• ঢাকা
  • শুক্রবার, ১২ আগস্ট, ২০২২, ২৭ শ্রাবণ ১৪২৯

বিবিসির প্রতিবেদনে হিরো আলম


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: আগস্ট ৫, ২০২২, ০৪:১২ পিএম
বিবিসির প্রতিবেদনে হিরো আলম

নানা কারণে আলোচিত হিরো আলম। নিজস্ব গায়কী ও অভিনয়ের জন্য সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বিপুল জনপ্রিয়তা রয়েছে তার। সম্প্রতি ‍পুলিশের গোয়েন্দা শাখা ডিবি অফিসে গিয়ে মুচলেকা দিয়ে সংবাদ শিরোনাম হয়েছিলেন এ অভিনেতা। এবার দেশের সীমানা পেরিয়ে ব্রিটিশ গণমাধ্যম বিবিসির সংবাদ হলেন তিনি।

সম্প্রতি হিরো আলমকে নিয়ে একটি প্রতিবেদন প্রচার করেছে বিবিসি। সেই প্রতিবেদনেও উঠে এসেছে গান গাওয়ার জন্য ডিবি অফিসে গিয়ে হিরো আলমের মুচলেকা দেওয়ার বিষয়টি।

প্রতিবেদনে বলা হয়, হিরো আলমকে বিখ্যাত বা আপনার দৃষ্টিতে কুখ্যাতও বলতে পারেন। হিরো আলম নিজস্ব গায়কীতে গান গেয়ে থাকেন। তবে সম্প্রতি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ও বাংলাদেশের জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের গান গেয়ে আলোচনায় আসেন তিনি। এ জন্য তাকে ডিবি অফিসে ডাকা হয়। তিনি আর কখনো রবীন্দ্র ও নজরুলসংগীত গাইবেন না—এই মর্মে তার কাছ থেকে মুচলেকা নেওয়া হয়।

এ প্রসঙ্গে হিরো আলম বলেন, “আমাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডাকতে পারে। কিন্তু আমার সঙ্গে খারাপ ব্যাবহার করতে পারে না। আমাকে কথা বলতে না দিয়ে, গান গাইতে না দিয়ে আমার অধিকার হরণ করা হয়েছে বলে আমি মনে করি।”

এর আগে ২৭ জুলাই ডিবি কার্যালয়ে মুচলেকা নেওয়া হয় হিরো আলমের। ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) কাছে মুচলেকা দিয়ে হিরো আলম জানিয়েছেন, জীবনেও আর বিকৃত করে নজরুল ও রবীন্দ্রসংগীত গাইবেন না।

এ প্রসঙ্গে ডিএমপির গোয়েন্দা বিভাগের প্রধান মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ বলেন, “হিরো আলমের বিরুদ্ধে ডিবির সাইবার অ্যান্ড স্পেশাল ক্রাইম বিভাগে অনেকগুলো অভিযোগ জমা হয়েছিল। সেগুলোর বিষয়ে আমরা তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছি। তাকে ডাকা হয়েছিল। সে মুচলেকা দিয়েছে, জীবনেও আর নজরুল ও রবীন্দ্রসংগীত বিকৃত করে গাইবেন না, এ ধরনের ভিডিও বানাবেন না।”

হারুন অর রশীদ আরও বলেন, “আমাদের বাঙালি সংস্কৃতির অহংকার নজরুল ও রবীন্দ্রসংগীত। আমরা গান শুনি, নজরুল, রবীন্দ্র শুনি, এই সব গানের সে সবকিছু পরিবর্তন করেছে। এসব কেন করে জানতে চাইলে সে জানিয়েছে, সে জীবনেও আর এমন গান করবে না, সে মুচলেকা দিয়েছে।”