• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল, ২০২৪, ৪ বৈশাখ ১৪৩১, ৮ শাওয়াল ১৪৪৫

মায়ামির হয়ে মেসির জয় রথ থামল


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: আগস্ট ৩১, ২০২৩, ১২:৫৯ পিএম
মায়ামির হয়ে মেসির জয় রথ থামল
ছবি: সংগৃহীত

লিওনেল মেসি ইন্টার মায়ামিতে যোগ দেওয়ার পর টানা ৯ ম্যাচ জয় পেয়েছে ক্লাবটা। মেসি আসার পর কোনো ক্লাব যেনো তাকে থামাতে পারছিল না। অবশেষে মেসিদের জয় রথ থামাতে পেরেছে ন্যাশভিল। মেজর লিগ সকারের (এমএলএস) ম্যাচে মায়ামি প্রথম ঘরের মাঠে খেলতে নেমেছিল নাশভিলের বিপক্ষে। এই ম্যাচে মেসিদের গোলশূন্য ড্রয়ে রুখে দিয়েছে ন্যাশভিল।

মায়ামি লিগস কাপের ফাইনালে ন্যাশভিলকে টাইব্রেকারে হারিয়ে প্রথম শিরোপার স্বাদ পায়। ঘরের মাঠে আর্জেন্টিনা ফরোয়ার্ডরা লিগস কাপ ট্রফি নিয়ে দর্শকদের সঙ্গে উদযাপনে মাতেন। জুলাইয়ে মেসি আসার পর মায়ামির জার্সিতে মাঠে নেমেছেন ৯ ম্যাচে। এই ৯ ম্যাচে ১১ গোল করেছেন সাতবারের ব্যালন ডি’অর জয়ী। প্রায় প্রতিটি ম্যাচেই জাল কাঁপান তিনি। এবার তাকে আটকে দিয়েছেন ন্যাশভিল। নতুন ক্লাবের জার্সিতে প্রথমবার পয়েন্ট হারানোর স্বাদ পেলেন এলএম টেন।

লিগের প্রথম ম্যাচে বদলি নামা মেসি ও সার্জিও বুসকেটস এদিন শুরুর একাদশে রেখেছিলেন কোচ তাতা মার্তিনো। মেসিরা এদিন আক্রমণে গিয়ে বার বারই ব্যর্থ হয়েছেন ন্যাশভিলের রক্ষণ দেওয়াল ভাঙতে। ম্যাচের প্রথম ৬০ মিনিটে মায়ামি প্রতিপক্ষের দিকে কোনো শট রাখতে পারেনি। এক ঘণ্টা পার হওয়ার পর মেসি ফ্রি কিক পান। কিন্তু তার নেওয়া ফ্রি কিক ন্যাশভিলের গোলকিপার এলিয়ট পানিক্কো ঠেকিয়ে দেন।

ম্যাচের ৬৯ মিনিটে ন্যাশভিলের খেলোয়াড় হ্যানি মুখতার মায়ামির জাল বল জড়ান। তবে মুখতারের এই গোল বাতিল হয় অফসাইডের কারণে। ৮৩ মিনিটে মেসি আবারও ফ্রি কিক পান। কিন্তু ডিফেন্ডারদের দেয়াল ভেদ করতে পারেননি আর্জেন্টাইন সুপার স্টার। ম্যাচের যোগ করা সময়ে প্রতিপক্ষের ছয় খেলোয়াড়কে কাটিয়ে বক্সের ডানপ্রান্ত দিয়ে শট নেন মেসি। আবারও বাঁধার নাম সেই গোলকিপার এলিয়ট। ম্যাচের শেষ বাঁশি বাজলে দুই দলের স্কোর লাইন ০-০ তে শেষ হয়। যার জন্য মায়ামিকে ন্যাশভিলের সঙ্গে পয়েন্ট ভাগা-ভাগি করে মাঠ ছাড়তে হয়।

এই ড্রয়ে ২৪ ম্যাচে ২২ পয়েন্ট মায়ামির। শেষ প্লে অফ স্পটে থাকা শিকাগো ফায়ারের চেয়ে ১০ পয়েন্ট পেছনে তারা। রবিবার (৩ সেপ্টেম্বর) ডিফেন্ডিং এমএলএস কাপ চ্যাম্পিয়ন এলএএফসির মুখোমুখি হবে মায়ামি।

Link copied!