• ঢাকা
  • শনিবার, ২০ জুলাই, ২০২৪, ৪ শ্রাবণ ১৪৩১, ১৩ মুহররম ১৪৪৫

আসলে কী তাই?


রাজীব কুমার দাশ
প্রকাশিত: আগস্ট ১, ২০২২, ০২:৪৬ পিএম
আসলে কী তাই?

উদ্দেশ্যহীন মনে সৈকতে
একাকি হেঁটে চলেছি
বিনোদিত মনে শত শত
নারী-পুরুষের ভালোলাগা
ভালোবাসা গোপন অভিসার
সমুদ্র গর্জন শুনে হাসছে। 
চিৎকার করে বলছে :
“ওরে বোকা! আমি হচ্ছি ধোঁকা।
আমার ভালোবাসা কাউকে 
দেই নাই, দেইনি, আমি দিতে পারি না।
—আমি সমুদ্র
—আমি ছিন্নমস্তা 
—ডাকিনি-যোগিনী মাতা
—নিজ রক্তে মৃত্যুক্ষুধা নিবারিণী
—আমি কর্ণ পিশাচিনী
নেচে গেয়ে সুযোগ বুঝে হই ডাকিনি
যোগিনী হয়ে আমার চামচাদের কাছে টানি।”
কখনও বজ্রযোগিনী
হই মায়াবিনী
আবার কাত্যায়নী 
ঢেউ হয়ে, হয়ে পড়ি মন্দাকিনী
কখনো সলিল ঘুমপাড়ানি 
কখনো-বা ছলনাময়ী!
আমাকে ভালোবাসার অপরাধে
সলিল সমাধি দণ্ডে
দণ্ডিত করি;
প্রতারণ মনে বেঁহুস করি
নোনাজলে ফেনা তুলি।
সমুদ্রের এহেন নিষ্ঠুর আচরণে
ভালোবাসার মুখে হোঁচট খেলাম
বিশ্বাস হারিয়ে দিগ্বিদিক
ছোটাছুটি করে
ঘোটকের গায়ে ধাক্কা খেলাম। 
হিহিহিহি—হাহাহাহা ডাকে সম্বিত
ফিরে পেলাম
বিশ্রী রকমের ভৎর্সিত
আচরণে স্থায়ীভাবে হৃদয়
হারালাম।
কান্নাখেকো কষ্টে ঘোটক পানে
তাকিয়ে রইলাম
বৃদ্ধ ঘোটকের কেন জানি
দয়া হলো
বলল :
“শোন বাছা আমার! খোল দু’টি
নয়ন। ভালোবাসা হাড়ে হাড়ে বাজে ঠনঠন।”
ওরে দুষ্টু ঘোড়া! বুঝিনি তোমার
কথার ছলাকলা
সহজ করে বলো এখন 
শোন! বাছাধন। সিন্ধু ঘোটকীর 
প্রেমে আমিও ছিলাম অন্ধ
পালিয়ে দুর্বোধ্য যাতনায়
হারিয়েছি মন প্রাণ।
সন্ধের আবছা আলোতে
দূরত্ব মেপে হাঁটছে 
ধন্ধে পড়া বিদেশিনী
ঘোটকের কথা শুনে
আহা!
নির্বোধ প্রেম জাগিল মনে।
জিজ্ঞেস করলাম :
ওগো বিদেশিনী
—yes! 
ভালোবাসা মানে কী? 
—ops! gay
Love meaning loss project. 
নিরঙ্কুশ নির্লজ্জ নিষ্ঠুর সমুদ্রও
বিদেশিনী কথা শুনে
হিহিহিহি—হাহাহাহা  করে
হাসছে। 
আসলে কী তাই?

Link copied!