• ঢাকা
  • শুক্রবার, ১২ আগস্ট, ২০২২, ২৭ শ্রাবণ ১৪২৯

যেসব দেশে সাপ নেই!


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: আগস্ট ৩, ২০২২, ০৩:৩৭ পিএম
যেসব দেশে সাপ নেই!

বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে রয়েছে জীববৈচিত্র্য। মানুষ যেমন বিশ্বজুড়ে বসবাস করে, তেমনই বসবাস থাকে জীবজন্তুর। জঙ্গলের পরিবেশে জীববৈচিত্র্যের বিচিত্র রূপ দেখা যায়। পাওয়া যায় বিচিত্র প্রাণীর সন্ধান। সরীসৃপ প্রাণী সাপের উপস্থিতিও কম-বেশি সব দেশেই রয়েছে। তবে বিশ্বের কোনও দেশে সাপ নেই শুনলে অবাক তো লাগবেই। হ্যা এটি অস্বাভাবিক নয়। সাপের মতো বহুল পরিচিত সরীসৃপের উপস্থিতি নেই আয়ারল্যান্ড ও নিউজিল্যান্ডে।

দ্য গার্ডিয়ান প্রতিবেদনে জানা যায়, নিউজিল্যান্ডের আদি প্রাণীর মধ্যে সাপের অস্তিত্ব নেই। সমুদ্রপথে জাহাজের মাধ্যমে সাপ এই দেশের তীরে ভিড়ে। তবে সঙ্গে সঙ্গেই উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়া হয়। এগুলোর অস্তিত্ব বিলীন করে দেওয়া হয়। অন্যদিকে নিউজিল্যান্ড শীত প্রধান দেশ হওয়ায় তা সাপের বসবাসের অনুকূলেও থাকে না। তাই এই দেখে সাপের বংশবিস্তারও সম্ভব হয় না বলে জানিয়েছেন পরিবেশবিদরা। 

এদিকে সাপ শূন্য আরওঁ একটি দেশ আয়ারল্যান্ড। এই দেশে পেগানিজম থেকে ক্রিশ্চিয়ানিটিতে বদলের সময় আয়ারল্যান্ডের সেন্ট প্যাট্রিক পাঁচের শতকেই আয়ারল্যান্ডকে সর্পহীন করে দেন। সেন্ট প্যাট্রিক পাহাড়ের মাথায় ৪০ দিনের উপবাস পালন করেন। ওই সময় সাপেরা তাকে খুব বিরক্ত করতো। তিনি রেগে গিয়ে সাপেদের আইরিশ সমুদ্র পর্যন্ত তাড়া করেন। এরপর থেকেই আয়ারল্যান্ডের দ্বীপে কখনও সাপের দেখা মেলেনি বলে লোকমুখে শোনা যায়। 

তবে পরিবেশবিদরা জানান, পৃথিবীতে বরফযুগের অবসান হলেও আয়ারল্যান্ডের আবহাওয়া অপরিবর্তনশীলই রয়েছে। যার কারণে ইউরোপ ভূখণ্ড থেকে আয়ারল্যান্ড পৃথক হয়ে যায়। দুই ভূখণ্ডের মাঝে ১২ মাইল দীর্ঘ অঞ্চলের উৎপত্তি হয়। আয়ারল্যান্ড ও স্কটল্যান্ডের মাঝে তৈরি হয় নর্থ চ্যানেল। যার ফলে সাপেরা এখানে প্রতিকূল পরিবেশ পেরিয়ে বেঁচে থাকতে পারে না। তাই আয়ারল্যান্ডে সাপের উপস্থিতি নেই বললেই চলে।