• ঢাকা
  • শুক্রবার, ১৪ জুন, ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ৭ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

বিমানে চড়ে আকাশ দেখার স্বপ্ন পূরণ হলো সেই জুনায়েদের


কক্সবাজার প্রতিনিধি
প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ২১, ২০২৩, ০৮:১৯ পিএম
বিমানে চড়ে আকাশ দেখার স্বপ্ন পূরণ হলো সেই জুনায়েদের

নিরাপত্তাকর্মীদের চোখ ফাঁকি দিয়ে বিমানের আসন পর্যন্ত যেতে পারলেও আকাশ থেকে পাখির চোখে পৃথিবী দেখার সুযোগ হয়নি জুনায়েদের। এবার স্বপ্নবাজ এই শিশুর স্বপ্ন পূরণ করেছে ইলেক্ট্রনিক জায়ান্ট ওয়ালটন। ওয়ালটনের পৃষ্ঠপোষকতায় ঢাকা থেকে বিমানে চড়ে পর্যটন শহর কক্সবাজার ঘুরে বেড়ানোর সুযোগ হয়েছে ছোট্ট এই শিশুর।

বৃহস্পতিবার (২১ সেপ্টেম্বর) দুপুরে একটি ফ্লাইটে ঢাকা আন্তর্জাতিক শাহজালাল বিমানবন্দর থেকে কক্সবাজার বিমানবন্দরে এসে পৌঁছায় জুনায়েদ মোল্লা। এরপর কক্সবাজারের একটি অভিজাত হোটেলে রাখা হয় তাকে।

জুনায়েদ গোপালগঞ্জের মুকসুদপুর উপজেলার বাঁশবাড়িয়া ইউনিয়নের পারইহাটি গ্রামের সবজি ব্যবসায়ী ইমরান মোল্লার ছেলে।

জুনায়েদ বলে, “নিরাপত্তা পেরিয়ে বিমানে উঠতে পারলেও বিমানে চড়ে পৃথিবী দেখার স্বপ্নটি থেকে গেল। অবশেষে আমার সেই স্বপ্নটি পূরণ করেছে ওয়ালটন। তারা ঢাকা থেকে কক্সবাজারে বিমানে করে নিয়ে এলেন। আমার খুবই ভালো লেগেছে। এজন্য আমি ওয়ালটনের প্রতি কৃতজ্ঞ।”

জুনায়েদের চাচা ইউসুফ মোল্লা বলেন, “আমার ভাতিজার কারণে আমিও জীবনে প্রথম বিমানে চড়তে পারলাম। ওয়ালটন আমাদের ঢাকা থেকে কক্সবাজার নিয়ে এলো। আমার ভাতিজা জুনায়েদের স্বপ্ন পূরণ হলো সেটা ছাড়াও যে নিরাপত্তাকর্মীদের চাকরি চলে গেল, তাদের চাকরি যেন তারা ফিরে পায়। সরকারের কাছে এই আবেদন জানাই।”

গত ১১ সেপ্টেম্বর রাত ৩টার দিকে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরের নিরাপত্তাবেষ্টনী পেরিয়ে কুয়েত এয়ারওয়েজের একটি ফ্লাইটে উঠে পড়েছিল শিশু জুনায়েদ। পাসপোর্ট কিংবা বোর্ডিং পাস ছাড়াই ১৪টি নিরাপত্তা স্তর ফাঁকি দিয়ে ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে কুয়েত এয়ারওয়েজের একটি ফ্লাইটে উঠে প্রায় ঘণ্টাখানেক বসে থাকে জুনায়েদ। কেবিন ক্রু তাকে সিটে বসতে দিলেও পরে তার কাছে ভিসা-পাসপোর্ট পাওয়া না গেলে অ্যাভিয়েশন সিকিউরিটি তাকে বিমান থেকে নামিয়ে পুলিশের জিম্মায় দেয়।

Link copied!