• ঢাকা
  • রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০, ১৫ শা’বান ১৪৪৫

বিশ্বকাপ হারের পর রেকর্ড গড়ে অস্ট্রেলিয়াকে হারল ভারত


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: নভেম্বর ২৪, ২০২৩, ১২:৫১ পিএম
বিশ্বকাপ হারের পর রেকর্ড গড়ে অস্ট্রেলিয়াকে হারল ভারত
ছবি: সংগৃহীত

২০২৩ বিশ্বকাপ ফাইনালের হার এখনো প্রতিটি ভারতীয়র মনে দাগ কেটে আছে। ১৯ নভেম্বর আহমেদাবাদে স্বাগতিক ভারতকে ৬ উইকেটে হারিয়ে বিশ্বকাপ ঘরে তোলে অস্ট্রেলিয়া। ম্যান ইন ব্লুরা শিরোপা বঞ্চিত হওয়ার ৪ দিন পরেই অজিদের বিপক্ষে ৫ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচে মাঠে নামে। বিশ্বকাপ হারের প্রতিশোধ নিতে বদ্ধ পরিকর ছিল টিম ইন্ডিয়া। তাইতো ভারতের ইতিহাসে টি-টোয়েন্টিতে সর্বোচ্চ ২০৯ রান তাড়া করে ২ উইকেটের জয় তুলে নেয় সূর্য কুমার যাদবের দল। এই জয়ে সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেল ভারত।

বিশাখাপাত্নামে টস হেরে আগে ব্যাট করতে নেমে জস ইংলিসের সেঞ্চুরি ও স্টিভেন স্মিথের হাফ সেঞ্চুরির কল্যাণে নির্ধারিত ওভারে শেষে ৩ উইকেট হারিয়ে ২০৮ রানের সংগ্রহ পায় অস্ট্রেলিয়া। জবাব দিতে নেমে লড়েন ঈশান কিশান ও অধিনায়ক সূর্যকুমার যাদব। শেষদিকে রিংকু সিংয়ের ফিনিশিংয়ে ২ উইকেটের জয় পায় স্বাগতিকরা।

সফরকারীদের হয়ে ব্যাটিংয়ে নেমে দারুণ শুরু করেন ম্যাথিউ শর্ট ও স্মিথ। তবে উইকেটে বেশিক্ষণ থিতু হতে পারেননি ওপেনার শর্ট। ১১ বলে ৩ চারে ১৩ রান করেন এই অজি ওপেনার। এরপর দ্বিতীয় উইকেটে অস্ট্রেলিয়ার হয়ে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১৩০ রানের জুটি গড়েন স্টিভেন স্মিথ ও ইংলিস। ৬৬ বলে গড়া তাদের এই জুটি ভাঙে স্মিথ বিদায় নিলে। রান আউট হয়ে ফেরার আগে ৪১ বলে ৮ চারে ৫২ রানের ইনিংস খেলেন তিনি। এদিকে ঝড়ো ব্যাট করে ৪৭ বলে শতক স্পর্শ করেন ইংলিস। তবে তবে অপরাজিত থেকে মাঠ ছাড়তে পারেননি। ইনিংসের শেষ দিকে ৫০ বলে ১১ চার ও ৮ ছক্কা ১১০ রানের দুর্দান্ত একটি ইনিংস খেলে গেছেন। শেষে দিকে মার্কোস স্টয়নিস ৭ রান ও টিম ডেভিডের ১৯ রানে অপরাজিত থেকে ভারতকে ২০৯ রানে লক্ষ্যে ছুড়ে দেয়।

জয়ের জন্য ২০৯ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই রুতুরাজ গায়কোয়াড় রানের খাতা খুলার আগেই বিদায় নেন। কোনো বল না খেলে রানআউট হন তিনি। আরাক ওপেনার যশস্বী জয়সওয়ালও ইনিংস বড় করতে পারেননি। জয়সওয়াল ৮ বলে ২ চার ও ২ ছক্কায় ২১ রান করে আউট হলেন ম্যাথু শর্টের বলে। ২২ রানে ২ উইকেট হারানোর পর ভারতের ইনিংসের হাল ধরেন ঈশান কিশান এবং সূর্যকুমার। বিশ্বকাপে রান না পাওয়া সূর্যকুমারকে আবার চেনা মেজাজে দেখা গেল ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ত ফর্মেটে। ভারতের তৃতীয় উইকেটের জুটিতে আসে ১১২ রান। ইশান খেললেন ৩৯ বলে ৫৮ রানের ইনিংস।

ইশানের বিদায়ের পর রান পাননি তিলক বর্মা। এই ব্যাটার ১০ বলে ১২ রান করে ফিরে যান। ছয় নম্বরে নেমে আগ্রাসী ব্যাটিং করলেন রিঙ্কু সিংহ। উইকেটের অন্য প্রান্তে অবিচল ছিলেন সূর্যকুমারও। অধিনায়কের ব্যাট থেকে আসে ৪২ বলে ৯ চার ও ৪ ছক্কায় ৮০ রান। শেষ দিকে সহজ পরিস্থিতিতে উইকেট ছুড়ে দিলেন তিনি। সূর্যকুমারের বিদায়ের পর শেষ ওভারে ম্যাচে নাটকীয়তায় জমে ওঠে। শেষ ওভারে ম্যান ইন ব্লুদের জয়ের জন্য দরকার ৭ রান। স্ট্রাইকে থাকা রিংকু সিং প্রথম বলেই চার মেরে সমীকরণ সহজ করে আনেন। দ্বিতীয় বলে নেন ১ রান। পরের তিন বলেই ভারত হারায় তিন উইকেট। শেষ দুইটি রান আউট হলেও এক রান পায় তারা। শেষ বলে এসে রিংকু করেন বাজিমাত। ছক্কা হাঁকিয়ে জেতান দলকে। এই ব্যাটার ১৪ বলে ৫ চারে ২২ রান করেন।

Link copied!