• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন, ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ৬ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

ইসরায়েলের জাতীয় সংগীতের সুর চুরি, বিতর্কে আনু মালিক


সংবাদ প্রকাশ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: আগস্ট ২, ২০২১, ০৭:৫৭ পিএম
ইসরায়েলের জাতীয় সংগীতের সুর চুরি, বিতর্কে আনু মালিক

চলছে টোকিও অলিম্পিক। ভারতের বেশ কয়েকজন প্রতিযোগী বিভিন্ন ইভেন্টে পদক জিতে নিয়েছেন। তবে তাদের ছাপিয়ে আলোচনায় চলে এসেছেন বলিউডের জনপ্রিয় সংগীত পরিচালক আনু মালিক। প্রতিযোগিতায় অংশ না নিয়েও কেন তিনি আলোচনায়? প্রশ্নের বিস্তারিত উত্তর জানা যাক। 

চলতি বছর টোকিও অলিম্পিকে জিমন্যাস্টে প্রথম সোনা জিতেছে ইসরায়েল। হাড্ডাহাড্ডি লড়াই শেষে সোনা জিতে নিয়েছেন দেশটির আর্টেম ডলগোপিয়াট। আর্টেমকে জয়ী ঘোষণা করার পরেই ইসরায়েলের জাতীয় সংগীত ‘হাতিকভাহ’ বেজে ওঠে সেখানে। কিন্তু আনন্দময় মুহূর্তে ভারতীয়দের চোখ একেবারে ছানাবড়া। কারণ, ইসরায়েলের জাতীয় সংগীতের সঙ্গে মিল রয়েছে ভারতীয় আরও এক জনপ্রিয় গানের। 

১৯৯৬ সালে অজয় দেবগন অভিনীত ছবি ‘দিলজলে’র ‘মেরা মুল্ক মেরা দেশ’ শিরোনামের গানটি বেশ জনপ্রিয় হয়। দেশপ্রেমের এই গানটি আজও ভারতের বিভিন্ন দিবসে বাজানো হয়। কিন্তু গানটি যে ইসরায়েলের জাতীয় সংগীতের সুর চুরি করে বানিয়েছিলেন, তা কেউ ধারণাও করেনি। ইসরায়েলের জাতীয় সংগীত থেকে হুবহু টুকেই গানের সুর করেছিলেন, টোকিও অলিম্পিকের দিনেই তা জানতে পারেন অধিকাংশ ভারতীয়। টুইটারে এই কারণে ট্রেন্ডিং লিস্টে উঠে এসেছে আনু মালিকের নাম।  

তবে আনু মালিক এই প্রথম যে সুর চুরি ধরা পড়েছেন এমনটাও নয়। বলিউডের একাধিক জনপ্রিয় গানের সঙ্গে আন্তর্জাতিক বিখ্যাত গানের সুরের মিল পাওয়া গিয়েছে। আনু মালিকের মতোই প্রীতম চক্রবর্তীও রয়েছেন সেই তালিকায়। 

Link copied!