• ঢাকা
  • শুক্রবার, ০১ মার্চ, ২০২৪, ১৬ ফাল্গুন ১৪৩০, ১৯ শা’বান ১৪৪৫

সিনেমা দেখে ভাষা শিখুন


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: আগস্ট ২০, ২০২৩, ০৩:০০ পিএম
সিনেমা দেখে ভাষা শিখুন

শুধুমাত্র ইংরেজিতে দক্ষ না হওয়ায় অনেক জায়গা থেকেই নিজেকে গুটিয়ে নেন অনেকে। অন্য সকলের চেয়ে নিজেকে অযোগ্য বলেও মনে হতে পারে। মনোবিদেরা বলছেন, বিদেশি ভাষা বলতে বা লিখতে গেলে হোঁচট খাওয়া স্বাভাবিক। কারণ জ্ঞান হওয়ার পর থেকে মাতৃভাষা শোনার যে অভ্যাস তৈরি হয়, তা অন্য কোনো ভাষার ক্ষেত্রে হয় না। সুতরাং একটি বিষয় পরিষ্কার যে ভাষা শেখার ক্ষেত্রে শোনার গুরুত্ব অপরিসীম। পছন্দের কোনো বিষয় হলে সেক্ষেত্রে দেখা বা শেখার কাজ অনেকটা সহজ হয় বলছেন প্রশিক্ষকেরা। তাই ভাষা শিক্ষা কেন্দ্রগুলোতে ইংরেজি সিনেমা দেখানোর অভ্যাস করানো হয়। তেমন কয়েকটি সিনেমার নাম জনে নিই চলুন-

জুরাসিক পার্ক
ইংরেজি শেখার জন্য জুরাসিক পার্ক ছবিটি বেশ কাজে আসতে পারে। স্টিভেন স্পিলবার্গ পরিচালিত এই ছবি মুক্তি পেয়েছিল ১৯৯৩ সালে। এই ছবি থেকে বিজ্ঞান বিষয়ক কিছু নতুন শব্দ শিখে ফেলাই যায়।

জজ
স্টিভেন স্পিলবার্গ পরিচালিত আরও একটি ছবি জজ মুক্তি পেয়েছিল ১৯৭৫ সালে। পিটার বেঞ্চলের লেখা উপন্যাসের ওপর ভিত্তি করে এই ছবি তৈরি করেছিলেন পরিচালক। ছবির মূল বিষয়বস্তু হলো সমুদ্রের তলায় রাজত্ব করা একটি হাঙর এবং তার নরখাদক হয়ে ওঠা। যেহেতু শিশুদের কথা মাথায় রেখে এই ছবি বানানো, তাই বিষয় এবং ভাষাগত প্রয়োগ খুবই সহজ। সমু্দ্রের তলার জগৎ এবং সেই সম্পর্কিত নতুন কিছু শব্দ শেখা যায় এই ছবি দেখে।

টয় স্টোরি
১৯৯৫ সালে মুক্তি পেয়েছিল এই অ্যানিমেটেড ছবিটি। এই ধরনের ছবি সাধারণত ছোটদের মনোরঞ্জনের উদ্দেশেই তৈরি করা হয়। কিন্তু এই ধরনের ছবিতে ব্যবহার করা সংলাপ এবং চিত্রনাট্য এতই সহজ যে, তা বোঝা কোনো ব্যপার না। তাছাড়া, আমাদের চারপাশে এমন অনেক কিছু ছড়িয়ে-ছিটিয়ে থাকে, যেগুলোর ইংরেজি মানে হয়তো অনেকেই জানেন না। সেই সব বিষয় শিখতে পারেন এই ছবি থেকে।

দ্য কুইন
২০০৬ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত স্টিফেন ফ্রিয়ার্স পরিচালিত ‘দ্য কুইন’ ছবিটিতে তুলে ধরা হয়েছে দ্বিতীয় এলিজাবেথের রানি হয়ে ওঠার যাত্রাপথ। এতে  রাজ পরিবারের বির্তকিত চরিত্র রাজকুমারী ডায়নার পরিণতি দেখা যায়। ইতিহাস এবং রাজপরিবারের ঐতিহ্যের সঙ্গে জড়িয়ে রয়েছে এমন অনেক শব্দের সঙ্গে পরিচয় হবে এই ছবিতে।

বিফোর সানরাইজ
রিচার্ড লিঙ্কলেটার পরিচালিত ১৯৯৫ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত নিখাদ ভালবাসার ছবি হলো বিফোর সানরাইজ। এক তরুণ-তরুণীর ট্রেনে চড়ে ইউরোপ থেকে ভিয়েনা যাওয়া এবং একে অপরের সঙ্গে কাটানো ওই একটি মাত্র রাত হলো ছবির বিষয়বস্তু। জাগতিক চাওয়া-পাওয়ার মিথ্যা আস্ফালন ছুঁয়ে ফেলার আগে দুটো মানুষের নিষ্পাপ অনুভূতির বর্ণনা দেখে পুরনো ভালবাসা, কলেজ প্রেমের কথা মনে পড়তে বাধ্য। সেই সম্পর্কিত ভালবাসা, প্রেম, আবেগ, ঘোরাঘুরি, বন্ধুত্বের সঙ্গে জড়িয়ে এমন অনেক শব্দই শিখতে পারবেন এই সব ছবি দেখে।

Link copied!