• ঢাকা
  • রবিবার, ২১ এপ্রিল, ২০২৪, ৮ বৈশাখ ১৪৩১, ১১ শাওয়াল ১৪৪৫

যে দিনটি পুরুষদের জন্য প্রতি চার বছরে একবার আসে


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ২৯, ২০২৪, ০৪:২০ পিএম
যে দিনটি পুরুষদের জন্য প্রতি চার বছরে একবার আসে
ছবি: সংগৃহীত

ইংরেজি বছরের অতিরিক্ত একটি দিন ২৯ ফেব্রুয়ারি। ৪ বছর অন্তর অন্তর এই দিনটি একবার আসে। দিনটিকে ‘লিপ ইয়ার’ বলা হয়। ৪ বছর পর পর একবার আসে বলে দিনটির গুরুত্ব সবার কাছে একটু ভিন্ন। বলা যায়, বিশেষভাবে দিনটি পালিত হয় বিশ্বের বুকে। এই দিনে অনেকে বিয়েও করেছেন। তারা ৪ বছর পরপরই নিজেদের বিশেষ দিনটি পালন করেন। আবার এইদিনে অনেকে পৃথিবীতেও এসেছেন। তাদের জন্মদিনও পালিত হয়  বিশেষভাবে। মোট কথা, বছরের বিশেষ এই দিনটি নিয়ে বিশেষ পরিকল্পনা তো থাকেই।

লিপ ইয়ারের বিশেষ এই দিনটির একটি বিশেষ উপলক্ষও আছে। বিশ্বজুড়ে দিনটি পালিত হচ্ছে প্রেম বা বিয়ের  প্রস্তাব দেওয়ার সুযোগ হিসেবে। আর এই সুযোগ পাচ্ছেন নারীরা। এই দিনটিতে নারীরা তাদের পছন্দের পুরুষকে প্রেমের প্রস্তাব দিতে পারেন। এমনকি বিয়ের প্রস্তাব জানানোরও সুযোগ পান। এমনই রীতি বিশ্বজুড়ে চালু হয়েছে পঞ্চম শতাব্দী থেকে। রোমানো-ব্রিটিশ পোপ সেন্ট প্যাট্রিক এই দিনটিকে নারীদের জন্য উত্সর্গ করে এই সুযোগ করে দিয়েছেন।

ইতিহাস থেকে জানা যায়, নারীদের জন্য এই দিনটি নির্দিষ্ট করে দেন আয়ারল্যান্ডের ধর্মপ্রচারক সেন্ট প্যাট্রিক। তিনিই প্রথম নারীদের এই নীরব চাওয়াকে উপলব্ধি করেন। এরপর পছন্দের পুরুষকে নারীরা বিয়ের প্রস্তাব পাঠানোর জন্য এই বিশেষ দিনটি ধার্য করেন। ৪ বছর পর আসা ফেব্রুয়ারির এই অতিরিক্ত দিনটিকে স্মরণীয় করে রাখতেই এই উদ্যোগ নিয়েছিলেন সেই ধর্মপ্রচারক।

ওই সময় সেন্ট প্যাট্রিক নিয়ম করেন, “যে পুরুষ কোনো নারীর বিয়ের প্রস্তাব ফিরিয়ে দেবেন, তাকে সরকারি কোষাগারে নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থ জরিমানা দিতে হবে।“ এই নিয়মের ধাঁচেই বহুবছর ধরে পালিত হচ্ছে বিশেষ এই দিনটি। বিশ্বের বিভিন্ন দেশেই এই দিনটি পালিত হয়। তবে বেশি পালিত হয় আয়ারল্যান্ড, ডেনমার্কসহ ইউরোপের কয়েকটি দেশে। এ প্রথা চালু রয়েছে যুক্তরাষ্ট্রেও। নারীদের পক্ষ থেকে পছন্দের পুরুষকে বিয়ের প্রস্তাব দেওয়াটা সেখানে অলিখিত প্রথার মতোই চলছে।

নারীরা লজ্জাবতী। মনের কথা পুরুষকে বলা যেন লজ্জার কাজ। কিন্তু এই দিনটিতে সেই লজ্জাকে পাশ কাটিয়ে পছন্দের পুরুষের সামনে হাটু গেড়ে বসে বিয়ের বা প্রেমের প্রস্তাব দিতে খুব একটা হিমশিম খাচ্ছেন না নারীরা। প্রিয়জন ‘অফিশিয়ালি’ অন্য কারও হয়ে যাওয়ার আগেই বলে দিচ্ছেন মনের কথা। আর শুরু হচ্ছে নতুন প্রেমের গল্প।

Link copied!