• ঢাকা
  • রবিবার, ২১ জুলাই, ২০২৪, ৬ শ্রাবণ ১৪৩১, ১৪ মুহররম ১৪৪৫

এশিয়া কাপে উড়ন্ত সূচনা আফগানিস্তানের


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: আগস্ট ২৭, ২০২২, ১১:৩১ পিএম
এশিয়া কাপে উড়ন্ত সূচনা আফগানিস্তানের

এশিয়া কাপে উড়ন্ত সূচনা করেছে আফগানিস্তান। উদ্বোধনী ম্যাচে শ্রীলঙ্কাকে ৮ উইকেটে হারিয়েছে আফগানরা। লঙ্কানদের দেওয়া ১০৬ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে ২ উইকেট হারিয়ে মাত্র ১০.১ ওভারেই জয় নিশ্চিত করে ফেলেছে আফগান বাহিনী।

শনিবার (২৭ আগস্ট) দুবাই আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে রান তাড়া করতে নেমে হযরতউল্লাহ জাজাঈ ও রহমানউল্লাহ গুরবাজের উদ্বোধনী জুটিতে ৯৪ রান তোলে আফগানিস্তান। গুরবাজ ১৮ বলে ৪০ রান করে হাসারাঙ্গার শিকার হন। আফগানরা দ্বিতীয় উইকেটটি যখন হারায় তখন জয়ের জন্য তাদের আর দরকার ছিল ৩ রান। দলকে জয় এনে দিতে শেষ পর্যন্ত জাজাঈ ৩৭ রানে অপরাজিত ছিলেন। নাজিবউল্লাহ জাদরান করেন ২ রান।

এর আগে আফগানিস্তানের বোলিং তোপে উইকেট হারিয়ে ১০৫ রান করে শ্রীলঙ্কা। আফগানিস্তানের ফজলহক ফারুকী আর নাভিন উল হকের প্রথম দুই ওভারেই একপ্রকার ধস নেমে যায় শ্রীলঙ্কার ব্যাটিং লাইন-আপে।

শুরুতে মাত্র ৫ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে ফেলে লঙ্কা শিবির। নিজের প্রথম ওভারে ৩ রান দিয়ে ২ উইকেট শিকার করেন বিপিএল দিয়ে পরিচিত হয়ে ওঠা ফজলহক। ওপেনার কুশাল মেন্ডিসকে আউট করার পর চারিথ আসালাঙ্কাকে করা তার ওভারের শেষটি বলটি পিচ করেই ভেতরে ঢুকে যায়। ফলাফল তো হাতেনাতেই- সাজঘরে লঙ্কান ব্যাটার।

পরের ওভারে চমক দেখান নাভিন। প্রায় প্রতিটি বলেই সুইং পাচ্ছিলেন তিনি। যে কারণে শ্রীলঙ্কার ব্যাটাররাও ব্যাট চালানোর তেমন সুযোগ পাননি। নাভিন ২ রান দিয়ে তুলে নেন পাথুম নিসাঙ্কার উইকেট। উইকেটের পেছনে রহমানউল্লাহ গুরবাজকে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন নিসাঙ্কা। তিন উইকেট হারিয়ে ফেললেও রানের চাকা কিছুটা হলেও সচল রাখার চেষ্টা করে শ্রীলঙ্কা। পাওয়ারপ্লেতে তারা তোলে ৪১ রান।

দলীয় ৪৯ রানে গুনাথিলাকার উইকেট তুলে নেন মুজিব উর রহমান। অধিকন্তু ৮ বল মোকাবিলা করে মাত্র ২ রান করে আউট হন মুজিবের বলে। হাসারাঙ্গা ফিরে গেলে উইকেটে আসেন দলপতি দাসুন শানাকা। তাকে গোল্ডেন ডাকে ফিরিয়ে দেন মোহাম্মদ নবি। নবির থ্রোয়ে আউট হন হাল ধরে রাখা ভানুকা রাজাপাকসা। পরের বলে দৌড়ে রান নিতে গিয়ে আউট হন থিকশানা। ফলে একপ্রকার ধুকতে থাকে টুর্নামেন্টের আয়োজকরা। সেখান থেকে আর সোজা হয়ে দাঁড়াতে পারেনি শানাকার দল। পাথিরানার উইকেট শিকার করেন নবি।

শেষ দিকে একশ রানের মধ্যেই শ্রীলঙ্কার ইনিংস থেমে যাওয়ার শঙ্কা দেখা দেয়। সেখান থেকে করুনারত্নের কল্যাণে একশ পার করে শ্রীলঙ্কা। শেষ ব্যাটার হিসেবে আউট হন চামিকা করুনারত্নে। ৩৮ বলে তিনি করেন ৩১ রান। মদুশাঙ্কা অপরাজিত ছিলেন ১ রান নিয়ে।

আফগানিস্তানের হয়ে ৩টি উইকেট নেন ফজল হক। ২টি করে উইকেট নেন মুজিব উর রহমান ও নবি। একটি উইকেট পান নাভিন উল হক।

সংক্ষিপ্ত স্কোর: শ্রীলঙ্কা: ১০৫/১০ (১৯.৪ ওভারে) আফগানিস্তান: ১০৬/২ (১০.১ ওভারে) ফল: আফগানিস্তান ৮ উইকেটে জয়ী।

শ্রীলঙ্কা একাদশ: দাসুন শানাকা (অধিনায়ক), দানুস্কা গুনাথিলাকা, পাথুম নিসানকা, কুশাল মেন্ডিস (উইকেটরক্ষক), চারিথ আসালঙ্কা (সহ-অধিনায়ক), ভানুকা রাজাপাকসে, ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা, চামিকা করুণারত্নে, মহেশ থিকশানা, দিলশান মধুশঙ্ক ও মাথিশা পাথিরানা।

আফগানিস্তান একাদশ: আফসার জাজাই, রহমানউল্লাহ গুরবাজ, নাজিবউল্লাহ জাদরান, করিম জানাত, ইবরাহিম জাদরান, মোহাম্মদ নবী (অধিনায়ক), রশিদ খান, আজমতউল্লাহ ওমারজাই, নাবিন উল হক, ফজল হক ফারুকী ও মুজিব উর রহমান।

Link copied!