• ঢাকা
  • শুক্রবার, ০১ মার্চ, ২০২৪, ১৬ ফাল্গুন ১৪৩০, ১৯ শা’বান ১৪৪৫

২১ আগস্ট হামলার লক্ষ্যই ছিল আমাদের হত্যা করা : প্রধানমন্ত্রী


সংবাদ প্রকাশ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: আগস্ট ২০, ২০২৩, ১১:৪৮ এএম
২১ আগস্ট হামলার লক্ষ্যই ছিল আমাদের হত্যা করা : প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, “২১ আগস্টে লক্ষ্যই ছিল আমি এবং আমরা যারা সেই ট্রাকের মঞ্চে ছিলাম তাদের হত্যা করা।”

রোববার (২০ আগস্ট) সকালে বিটিআরসি ও তথ্য কমিশনের নবনির্মিত ভবন উদ্বোধন অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী নিজের বাসভবন গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি সংযুক্ত হয়ে ভবন দুটি উদ্বোধন করেন। এছাড়া বিএফডিসি কমপ্লেক্স নির্মাণকাজের ভিত্তিপ্রস্তরও স্থাপন করেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, “আগামীকাল ২১ আগস্ট। এই ২১ আগস্ট আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে আমরা একটি র‍্যালি করছিলাম। কারণ তার কিছুদিন আগে সিলেটে ব্রিটিশ হাইকমিশনারের ওপর গ্রেনেড হামলাসহ বাংলাদেশের বিভিন্ন জায়গায় বোমা হামলা-সন্ত্রাস চলছিল। কিন্তু সেই র‍্যালিতে প্রকাশ্য দিবালোকে গ্রেনেড হামলা করা হয়। সেই গ্রেনেডের আঘাতে আমাদের নারীনেত্রী আইভি রহমানসহ ২২ জন নেতাকর্মী এবং দুজন অজ্ঞাত নিহত হয়।”

আওয়ামী লীগ সভাপতি বলেন, “আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা মানব ঢাল রচনা করেই আমাকে রক্ষা করেছিলেন। এটা বোধহয় আমাদের ভাগ্য যে, ওই ট্রাকে কোনো গ্রেনেড পড়েনি, ট্রাকের সঙ্গে লেগে সেটা মাটিতে পড়ে যায়। আমাকে যে মানব ঢাল হয়ে রক্ষা করেছিলেন মোহাম্মদ হানিফ তার সমস্ত মাথায় স্প্লিন্টার পড়ে। ওইদিন আমাদের অনেকে আহত হয় এবং মারা যায়।”

প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, “জিয়া, এরশাদ ও খালেদা জিয়া ক্ষমতায় থাকাকালে কেউ গণমানুষের কথা ভাবেননি। একমাত্র আওয়ামী লীগই গণমানুষের কথা ভেবে দেশের উন্নয়ন করছে। ডিজিটাল বাংলাদেশের সূচনা আওয়ামী লীগের হাত ধরেই হয়েছে। আগামী ৪১ সালে দেশে স্মার্ট বাংলাদেশে রূপ নেবে।”

শেখ হাসিনা বলেন, “তথ্য চাওয়া ও পাওয়া জনগণের অধিকার। আওয়ামী লীগের ভেতর গোপনীয়তা বলে কিছু নেই। জনগণকে সম্পৃক্ত করেই সরকার দেশের উন্নয়ন করে যাচ্ছে।”

এ সময় প্রধানমন্ত্রী বিএনপি সরকারের সমালোচনা করে বলেন, “বিএনপির আমলে দেশ তথ্যপ্রযুক্তিতে পিছিয়ে পড়ে। আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসে দেশকে তথ্যপ্রযুক্তিতে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে সরকার।”  

Link copied!