• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ২৩ মে, ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১,

আট মামলায় ইমরানের জামিন


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: মে ২৩, ২০২৩, ০১:২৫ পিএম
আট মামলায় ইমরানের জামিন

পাকিস্তানের সাবেক প্রেসিডেন্ট ও তেহরিক-ই-ইনসাফের প্রধান ইমরান খান সহিংসতা-সংক্রান্ত ৮ মামলায় ৮ জুন পর্যন্ত জামিন পেয়েছেন। ইসলামাবাদ সন্ত্রাসবাদবিরোধী আদালত (এটিসি) ইমরানকে এ জামিন মঞ্জুর করেছেন।

মঙ্গলবার (২৩ মে) পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যম দ্য ডন এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে। এর আগে, আদালত ‘আল কাদির ট্রাস্ট’ মামলায় ৩১ মে পর্যন্ত ইমরানের খানের স্ত্রী বুশরা বিবির জামিন মঞ্জুর করেছেন। মঙ্গলবার স্ত্রী বুশরা বিবিকে সঙ্গে নিয়ে ইসলামাবাদ সন্ত্রাসবাদবিরোধী আদালতে (এটিসি) পৌঁছান ইমরান।

এদিন পরবর্তীতে ইমরান আল কাদির ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় ন্যাশনাল ইসলামাবাদে অ্যাকাউন্টেবিলিটি ব্যুরো (এনএবি) সামনেও হাজির হবেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

সেখানে এনএবি কর্তৃপক্ষ তাকে ফের গ্রেপ্তার করলেও সমর্থকদের শান্ত থাকার পরামর্শ দিয়েছেন পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী।

জুডিশিয়াল কমপ্লেক্সে সহিংসতাসংক্রান্ত ৮টি মামলার জামিন আবেদন করেন তিনি। এটিসিতে যাওয়ার আগে অ্যাকাউন্টিবিলিটি কোর্টে গিয়ে বুশরা বিবির জামিন আবেদন করেন তারা। ‘আল কাদির ট্রাস্ট’ মামলায় বুশরা বিবির জামিনের মেয়াদ শেষ হয়েছে আজ মঙ্গলবার। এরপর আদালত ৩১ মে পর্যন্ত ইমরানের খানের স্ত্রী বুশরা বিবির জামিন মঞ্জুর করেছেন।

শুনানি শুরু হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ইমরানের আইনজীবী আদালতকে জানান, তার মক্কেলের বিরুদ্ধে মোট আটটি মামলা দায়ের করা হয়েছে এবং ইমরান সবকটিতে তার জবানবন্দী দিয়েছেন।

আরও কোনো প্রশ্ন থাকলে তার উত্তর দেওয়ার জন্য ইমরান প্রস্তুত বলে জানান আইনজীবী। পিটিআই প্রধানের কৌঁসুলি ব্যারিস্টার সফদার তাকে একই দিনে সমস্ত মামলার যুক্তি উপস্থাপনের অনুমতি দেওয়ার জন্য আদালতকে অনুরোধ করেছিলেন। আদালত অবশ্য আইনজীবীকে ‘অন্তত একটি মামলার’ পক্ষে যুক্তি উপস্থাপন করার নির্দেশ দিয়েছেন।

সফদার এ সময় আদালতকে জানিয়েছেন, ইমরানকে আজ দিনে একটি জবাবদিহি আদালতে হাজির হতে হবে তাই সময়ের বাধ্যবাধকতা রয়েছে। তাই তিনি পরেরদিন যুক্তি উপস্থাপন করার অনুমতি দেওয়ার জন্য আদালতকে অনুরোধ জানান।

এর আগে ইমরান খান আশঙ্কা প্রকাশ করে বলেছেন, গত ৯ মের মতো তাকে আবারও গ্রেপ্তার করা হতে পারে। এর জন্য তিনি সমর্থকদের শান্তি বজায় রাখার পরামর্শ দিয়েছেন।

সম্ভাব্য এ গ্রেপ্তারের আগে সোমবার টুইটারে সমর্থকদের সঙ্গে যুক্ত হন ইমরান। তিনি প্রায় দেড় ঘণ্টা টুইটারে করা বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন।

ইমরান সমর্থকদের ‘শান্তিপূর্ণ’ আন্দোলন অব্যাহত রাখার নির্দেশনা দিয়ে বলেছেন, “আপনারা যদি সহিংস হন, তবে তারা আবার ক্র্যাকডাউন দেওয়ার সুযোগ পাবে। আমাদের সর্বদা শান্তিপূর্ণভাবে প্রতিবাদ করতে হবে। যদি আমাকে জেলে যেতে হয়, এটি কোনো কিছুরই পরিবর্তন করবে না। আমি এর জন্য মানসিকভাবে প্রস্তুত।”

Link copied!