• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ৮ ফাল্গুন ১৪৩০, ১১ শা’বান ১৪৪৫

ফাইনালে বারবার অস্ট্রেলিয়ার কাছে কেন হারছে ভারত


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ১২, ২০২৪, ০৬:৪৭ পিএম
ফাইনালে বারবার অস্ট্রেলিয়ার কাছে কেন হারছে ভারত
বারবার অস্ট্রেলিয়ার কাছে স্বপ্নভঙ্গ হয় ভারতের। ছবি : সংগৃহীত

গত আট মাসে আইসিসি ইভেন্টের তিনটি শিরোপা জিতেছে অস্ট্রেলিয়া। প্রতিবারই অস্ট্রেলিয়া চ্যাম্পিয়ন হয়েছে ভারতকে হারিয়ে।

শুরুটা হয়েছিল গত বছরের জুনে লন্ডনের ওভালে। ২০১৯-২১-এর পর ২০২১-২৩ আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের দ্বিতীয় চক্রেরও ফাইনালে ওঠে ভারত। ভারতের কাছে লন্ডনের ফাইনাল ছিল প্রথম হারের ক্ষতে প্রলেপ লাগানোর সুযোগ। তবে জয় তো দূরে থাক, ভারত ন্যুনতম প্রতিদ্বন্দ্বিতাও করতে পারেনি অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে। ২০৯ রানে জিতে অস্ট্রেলিয়া আইসিসি ইভেন্টে চক্র পূরণ করে ফেলে। ওয়ানডে বিশ্বকাপ, টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ, চ্যাম্পিয়নস ট্রফি, আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ—সব ইভেন্টেই শিরোপা জয়ের কীর্তি গড়ে অজিরা।

একই গল্পের পুনরাবৃত্তি হয়েছে আহমেদাবাদের নরেন্দ্র মোদি স্টেডিয়ামে ও বেনোনির উইলোমুর পার্কেও। দুই জায়গাতেই ভারত একতরফাভাবে হেরেছে অস্ট্রেলিয়ার কাছে। গত বছরের ১৯ নভেম্বর অস্ট্রেলিয়া ৬ উইকেটে জিতে ওয়ানডে বিশ্বকাপের হেক্সা মিশন পূর্ণ করেছে। তার প্রায় ২ মাস পর গতকাল বেনোনিতে ভারতকে ৭৯ রানে হারিয়ে ২০২৪ অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের শিরোপা জিতেছে অস্ট্রেলিয়া।

ওয়ানডে সংস্করণের দুই ফাইনালে ভারতের হারার কারণ হচ্ছে ধাক্কা সামলে দ্রুত প্রতি-আক্রমণ করতে না পারা। এ ছাড়া আরও কিছু কারণ রয়েছে।

২০২৩ ওয়ানডে বিশ্বকাপ ও ২০২৪ অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ—দুই টুর্নামেন্টে ভারতের গল্পটা একই। ফাইনালের আগে সব ম্যাচ জিতেছে তারা। গত বছরের বিশ্বকাপে দল ছিল ১০টি ও হয়েছিল রাউন্ড রবিন লিগ পদ্ধতিতে। সেমিফাইনালসহ টানা ১০ ম্যাচ জিতে ফাইনালে উঠেছে ভারত। এই ১০ ম্যাচের মধ্যে লিগ পর্বে অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ড যা একটু পরীক্ষায় ফেলতে পেরেছিল। বাকি ৮ ম্যাচ ভারত দাপটের সঙ্গে জিতেছে। এবারের অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপেও গ্রুপ পর্বে বাংলাদেশ, যুক্তরাষ্ট্র, আয়ারল্যান্ড—তিন দলকে হেসেখেলে হারিয়েছে ভারত। এরপর সুপার সিক্সে নিউজিল্যান্ড, নেপাল এই দুই দলকে রীতিমতো উড়িয়ে দিয়েছে ভারতীয়রা। সেমিফাইনালে দক্ষিণ আফ্রিকাই যা একটু চাপে ফেলতে পেরেছিল ভারতকে। ২৪৫ রান তাড়া করতে নেমে ভারত ৩২ রানেই হারিয়ে ফেলে ৪ উইকেট। শেষ পর্যন্ত ভারতীয়রা ম্যাচ জেতে ৭ বল হাতে রেখে ২ উইকেটে।

ফাইনালে বেশি প্রত্যাশার চাপ নিয়ে ফেলা

আহমেদাবাদের নরেন্দ্র মোদি স্টেডিয়ামে ফাইনালে টস হেরে ব্যাটিং পেয়েছিল ভারত। ১ লাখেরও বেশি দর্শকের সামনে সেদিন রোহিত শর্মার নেতৃত্বাধীন ভারত প্রথম ১০ ওভারে ২ উইকেটে ৮০ রান তুলে ফেলে। এরপরই অস্ট্রেলিয়ার নিখুঁত বোলিং ও ফিল্ডিংয়ে নিজেদের যেন খোলসে পুড়ে ফেলে ভারত। ৫০ ওভার ব্যাটিং করেও ২৪০ রানে অলআউট হয়ে যায় ভারত। রান তাড়া করতে নেমে ৪৭ রানে ৩ উইকেট হারালেও অজিরা ৭ ওভার হাতে রেখে জিতে যায় ৬ উইকেটে। বেনোনিতে গতকাল প্রথমে ব্যাটিং করে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের ফাইনালে অস্ট্রেলিয়া করেছিল ৭ উইকেটে ২৫৩ রান। ২৫৪ রান তাড়া করতে নেমে নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকা ভারত ৪৩.৫ ওভারে ১৭৪ রানে অলআউট হয়েছে। আদর্শ সিংয়ের ৪৭ ও মুরুগান অভিষকের ৪২—এই দুই ইনিংস ছাড়া বলার মতো কোনো ইনিংস ছিল না ভারতের। ম্যাচ শেষে হারের ব্যাখ্যায় ভারতীয় অধিনায়ক উদয় সাহারান বলেন, ‘আমরা অনেক পাগলাটে শট খেলেছি। উইকেটে বেশিক্ষণ টিকতে পারিনি। আমরা প্রস্তুতি নিয়েছিলাম। তবে তা কাজে লাগাতে পারিনি।’

অস্ট্রেলিয়ার কাছে ভারতের তিনবার স্বপ্নভঙ্গ

টুর্নামেন্ট                                                  তারিখ                             ভেন্যু
আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ফাইনাল              ৭-১১ জুন ২০২৩                দ্য ওভাল, লন্ডন 
ওয়ানডে বিশ্বকাপ ফাইনাল                            ১৯ নভেম্বর ২০২৩              আহমেদাবাদ
অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ ফাইনাল                          ১১ ফেব্রুয়ারি ২০২৪            বেনোনি

Link copied!