• ঢাকা
  • বুধবার, ২৬ জুন, ২০২৪, ১১ আষাঢ় ১৪৩১,

একগুচ্ছ ছড়া


সব্যসাচী পাহাড়ী
প্রকাশিত: জুলাই ১৪, ২০২১, ০১:৫৬ পিএম
একগুচ্ছ ছড়া

হাসি

হাসলে নাকি মনটা থাকে  
মেঘের মতো ফুরফুরে
মেজাজখানা যায় না চটে 
থাকে তাজা, কুড়কুড়ে।

হাসলে নাকি ক্লান্তি পালায় 
ইচ্ছে থাকে কচকচে,
যায় পালিয়ে চাপ-অবসাদ
শরীরটা হয় মচমচে।  

আসুন সবাই হাসি—
গোমড়োমুখো, কুমড়োমুখো 
বসে পাশাপাশি। 


ভুঁড়ি

এই যে আমার ভুঁড়ি—
এই ভুঁড়িটা সত্যি আজব—
নেই কোনো ওর জুড়ি!

ভুঁড়ি রোজই আপন মনে
বাড়ছে শুধু বাড়ছে, 
সবই যেন ভুঁড়ির কাছে 
হারছে শুধু হারছে। 
দিনে দিনে চলছে বেড়ে—
ভুঁড়ি।
ধুত্তুরি ধুত্তুরি।

 

এই তুমিটাই

সবার কাছেই হয়তো তুমি নও যে প্রিয় পাত্র,
কারোর কাছে মূল্য তোমার নিতান্তই নামমাত্র।
হয়তো তুমি কারোর কাছে অহংকারী, মন্দ,  
তোমার ছায়া দেখলে ওদের যায় কেটে সব ছন্দ। 
ওসব জেনে মনটা তোমার হয় না যেন ভার—
কারোর কাছে তুমিই জেনো টুকরো কলিজার। 
এই তুমিটাই কারোর কাছে মোহন বাঁশির সুর, 
সুনীল আকাশ, রাতের তারা, সোনালি রোদ্দুর। 

তাইতো বলি ওসব নিয়ে ভাবছো তুমি কেন?
তোমার রাজ্যে আর কেউ নয়, তুমিই রাজা জেনো।

Link copied!