• ঢাকা
  • রবিবার, ২১ জুলাই, ২০২৪, ৫ শ্রাবণ ১৪৩১, ১৪ মুহররম ১৪৪৫

যে কারণে বিশ্বকাপের পর ব্যস্ততা বাড়বে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: জুন ২৪, ২০২৪, ০৫:৫৫ পিএম
যে কারণে বিশ্বকাপের পর ব্যস্ততা  বাড়বে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের
বাংলাদেশের দুই ক্রিকেট তারকা সাকিব আল হাসান ও মুশফিকুর রহিম। ছবি: সংগৃহীত

চলতি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সুপার এইটে উঠলেও কার্যত ছিটকে গেছে বাংলাদেশ। এই পর্বে তারা ভারত ও অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে হেরেছে। শেষ ম্যাচে আফগানিস্তানকে হারালেও জটিল অঙ্ক মোকাবিলা করতে হবে।

বিশ্বকাপ শেষ হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ব্যস্ত সূচি রয়েছে বাংলাদেশের। সাদা বলের ফরম্যাট থেকে যেতে হবে লাল বলের ফোকাসে। যেখানে ২০২৩-২৫ সালের সূচিতে একাধিক টেস্ট ম্যাচ খেলবে সাকিব- মুশফিকরা।‌ শক্তিধর দেশগুলোর বিরুদ্ধে পরপর বেশ কয়েকটি টেস্ট খেলতে হবে বাংলাদেশকে। যার মধ্যে রয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা, ওয়েস্ট ইন্ডিজ, পাকিস্তান ও ভারত। টেস্ট ম্যাচগুলোর প্রস্তুতিতে কয়েকটি ওয়ার্ম আপ ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ।

রোববার এই বিষয়টির নিশ্চিত করে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) একটি বিবৃতি দিয়েছে। টাইগারদের হয়ে যারা টেস্ট খেলেন, তাদের চার দিনের বেশ কয়েকটি ওয়ার্ম আপ ম্যাচ খেলে প্রস্তুতি সারতে হবে। চট্টগ্রামে জুলাইয়ে দু’টি ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ। এর পর ১৯ জুলাই থেকে ২৯ জুলাইয়ের মধ্যে ডারউইনে পাকিস্তান ‘এ’ দলের বিরুদ্ধে দু’টি চার দিনের ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ।

আগস্টে বাংলাদেশ যাবে পাকিস্তান সফরে। সেখানে বাংলাদেশ ‘এ’ দল চার দিনের প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে। এরপর আগস্ট অথবা সেপ্টেম্বর মাসে নিউজিল্যান্ড ‘এ’ দলের বাংলাদেশ সফরে আসার কথা। মে মাস থেকে বাংলাদেশ ক্রিকেটাররা চট্টগ্রাম এবং সিলেটে প্রস্তুতি নিচ্ছে।

আগস্ট মাসের ১৭ তারিখ বাংলাদেশ সিনিয়র দল যাবে পাকিস্তান সফরে। সেখানে তারা দুটি টেস্ট খেলবে। এরপর ভারতের বিরুদ্ধে চেন্নাই এবং কানপুরে দুটি টেস্ট খেলবে বাংলাদেশ। তারপর তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলবে তারা। ক্রিকইনফোর রিপোর্ট অনুযায়ী বাংলাদেশ, ভারতে তিন মাসে দুবার সফরে আসতে পারে। কারণ জুলাই মাসে আফগানিস্তান দল ভারতের মাটিতে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে সাদা বলের ফরম্যাটে সিরিজ আয়োজন করতে চায়। তিনটি করে টি-টোয়েন্টি এবং ওয়ানডে ম্যাচ খেলার কথা সিরিজে।

 

Link copied!