• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল, ২০২৪, ৪ বৈশাখ ১৪৩১, ৮ শাওয়াল ১৪৪৫

বিশ্বকাপের শুরুতে নাসিমকে না পাওয়ার শঙ্কা পাকিস্তানের


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ১৫, ২০২৩, ১২:১৯ পিএম
বিশ্বকাপের শুরুতে নাসিমকে না পাওয়ার শঙ্কা পাকিস্তানের
পাকিস্তান পেসার নাসিম শাহ। ছবি: সংগৃহীত

এশিয়া কাপে সুপার ফোরে শ্রীলঙ্কার কাছে রুদ্ধশ্বাস ম্যাচে হেরে ভারতের বিপক্ষে ফাইনাল খেলা হলো না পাকিস্তানের। ম্যাচ হারের পর পাকিস্তান অধিনায়ক বাবর আজম শুনালেন এক দুঃসংবাদ। পেসার নাসিম শাহকে বিশ্বকাপের শুরুতে না পাওয়া নিয়ে তৈরি হয়েছে তাদের শঙ্কা। এই পেসার চোট থেকে কতদিনের মধ্যে সেরে উঠবেন, তা নিয়ে এখনো পরিষ্কার করে কিছু বলেনি পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)।

এশিয়া কাপের সুপার ফোরে ভারতের সঙ্গে ম্যাচে ডাঁন কাধের চোট পান নাসিম। তাকে নিয়ে বিশ্বকাপের আগে কোনো ঝুকি নিতে চাইনি পিসিবি। তাই তার বদলি হিসেবে এশিয়া কাপের দলে অন্তর্ভুক্ত করে পেসার জামান খানকে। ৫ অক্টোবর থেকে ভারতে শুরু হবে ওয়ানডে বিশ্বকাপ। পাকিস্তানের প্রথম ম্যাচ নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে ৬ অক্টোবর। টুর্নামেন্টের শুরু থেকে নাসিম ফিট থাকবেন কি না, বাবর সে বিষয়ে নিশ্চিত নন।

একই ম্যাচে পাকিস্তানের আরেক পেসার হারিস রউফও চোট পান। হারিসকে বিশ্বকাপের শুরু থেকেই ফিট হিসেবে পাওয়া যাবে বলে জানান পাকিস্তান অধিনায়ক বাবর। এশিয়া কাপে পাকিস্তানের স্কোয়াড থেকে নাসিমকে বাদ দিলেও হারিসকে দলের সঙ্গেই রেখে দেন পিসিবি।

শ্রীলঙ্কার সঙ্গে ম্যাচ শেষে বিশ্বকাপে নাসিম ও হারিস রউফকে না পেলে বিকল্প পরিকল্পনা কী, জানতে চাওয়া হয়েছিল বাবরের কাছে। অধিনায়ক বলেন, “হারিস রউফের অবস্থা ভালো। তার একটু টান লেগেছে। কিন্তু সে বিশ্বকাপের আগেই সুস্থ হয়ে উঠবে। নাসিম শাহও তাই। তবে তাদের (চোটে) পার্থক্য আছে। সুস্থ হয়ে উঠতে কত দিন লাগবে, জানি না। তবে আমার মতে, নাসিমকেও বিশ্বকাপের শেষ দিকে পাওয়া যাবে। দেখা যাক কী হয়।”

নাসিমের চোটের কারণে কতদিন মাঠের বাইরে থাকবেন সে বিষয়ে পিসিবি এখনো কিছুই জানায়নি। ডান কাঁধের নিচের মাংসপেশির এই চোটের স্ক্যান করাতে এখন দুবাইয়ে আছেন নাসিম।
তার চোটের কারণে এর আগে ভুগিয়েছে পাকিস্তানকে। ২০ বছর বয়সী এই পেসার আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে আসার পর পিঠের চোটের কারণে প্রায় ১৪ মাস ক্রিকেট থেকে দূরে থকেন। এরপর মাঠে ফিরে দেড় মাস পর আবরও কাঁধের চোটের কারণে এক মাসের জন্য মাঠের বাইরে চলে যান। তবে এই তরুণ পেসার ক্রিকেটের তিন ফর্মেটে পাকিস্তানের অন্যতম সেরা বোলার। ওয়ানডেতে অভিষেকের পর পাকিস্তানের হয়ে ১৪ ম্যাচে ১৬.৯৬ গড়ে শিকার করেছেন ৩২ উইকেট।

Link copied!