• ঢাকা
  • বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ১৫ ফাল্গুন ১৪৩০, ১৮ শা’বান ১৪৪৫

ডাকাতির শিকার হয়েছে মেসির স্ত্রীর পরিবার


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: নভেম্বর ২৫, ২০২৩, ০৫:১৫ পিএম
ডাকাতির শিকার হয়েছে মেসির স্ত্রীর পরিবার
ছবি: সংগৃহীত

আর্জেন্টাইন ফুটবলার লিওনেল মেসি পেশাদারিত্বের কারণে বর্তমানে থাকেন আমেরিকায়। সেখানে মেসির সঙ্গে থাকেন তার স্ত্রী আন্তোনেল্লা রোকুজ্জো। তবে লিওর স্ত্রীর পারিবারিক ব্যবসা রয়েছে আর্জেন্টিনার রোজারিও শহরে। সেখানে তার সুপারশপের দায়িত্বে থাকেন রোকুজ্জোর পরিবারের সদস্যরা। মেসির স্ত্রীর সুপারমার্কেটের প্রায় ২৫ লাখ টাকা গুলি করে ছিনতাই করে নিয়ে গেছে বন্দুকধারীরা।

চলতি বছরের মার্চে রোকুজ্জোর এই সুপারশপে গুলি করা হয়েছিল। সেই সঙ্গে হুমকিও দেওয়া হয়েছিল মেসিকে। এবার ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে সেখানে। সরাসরি সুপারশপে দুর্বৃত্তরা হানা দেয়নি। তবে সুপারশপের টাকা ব্যাংকে রাখতে যাওয়ার সময় তাদের গাড়িতে আক্রমণ করে মোটা অঙ্কের টাকা হাতিয়ে নিয়ে যায় ডাকাত সদস্যরা।

জানা যায়, আর্জেন্টিনার রোজারিওতে পারিবারিক সুপার মার্কেট টাকা নিয়ে গাড়িতে করে স্থানীয় ব্যাংকে জমা দিতে যাচ্ছিলেন রোকুজ্জোর কাজিন অগাস্তিনা স্কালিয়া। তার সঙ্গে ছিলেন সুপারমার্কেটের দুজন কর্মী। তবে ব্যাংকে যাওয়ার পথে ঘটে বিপত্তি। রোজারিওর রাস্তায় পেলেগ্রিনি অ্যাভিনিউয়ে দুজন বন্দুকধারী তাদের গাড়ি থামিয়ে প্রায় ৮ মিলিয়ন আর্জেন্টাইন পেসো ডাকাতি করেছে। যা প্রায় ২২ হাজার ৫০০ ডলারের সমান বলে জানিয়েছে আর্জেন্টাইন সংবাদমাধ্যম।

আর্জেন্টিনার গণমাধ্যমের ভাষ্য অনুযায়ী, সুপারমার্কেট থেকে ৪৫ ব্লক দূরে এই ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। সাদা রঙের একটি গাড়িতে করে এসেছিল দুষ্কৃতকারীরা। স্কালিয়াদের গাড়ি থামিয়ে তারা গুলি ছুড়েছে। গুলি গাড়ির কাচ ভেদ করে গেলেও কেউ হতাহত হয়নি। দুষ্কৃতকারীরা দুটি ব্যাগে থাকা টাকা নিয়ে গেছে।

গাড়িতে থাকা এক কর্মী জানান, “টাকা রাখতে আমরা সুপারমার্কেট থেকে ব্যাংকে যাচ্ছিলাম। ওরা আমাদের জানালা ভেঙে টাকা নিয়ে গেছে। গাড়িতে করে এসেছিল। ঘটনার শুরুতে গুলির শব্দ শুনেছি। গাড়ি থেকে বের হওয়ার পর বুলেটের ছিদ্র দেখেছি।”

এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ইনস্টাগ্রামে ক্ষতিগ্রস্ত গাড়ির ছবি পোস্ট করেছেন রোকুজ্জোর কাজিন। ছবির ক্যাপশনে তিনি লিখেছেন, “আমরা যে সময়ে বসবাস করছি, সে সময়ে চারপাশে কত রকম অবিচার হচ্ছে। ভাগ্য ভালো যে অল্পের ওপর দিয়ে গিয়েছে।” রোকুজ্জো তার কাজিনের পোস্টে মন্তব্যে লিখেছেন, “ভাইয়েরা, তোমাদের সবাইকে খুব ভালোবাসি।”

এর আগে গত মার্চেও একবার রোকুজ্জোদের সুপার মার্কেটে হামলা চালিয়েছিল দুষ্কৃতকারীরা। বাইরে থেকে গুলি করে চলে যাওয়ার আগে রাস্তায় একটি কাগজ ফেলে যায় তারা। সেই কাগজে মেসিকে হুমকি দিয়ে লেখা ছিল, “মেসি, আমরা তোমার জন্য অপেক্ষা করছি। পাবলো ইয়াভকিন (রোজারিওর মেয়র) নিজেই মাদক চোরাচালানকারী। সে তোমাকে বাঁচাতে পারবে না।”

Link copied!