• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ১৮ আগস্ট, ২০২২, ৩ ভাদ্র ১৪২৯

ইবিতে হলের সিট নিয়ে শিক্ষার্থীকে মারধরের অভিযোগ


ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি
প্রকাশিত: আগস্ট ৫, ২০২২, ১০:০৫ এএম
ইবিতে হলের সিট নিয়ে শিক্ষার্থীকে মারধরের অভিযোগ

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে (ইবি) হলের সিট দখলকে কেন্দ্র করে আবাসিক শিক্ষার্থীকে মারধরের অভিযোগ উঠেছে শাখা ছাত্রলীগ কর্মীদের বিরুদ্ধে। বৃহস্পতিবার (৪ আগস্ট) সকাল সাড়ে ১১টায় শহীদ জিয়াউর রহমান হলের ২১১ নম্বর কক্ষে এ ঘটনা ঘটে।

ভুক্তভোগী সৈয়দ ফাহিম আবরার বিশ্ববিদ্যালয় রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের ২০১৭-১৮ সেশনের শিক্ষার্থী। তিনি শহীদ জিয়াউর রহমান হলের আবাসিক শিক্ষার্থী।

অভিযুক্ত তরিকুল ইসলাম তরুণ বাংলা বিভাগের ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী ও শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক নাসিম আহমেদ জয়ের অনুসারী।

ভুক্তভোগী ফাহিম আবরার জানান, সকালে হলে এসে নাসিম আহমেদ জয়ের অনুসারীরা এসে ডাকাডাকি করেন। কিছু সময় পর তরিকুল দরজা খুললে জয়ের অনুসারী বাংলা বিভাগের ২০১৬-১৭ সেশনের শিক্ষার্থী তরিকুল ইসলাম তরুণসহ আরও অনেকে কক্ষের মধ্যে ঢুকে পড়েন। তারা এ সময় আবরার ও তরিকুলকে কক্ষ ত্যাগ করতে বলেন। বৈধ সিট থাকায় কক্ষ ত্যাগ করতে অস্বীকৃতি জানালে বাগবিতণ্ডা হয়। ঘটনার একপর্যায়ে তরুণ রড দিয়ে আবরারকে আঘাত করেন ও কিল-ঘুষি মারেন। পরে অভিযুক্তরা ওই কক্ষ তালাবব্ধ করে রাখেন।

অভিযুক্ত তরিকুল ইসলাম তরুণ বলেন, “আবরার ছাত্রলীগের পদপ্রাপ্ত সদস্যদের নিয়ে বাজে কথা বলে বেড়ায়। আমরা চার-পাঁচজন তাকে এ কথা জিজ্ঞেস করলে সে একপর্যায়ে রড দিয়ে আমাদের মারতে উদ্যত হয়। এ সময় আমরা প্রতিহত করি।”

এ বিষয়ে নাসিম আহমেদ জয় বলেন, “বিষয়টি সম্পর্কে আমি বিস্তারিত শুনেছি। এটি একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা। দ্রুতই এটা সমাধান করে ভুক্তভোগীদের নিজস্ব কক্ষে ওঠার ব্যবস্থা করছি।”

প্রক্টর অধ্যাপক ড. জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, “ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী আমাদের কাছে অভিযোগ দিয়েছেন। আগামীকাল হল প্রভোস্ট ও প্রক্টরিয়াল বডির সঙ্গে বসে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।”