• ঢাকা
  • সোমবার, ১৫ এপ্রিল, ২০২৪, ২ বৈশাখ ১৪৩১,

চুরি হওয়া ট্রাকে মিলল অজ্ঞাতনামা মরদেহ


রাজশাহী প্রতিনিধি
প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ৯, ২০২৩, ০৯:২৪ পিএম
চুরি হওয়া ট্রাকে মিলল অজ্ঞাতনামা মরদেহ

রাজশাহীতে শিল্পপ্রতিষ্ঠান নাবিল গ্রুপের ‘চুরি হওয়া’ ট্রাক থেকে অজ্ঞাত এক ব্যক্তির মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

শনিবার (৯ সেপ্টেম্বর) বিকেলে রাজশাহীর হজরত শাহ্ মখদুম বিমানবন্দর এলাকায় সড়কের পাশে ট্রাকটি পরিত্যক্ত অবস্থায় পাওয়া যায়। পুলিশ ট্রাকের কেবিন থেকে এই মরদেহটি উদ্ধার করে। এ সময় ট্রাকে কোনো মালামাল ছিল না বলে জানিয়েছে পুলিশ।

এদিকে ট্রাকটি চুরি হয়েছে দাবি করে শুক্রবার (৮ সেপ্টেম্বর) রাতে নাটোর সদর থানায় নাবিল গ্রুপের পক্ষ থেকে একটি মামলা করা হয়। মামলায় ট্রাকের চালক ও সহযোগীকে আসামি করা হয়। ইতোমধ্যে চালককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

মামলার এজাহারে বলা হয়, রাজশাহী থেকে টিসিবির ১৪ লাখ টাকার পণ্য নিয়ে ট্রাকটি বৃহস্পতিবার (৭ সেপ্টেম্বর) রাতে কুমিল্লার উদ্দেশে রওনা হয়। এই ট্রাকের চালকের বাড়ি নাটোরে। কুমিল্লা যাওয়ার পথে বৃহস্পতিবার রাতে নাটোরের কান্দিভিটা এলাকায় ট্রাকটি রেখে চালক ও সহকারী নিজ নিজ বাড়ি চলে যান। সকালে এসে চালক আর ট্রাক পাননি বলে তিনি নাবিল গ্রুপকে জানান। ট্রাক চুরির সন্দেহে এই মামলায় চালক-সহকারীকে আসামি করা হয়।

এ বিষয়ে নাটোর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাছিম আহমেদ বলেন, “ট্রাকটি আমরা খোঁজাখুঁজি করছিলাম। এর মধ্যেই রাজশাহীর এয়ারপোর্ট থানার মাধ্যমে ট্রাকটি পরিত্যক্ত অবস্থায় থাকা এবং ভেতরে একটি মরদেহ থাকার ব্যাপারে খবর পাই। পরে সেখানে পুলিশ পাঠানো হয়েছে।”

তিনি আরও বলেন, “ট্রাক চুরির মামলায় আসামি করার পর চালককে ইতোমধ্যে গ্রেপ্তার করেছি। সহকারীকেও গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। এই ট্রাকে কীভাবে, কার মরদেহ এলো—সেটিও তদন্ত করা হচ্ছে।”

রাজশাহী নগর পুলিশের মুখপাত্র অতিরিক্ত উপপুলিশ কমিশনার জামিরুল ইসলাম বলেন, “ঘটনাস্থলে এয়ারপোর্ট থানা ও নাটোর সদর থানার পুলিশ কাজ করেছে। মরদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এই বিষয়ে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।”

এ বিষয়ে নাবিল গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আমিনুল ইসলাম স্বপন বলেন, “ট্রাক চুরি হয়েছিল, এ নিয়ে মামলাও করা হয়। তবে বিস্তারিত আমি বলতে পারব না।”

Link copied!