• ঢাকা
  • বুধবার, ১২ জুন, ২০২৪, ২৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ৬ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

সিরাম কেনার আগে যা জানা জরুরি


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: মে ১৮, ২০২৪, ০৫:৫১ পিএম
সিরাম কেনার আগে যা জানা জরুরি
সিরাম কেনার আগে যা জানা জরুরি। ছবিঃ সংগৃহীত

সিরাম একটি টপিকাল স্কিনকেয়ার প্রোডাক্ট। অর্থাৎ এটি ত্বকের ওপরে ব্যবহার করতে হয়। আর তাতেই সঠিক উপকার পাওয়া যায়।  মুখের সিরাম ত্বককে হালকা অনুভব করায়। সিরাম ব্যবহারের আগে অবশ্যই ত্বক ভালোভাবে ধুয়ে এবং মুছে নেবেন। এরপর ত্বক অনুযায়ী ভালো একটি টোনার ব্যবহার করুন। টোনার দিয়ে মুখ ভালোভাবে পরিষ্কার করে সিরাম লাগিয়ে নিন। কিন্তু সিরাম ব্যবহারের আগে অবশ্যই জেনে নিতে হবে, কোন সিরাম কোন ধরনের ত্বকের উপযোগী এবং কোন সিরামের কী কাজ। সঠিক সিরামও ভুল প্রয়োগবিধির কারণে ত্বকের ক্ষতির কারণ হতে পারে।

সাধারণ ত্বকের জন্য
বেশি তৈলাক্ত নয় আবার বিশেষ শুষ্কও নয়, এমন ত্বকে সারা বছরই নরম ও মসৃণ ভাব বজায় থাকে। যে সিরামগুলি সব ধরনের ত্বকের জন্য প্রযোজ্য, সেগুলি নির্দ্বিধায় ব্যবহার করা যাবে এমন ক্ষেত্রে। সাধারণ ত্বকের ক্ষেত্রে ভিটামিন সি আর রেটিনল সমৃদ্ধ সিরাম বেছে নেওয়া প্রয়োজন।

তৈলাক্ত ত্বকের জন্য
যাদের ত্বক তৈলাক্ত ধরনের তারা বেছে নিতে পারেন এক্সফোলিয়েটিং সিরাম। এই সিরাম ত্বকের ছিদ্রে জমে থাকা ময়লা পরিষ্কার করতে সাহায্য করে ত্বক উজ্জ্বল করে তোলে। তা ছাড়া এই সিরাম ব্যবহারের পর ত্বকে রূপচর্চার অন্যান্য উপকরণ ভালোভাবে কাজ করতে পারে। এই সিরামের উপাদান হতে পারে গ্লাইকোলিক অ্যাসিড, সাইট্রিক অ্যাসিড, ম্যান্ডেলিক অ্যাসিড, ম্যালিক অ্যাসিড, ল্যাকটিক অ্যাসিড, স্যালিসিলিক অ্যাসিড প্রভৃতি।

শুষ্ক ত্বকের জন্য
পর্যাপ্ত আর্দ্রতার অভাবেই মূলত ত্বক শুষ্ক ও রুক্ষ হয়ে প়ড়ে। এই ধরনের ত্বকের জন্য হায়ালুরোনিক অ্যাসিড এবং গ্লিসারিন সম্পন্ন সিরাম অত্যন্ত কার্যকরী।। এগুলো ত্বককে যেমন আর্দ্রতা দেয়, তেমনি আর্দ্রতা ধরে রাখতেও সাহায্য করে। হায়ালুরোনিক অ্যাসিড ত্বকে বলিরেখা পড়তে দেয় না।

ব্রণ-প্রবণ ত্বকের জন্য
ব্রণ-প্রবণ ত্বকের জন্য স্যালিস্যালিক অ্যাসিড সমৃদ্ধ সিরাম ব্যবহার করা উচিত। কারণ এ ধরণের ত্বকের একটি বড় সমস্যা হল ব্রণের কারণে তৈরি হওয়া উন্মুক্ত রোম-ছিদ্র। ত্বক মসৃণ রাখতে এই রোম-ছিদ্রগুলি বন্ধ করা জরুরি। আর এক্ষেত্রে  স্যালিস্যালিক অ্যাসিড সমৃদ্ধ সিরাম বেশ কার্যকরী।

ত্বকে দাগছোপ ও মলিন ভাব থাকলে
ত্বকে দাগছোপ বা কালচে ভাব দেখা দিলে কিংবা ত্বক মলিন হয়ে পড়লে ভিটামিন সি কিংবা নায়াসিনামাইড (ভিটামিন বি৩)–সমৃদ্ধ সিরাম ব্যবহার করতে পারেন। ত্বকের বিভিন্ন অংশের রঙের অসামঞ্জস্য দেখা দিলে বেছে নিতে পারেন নায়াসিনামাইড–সমৃদ্ধ সিরাম। এটিও ত্বকের বিবর্ণ ভাব দূর করতে সাহায্য করে।

Link copied!