• ঢাকা
  • সোমবার, ১৫ জুলাই, ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১, ৮ মুহররম ১৪৪৫

ঈদের ছুটিতে ফ্রিজ নষ্ট হলে উপায় কী?


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: জুন ১৪, ২০২৪, ০৮:৪২ পিএম
ঈদের ছুটিতে ফ্রিজ নষ্ট হলে উপায় কী?
ছবি: সংগৃহীত

কোরবানির ঈদে প্রয়োজনীয় অনুসঙ্গের মধ্যে অন্যতম হচ্ছে ফ্রিজ। কোরবানির পশুর মাংস সংরক্ষণের জন্য ফ্রিজ থাকা প্রয়োজন। কেউ ঈদ উপলক্ষে নতুন ফ্রিজ কিনেন। আবার কেউ পুরোনো ফ্রিজকেই পরিষ্কার করে নেন। এরমধ্যেই আবার বিপত্তিও হতে পারে। যেমন ঈদের ছুটিতে পুরোনো ফ্রিজে নষ্ট হয়ে যেতে পারে। রেফ্রিজারেটরের কম্প্রেসারে হতে পারে গন্ডগোল।

ঈদের ছুটিতে ফ্রিজ সারিয়ে তোলার মতো কোনো কারিগরও থাকে না। নষ্ট ফ্রিজ নিয়ে বিপাকে পড়তে হয়। মাংস সংরক্ষণের অন্য উপায় বের করতে হয়। তাই ঈদের ছুটিতে যদি হঠাত্ করে ফ্রিজ নষ্ট হয় তবে কী করতে হবে তা নিয়ে ধারণা রাখুন।

ফ্রিজ নষ্ট হলে ভেতরের সবকিছুই নষ্ট হতে পারে। রান্না করা খাবার, কাঁচা মাছ-মাংস ও সবজি নষ্ট হয়ে যেতে পারে। কিন্তু সঙ্গে সঙ্গেই ডিপ ফ্রিজের সব বের করা ঠিক হবে না। ডিপ ফ্রিজ অনেকক্ষণ ঠান্ডা থাকবে। প্রায় ৪৮ ঘণ্টা পর্যন্ত। তাই দরজা না খুললে ফ্রিজের বরফ দেরীতে গলবে। মাছ-মাংসও ঠিক থাকবে।

ফ্রিজ নষ্ট হলে মাংস সংরক্ষণের অন্য উপায় বের করুন। বেশি পরিমাণে মাংস ভুনা করে সংরক্ষণ করুন। কিংবা মাংসে সরিষার তেল মেখে আচারি মাংসের মতো সংরক্ষণ করা যেতে পারে। মাংসে হলুদ মেখে, রোদে শুকিয়েও সংরক্ষণ করা যাবে।

ফ্রিজ নষ্ট হলেই রান্না করা খাবার বের করে নিন। খাবার গরম করে রাখুন। পরবর্তী ৮ ঘণ্টা পর্যন্ত ভালো থাকবে। তাই গরম করা খাবার দ্রুত খেয়ে ফেলুন।

ফ্রিজের সবজিগুলোও বের করে নিন। সবজিতে থাকা পানি মুছে নিন। এরপর পুরোনো সংবাদপত্রে মুড়িয়ে পলিব্যাগে রেখে দিন।

ফ্রিজে থাকা হাঁস বা মুরগির ডিম পানিতে ডুবিয়ে রাখুন।

ফ্রিজে ভাত থাকলে তা গরম করে খেয়ে নিন। নয়তো পানি দিয়ে পান্তা বানিয়ে নিতে পারেন।
ফেলুন।

ফ্রিজে থাকা কাচ্চি, পোলাও কিংবা বিরিয়ানি অধিক তাপে গরম করে নিন। যত দ্রুত পারেন খেয়ে নিন।

ডিপ ফ্রিজে রাখা মাছ ও মাংস নির্ধারিত সময় পর বের করে নিন। ভালোভাবে ধুয়ে ফেলুন। এরপর হলুদ মেখে ডুবো তেলে কড়া করে ভেজে কিছুদিনের জন্য রাখতে পারেন। তবে ভাজা মাছ এয়ারটাইট বাক্সে সংরক্ষণ করুন। 
ফ্রিজের মাংস হলুদ, মরিচ, আদা ও রসুন দিয়ে জ্বাল দিয়ে রাখতে পারেন। আবার ভুনা করেও রাখা যায়।
ফ্রিজ নষ্ট হলে তা সারিয়ে তুলতে অনলাইন সেবাভিত্তিক প্রতিষ্ঠানগুলোর সঙ্গে যোগাযোগ রাখতে পারেন। অনেক প্রতিষ্ঠান ছুটির দিনেও সার্ভিস দিয়ে থাকে। ফ্রিজ ঠিক করার প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতিও সেখানেই পাওয়া যাবে।

Link copied!