• ঢাকা
  • বুধবার, ১২ জুন, ২০২৪, ২৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ৬ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

ইউপি কার্যালয়ে ঢুকে মেম্বারকে যুবলীগ নেতার মারধর


জামালপুর প্রতিনিধি
প্রকাশিত: মে ১৮, ২০২৪, ০৪:২৪ পিএম
ইউপি কার্যালয়ে ঢুকে মেম্বারকে যুবলীগ নেতার মারধর
অভিযুক্ত যুবলীগ নেতাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। ছবি : প্রতিনিধি

জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে ইউনিয়ন পরিষদের কার্যালয়ে ঢুকে এক মেম্বারকে মারধর করা হয়েছে। এঘটনায় অভিযুক্ত সাবেক যুবলীগ নেতা আল মামুনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

শনিবার (১৮ মে) ভোরে রাজধানীর ধানমন্ডি এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। সরিষাবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুশফিকুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

গ্রেপ্তার মামুন উপজেলার ডোয়াইল ইউনিয়নের চাপারকোনা গ্রামের আইনুদ্দিন মাস্টারের ছেলে ও সাবেক যুবলীগ নেতা। তার বিরুদ্ধে মাদক, চাঁদাবাজি, ইভটিজিংসহ একাধিক মামলা রয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বুধবার (১৫ মে) দুপুরে  উপজেলার ডোয়াইল ইউনিয়ন পরিষদের সচিবের কক্ষে দলবল নিয়ে ঢোকেন যুবলীগ নেতা মামুন। এ সময় পরিষদের ইমরান হোসেনের দ্রুত মেয়ের জন্ম সনদ  দিতে বলেন। জন্ম সনদ দিতে দেরি হওয়ায় হাত ভেঙে ফেলার হুমকি দেন মামুন। এসময় ইউপি সচিবের কক্ষে বসে ছিলেন ২ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার রেজাউল হক।

রেজাউল যুবলীগ নেতা মামুনের খারাপ ব্যবহারের প্রতিবাদ করেন। এতে মামুন ক্ষিপ্ত হয়ে মেম্বার রেজাউলকে এলোপাতাড়ি মারধর শুরু করেন। পরে স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। এ ঘটনার পর দিন বৃহস্পতিবার (১৬ মে) দুপুরে যুবলীগ নেতা মামুন মিয়ার বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেন ভুক্তভোগী ইউপি মেম্বার রেজাউল।

সরিষাবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুশফিকুর রহমান বলেন, “ডোয়াইল ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বারকে মারধরের ঘটনায় থানায় মামলা করা হয়। পরে পুলিশের তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় অভিযুক্ত মামুনের অবস্থান শনাক্ত করে ঢাকার ধানমন্ডি থেকে গ্রেপ্তার করা হয়।”

Link copied!