• ঢাকা
  • শুক্রবার, ১৯ জুলাই, ২০২৪, ৩ শ্রাবণ ১৪৩১, ১২ মুহররম ১৪৪৫

শ্রীলঙ্কায় এবার বন্ধ হচ্ছে সড়কবাতি


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: মার্চ ৩১, ২০২২, ০৮:৩৫ পিএম
শ্রীলঙ্কায় এবার বন্ধ হচ্ছে সড়কবাতি
ছবি : সংগৃহীত

চরম অর্থনৈতিক সংকটে আছে শ্রীলঙ্কা। এই সংকটে বিদ্যুৎ সংরক্ষণ করতে এবার সড়কবাতি বন্ধ করতে যাচ্ছে দেশটি। এর আগে দেশজুড়ে দৈনিক ১৩ ঘণ্টার বেশি বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন থাকার কথা জানায় কর্তৃপক্ষ।

বৃহস্পতিবার (৩১ মার্চ) শ্রীলঙ্কার বিদ্যুৎমন্ত্রীর পবিত্র বানিয়ারাচ্চি বরাতে এ খবর জানিয়েছে ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

শ্রীলঙ্কার বিদ্যুৎমন্ত্রীর পবিত্র বানিয়ারাচ্চি বলেন, “বিদ্যুৎ সঞ্চয় করতে দেশজুড়ে কর্মকর্তাদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এছাড়া সড়কবাতি না জ্বালানোর জন্য নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।”

তিনি বলেন, “জলবিদ্যুৎ প্রকল্পের জলাধারে রেকর্ড মাত্রায় পানি কমে গেছে। এমন সময়ে পানির স্তর নেমেছে যখন গরম ও শুকনো মৌসুমে বিদ্যুতের চাহিদা সর্বোচ্চ।”

বিদ্যুৎমন্ত্রী বানিয়ারাচ্চি আরও বলেন, “ভারতের কাছ থেকে ক্রেডিট লাইনের আওতায় ডিজেলের একটি চালান পাওয়ার কথা রয়েছে। তা এসে পৌঁছালে আমরা কয়েক ঘণ্টা লোডশেডিং কমাতে পারব। কিন্তু বৃষ্টি শুরু না হলে, সম্ভবত মে মাসের কোনও সময় পর্যন্ত লোডশেডিং চলবে। এছাড়া আমাদের করার কিছু নেই।”

শ্রীলঙ্কার পরিসংখ্যান বিভাগ এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, আগের তুলনায় মার্চ মাসে খুচরা মূল্যস্ফীতি বেড়েছে ১৮.৭ শতাংশ। খাদ্য মূল্যস্ফীতি ৩০.২ শতাংশ ছুঁয়েছে।

এ বিষয়ে ফার্স্ট ক্যাপিটাল রিসার্চের গবেষণা প্রধান দিমান্থা ম্যাথিউ বলেন, “গত কয়েক দশকের মধ্যে শ্রীলঙ্কায় মূল্যস্ফীতির সবচেয়ে খারাপ অবস্থা বিরাজ করছে।”

ভয়াবহ অর্থনৈতিক সংকটে আছে দ্বীপ রাষ্ট্র শ্রীলঙ্কা। বিদেশি মুদ্রার অভাবে গুরুত্বপূর্ণ আমদানি পণ্যের ভয়াবহ সংকট তৈরি হয়েছে। জ্বালানির জন্য পাম্পে দীর্ঘ লাইনে অপেক্ষা করতে হচ্ছে।

এছাড়া প্রতিদিন প্রায় ১৩ ঘণ্টা লোডশেডিংয়ের কবলে পড়েছে শ্রীলঙ্কা। এর আগে দেশটিতে কাগজের অভাবে স্কুলের পরীক্ষা বন্ধ হয়ে যায়। একটি দৈনিক পত্রিকার ছাপা সংস্করণও বন্ধ হয়ে গেছে।

Link copied!