়াও এসময়, ছেলেটির চিকিৎসার জন্য প্রয়োজনীয় চিকিৎসার যাবতীয় খরচ প্রদানের আশ্বাস দেন।

ছেলেটির মা আঙ্গুরী বেগম বলেন, জন্মের পর থেকেই চোখের উপর অস্বাভাবিক কিছু একটা লক্ষ্য করছিলাম ছেলেটার। স্থানীয় চিকিৎসকদের কাছে গেলে তারা উন্নত চিকিৎসার পরামর্শ দেন। আমরা গরীব মানুষ তাই আর্থিক সমস্যার জন্য উন্নত চিকিৎসা আর করাতে পারিনি। পরে আমার ছেলেটাকে নিয়ে বিভিন্ন পত্র-পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশের পর ইউএনও স্যার এসে নগদ ১০ হাজার টাকা, ১০ কেজি চাল ও সরকারি ঘর প্রদানসহ আমাদের যাবতীয় সহযোগিতা করেন। সেই সময় স্যার আমার ছেলেটার চিকিৎসার জন্য যাবতীয় খরচ বহন করার আশ্বাস দেন। তাইতো, স্যার আমার ছেলেটার অপারেশন করানোর জন্য ঢাকার হাসপাতালের যাবতীয় খরচ বহন করছেন। ইউএনও স্যারে প্রতি অসংখ্য ধন্যবাদ।”

জেতি প্রু বলেন, কয়েকটি সংবাদমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশের পর ওই ছেলে ও তার পরিবারের বিষয়টি আমাদের নজরে আসে। পরে আমরা তাৎক্ষণিক ওই বাড়িতে গিয়ে ওই পরিবারকে নগদ ১০ হাজার টাকা, একটি সরকারি ঘর ও ১০ কেজি চাল প্রদান করি। এছাড়াও এসময়, ছেলেটির চিকিৎসার জন্য প্রয়োজনীয় চিকিৎসা বাবদ যাবতীয় খরচ প্রদানের আশ্বাস দিয়েছিলাম। তাইতো, বৃহস্পতিবার (৯ সেপ্টেম্বর) সকালে ছেলেটির অপারেশনের জন্য ঢাকার জাতীয় চক্ষু বিজ্ঞান ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালে ভর্তি করানোর ব্যবস্থা করেছি। আশা করছি, দ্রুত তার অপারেশন হবে।

নগরকান্দা পৌরসভার ২নং ওয়ার্ডের মাতুব্বর বাড়ি নামক মহল্লার মান্নান শেখ ও আঙ্গুরী বেগম দম্পতির ছেলে জামিল হোসেন (১২) জন্মের পর থেকেই বিরল রোগে আক্রান্ত। ছেলেকে বাঁচাতে দ্বারে দ্বারে ঘুরছে হতদরিদ্র অসহায় মা। টাকার অভাবে চিকিৎসা করাতে পারছিলেন না ছেলেকে। ছেলেটা স্থানীয় একটি বিদ্যালয়ে পঞ্চম শ্রেণিতে পড়াশোনা করছে।

Link copied!