• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল, ২০২৪, ৪ বৈশাখ ১৪৩১, ৮ শাওয়াল ১৪৪৫

পেরুর বিপক্ষে ব্রাজিলের ১-০ গোলের জয়


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ১৩, ২০২৩, ০২:৩৯ পিএম
পেরুর বিপক্ষে ব্রাজিলের ১-০ গোলের জয়
ছবি: সংগৃহীত

বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের ম্যাচে পেরুর সঙ্গে ১৩ দেখায় কখনও হারেনি ব্রাজিল। পেরুর বিপক্ষে আনবিটেন থেকে মাঠে নামেন নেইমার, মারকুইনহোসরা। কিন্তু বুধবার (১৩ সেপ্টেম্বর) নিশ্চিত ড্র হওয়া ম্যাচে শেষ মুহূর্তে নেইমারের দারুণ ক্রসে হেড দিয়ে গোল করেন ডিফেন্ডার মার্কিনিয়োস। তার গোলেই পেরুর বিপক্ষে ১-০ গোলের জয় পায় সেলেসাওরা সঙ্গে আনবিটেন থাকার রেকর্ডটাও এগিয়ে নিয়ে যায় তারা।

এদিন অফসাইডে ব্রাজিলের দুই গোল বাতিল হলেও নেইমারের কর্নার কিক থেকে ম্যাচের একমাত্র গোল করেন পিএসজি ফুটবলার মার্কিনিয়োস। ম্যাচের শেষ সময়ে মার্কিনিয়োসের গোলে জয় পায় সেলেসাওরা। এই জয়ে বিশ্বকাপ বাছাইয়ে এ নিয়ে টানা ৩৬ ম্যাচে অপরাজিত রইল ব্রাজিল।

বুধবার লিমার ন্যাশনাল স্টেডিয়ামে স্বাগতিক পেরুর বিপক্ষে মাঠে নামেন নেইমার বাহিনী। এদিন বল দখলে বেশ এগিয়ে থাকলেও ম্যাচজুড়ে গোল পেতে ভুগতে হয়েছে ব্রাজিলকে। ভিএআরে বাতিল হওয়া গোলটিসহ মোট দুবার পেরুর জালে বল পাঠিয়েছিল পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা। অফসাইডের বাঁধায় দুটি গোলই বাতিল হয়েছে তাদের। ম্যাচের ১৭ মিনিটে প্রথম রাফিনিয়া বল জালে জড়ান। এরপর আগের ম্যাচে দারুণ পারফরম্যান্স করা ব্রুনো গিমারেসের ক্রসে হেডে লক্ষ্যভেদ করেন রিচার্লিসন। সেই গোলটি ভিএআরে পাঁচ মিনিটের পরীক্ষার পর বাতিল হয়ে যায়, যা নিয়ে ম্যাচে বিতর্ক সৃষ্টি হয়েছে।

তবে এরপরও ৪৪ মিনিটে এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ ছিল ব্রাজিলের সামনে। সতীর্থদের সঙ্গে দারুণ বোঝাপড়ার মাধ্যমে বক্সে ঢুকে কোনাকুনি জোরালো শট নেন নেইমার। আগের ম্যাচেই তিনি ব্রাজিলের কিংবদন্তি পেলের দেশের জার্সিতে সর্বোচ্চ গোলের রেকর্ড ভেঙে ফেলেন। তবে তার শটটি পেরু গোলরক্ষক পেদ্রো গ্যালাসের বাধা টপকাতে পারেনি। তাই প্রথমার্ধে দুই দলকে গোল শূন্য থেকে বিরতিতে যেতে হয়।

দ্বিতীয়ার্ধেও ম্যাচের ভাগ্য পরিবর্তন না হওয়াতে কোচ ফার্নান্দো দিনিজ রিচার্লিসনের জায়গায় গ্যাব্রিয়েল জেসুসকে মাঠে নামান। এরপর ৭২ মিনিটে রাফিনিয়ার নেওয়া ২০ গজ দূর থেকে শট গ্যালাস ফিরিয়ে দিয়ে হতাশ করেন ব্রাজিলকে। বিরতির পর ম্যাচের ৮৩ মিনিট পর্যন্তও পেরুর বক্সের ভেতর থেকে মাত্র একটি শট নিতে পেরেছে নেইমার, জেসুসরা। মূলত পেরু কোচ হুয়ান রেইমোসো ম্যাচে নেইমার যাতে কম সুযোগ পায়, সেজন্য দারুণ কৌশল দেখিয়েছেন এদিন।

তবে ম্যাচের একেবারে শেষ মিনিটে কর্নার কিক পায় ব্রাজিল। সেখানে কর্নার থেকে ইনসুইংয়ে দারুণভাবে ডি-বক্সের ভেতরে বল ক্রস করেন নেইমার। যাতে মাথা ছুঁয়ে দিয়ে মার্কিনিয়োস বল জালে পাঠান। এতেই পেরুর মাঠ থেকে পূর্ণ তিন পয়েন্টে নিয়ে মাঠ ছাড়তে পারেন নেইমাররা।

এর আগের ম্যাচে নেইমার ও রদ্রিগোর জোড়া গোলে সেলেসাওরা ৫-১ গোলের বড় জয় দিয়ে বিশ্বকাপ বাছাই পর্ব শুরু করে। বুধবারের জয়ে ৬ পয়েন্ট নিয়ে বাছাইয়ের টেবিলে শীর্ষে উঠে গেল ব্রাজিল। সমান ম্যাচে সমান পয়েন্ট নিয়ে আর্জেন্টিনার অবস্থান দ্বিতীয়।

Link copied!