• ঢাকা
  • রবিবার, ১৯ মে, ২০২৪, ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১,

‘প্রধানমন্ত্রীর ক্রীড়া প্রেমকে ব্ল্যাকমেইল করেছে বাফুফে’


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: এপ্রিল ১৫, ২০২৩, ০৭:৫৩ পিএম
‘প্রধানমন্ত্রীর ক্রীড়া প্রেমকে ব্ল্যাকমেইল করেছে বাফুফে’

আর্থিক জালিয়াতির অভিযোগে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক মো. আবু নাইম সোহাগকে দুই বছরের জন্য ফুটবলের সব ধরনের কার্যক্রম থেকে নিষিদ্ধ করেছে ফিফা। তবে  আর্থিক কেলেঙ্কারিতে শুধু সোহাগ নয় বাফুফে সভাপতি কাজী সালাউদ্দিনও জড়িতে বলে দাবি করেছেন বাফুফের নির্বাহী কমিটির পদত্যাগী সদস্য আরিফ হোসেন মুন।

 আরিফ হোসেন মুন বলেন, “সোহাগ ফুটবল ফেডারেশনের কর্মচারী। তার একা কিছু করার সাধ্য নেই। মনিবের সায় ছাড়া একজন কর্মচারী কখনো এ পর্যায়ে অনিয়ম-দুনীর্তি করতে পারে না। সে এত কিছু করছে কিন্তু ফিন্যান্স কমিটির চেয়ারম্যান ও বাফুফে সভাপতি জানেন না, এটা বিশ্বাসযোগ্য নয়।”

জাতীয় দলের সাবেক তারকা ফুটবল মুন অভিযোগ করেন, প্রধাণমন্ত্রী শেখ হাসিনার ক্রীড়া প্রেমকে ব্ল্যাকমেইল করেছে তারা বাফুফে। তিনি বলেন, ‘২০০৮ সালে সালাউদ্দিন ভাই বাফুফের দায়িত্ব নেওয়ার পর কী দারুন প্রত্যাশা তৈরি হয়েছিল চারদিকে। এছাড়াও আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার  ক্রীড়া প্রেমের কথা সবাই জানে। দুর্ভাগ্য হলো, এরপরও কিছু করা গেল না ফুটবলে। দিন দিন আরো পিছিয়েছে আমাদের ফুটবল। আমি বলতে বাধ্য হচ্ছি, প্রধানমন্ত্রীর ক্রীড়া প্রেমকে ব্ল্যাকমেইল করেছে তারা! তারা কেউ কেউ নিজের স্বার্থে প্রধানমন্ত্রীর কাছে গেছেন, কিন্তু ফুটবলের জন্য কেউ যায়নি।’

এই নিয়ে টানা চার মেয়াদে বাফুফের সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন সালাউদ্দিন। এখন পর্যন্ত তার কমিটি থেকে একমাত্র পদত্যাগকারী সদস্য নীলফামারী ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি আরিফ হোসেন মুন। কমিটির কার্যকলাপ দেখে রীতিমতো হতাশ হয়েই পদত্যাগ করেন তিনি।  

মুন বলেন, “সত্যি আমি বিশ্বাস করতাম এই কমিটিকে দিয়ে ফুটবলের উন্নতি হবে। কারণ কমিটিতে এতগুলো সাবেক খেলোয়াড় এবং সবার ওপরে সালাউদ্দিন ভাই। সবাই মিলে চেষ্টা করলে পারতাম; কিন্তু এই সেটা হয়নি বলেই আমি ছেড়ে দিয়েছি।”

এমনকি দেশের ফুটবলের ভবিষ্যৎ নিয়েই শঙ্কা তার মনে। তিনি বলেন, “সোহাগ ধরা পড়েছে মনে ফুটবলের সব ভালো হয়ে যাবে, এমন কল্পনা করা কঠিন নয়। তবে আমি নিজে এই ফেডারেশনে থেকে ফুটবলে দুর্নীতি ও অনিয়মের যে রূপ দেখেছি, এখান থেকে খেলাটিকে বাঁচানো কঠিন।”

Link copied!