• ঢাকা
  • শুক্রবার, ১৯ জুলাই, ২০২৪, ৩ শ্রাবণ ১৪৩১, ১২ মুহররম ১৪৪৫

কলম্বিয়ায় ৩ মাসে ৫২ অধিকারকর্মী হত্যা


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: এপ্রিল ২৭, ২০২২, ০২:৩৪ পিএম
কলম্বিয়ায় ৩ মাসে ৫২ অধিকারকর্মী হত্যা

চলতি বছরের প্রথম তিন মাসে কলম্বিয়ায় ৫২ জন মানবাধিকারকর্মী ও সামাজিক নেতাকে হত্যা করা হয়েছে। গত বছর অধিকারকর্মীদের ওপর চালানো নির্মমতা চলতি বছর ছাড়িয়ে যেতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

দেশটির কর্তৃপক্ষের বরাতে এসব তথ্য জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি।

বিবিসি বলছে, ২০২১ সালজুড়ে কলম্বিয়ায় ১৪৫ জন সামাজিক নেতা ও মানবাধিকারকর্মীকে হত্যা করা হয়েছে।

কলম্বিয়ার মানবাধিকার কমিশনের তথ্যমতে, বেশির ভাগ অধিকারকর্মীরা অবৈধ অস্ত্র ও মাদক চোরাচালানকারীদের লক্ষ্য হয়ে থাকেন। তাদের অবৈধ কার্যকলাপ নিয়ে কথা বলা বা প্রতিবাদ করায় অধিকারকর্মীদের লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত করা হয়। মানবাধিকারকর্মীদের জন্য বিশ্বের সবচেয়ে ভয়াবহ স্থান কলম্বিয়া।

মানবাধিকার কমিশনার কার্লোস কামারগো বলেন, “গণতন্ত্রের ভিত্তিকে গুরুতরভাবে প্রভাবিত করছে সামাজিক নেতা ও মানবাধিকার রক্ষাকারীদের বিরুদ্ধে হত্যাকাণ্ড।”

কলম্বিয়ান স্থানীয় সংবাদপত্র এল টিয়েম্পো বলছে, চলতি বছর ২৮ জন ভূমি অধিকার ও সামাজিক অধিকারকর্মীকে হত্যা করা হয়েছে। এছাড়া ৯ জন আদিবাসী ও ৪ জন কৃষিবিষয়ক অধিকারকর্মীকে হত্যা করা হয়েছে। নিহত ৫২ জনের মধ্যে পুরুষ ৪৮ ও ৪ জন নারী।

এর মধ্যে সবচেয়ে জঘন্যভাবে হত্যা করা হয় ১৪ বছর বয়সী আদিবাসী অধিকারকর্মী ব্রেইনার ডেভিড কুকুনামকে। জানুয়ারি মাসে তাকে গুলি করে হত্যা করা হয়। তখন সে আদিবাসী ভূমি রক্ষার আন্দোলন করছিল।

বিশ্বের বৃহত্তম কোকেন উৎপাদনকারী দেশ কলম্বিয়া। দেশটিতে বেশ কয়েকটি বিদ্রোহী গোষ্ঠী সক্রিয় রয়েছে। এর মধ্যে অন্যতম কলম্বিয়ার বিপ্লবী সশস্ত্র বাহিনী (ফার্ক)। ২০১৬ সালে এই বৃহৎ গোষ্ঠীর সঙ্গে শান্তি চুক্তি দেশের সরকার। এর পর থেকে সহিংসতা কিছুটা কমতে শুরু করে।

কিন্তু ফের গত বছরের শেষ দিকে মার্কসবাদী গেরিলা গ্রুপ ন্যাশনাল লিবারেশন আর্মির (ইএলএন) সঙ্গে ফার্কের বিরোধ শুরু হয়। ডানপন্থী আধা সামরিক গোষ্ঠী ও অপরাধী গ্যাং উপসাগরীয় গোষ্ঠীর মধ্যেও বিরোধ দেখা দেয়। তখন থেকে কলম্বিয়ায় মাত্রাহীন সহিংসতা বাড়তে শুরু করেছে।

Link copied!