• ঢাকা
  • শনিবার, ২০ এপ্রিল, ২০২৪, ৬ বৈশাখ ১৪৩১, ১০ শাওয়াল ১৪৪৫

বরগুনায় সড়কে ধস, দুর্ভোগে স্থানীয়রা


বরগুনা প্রতিনিধি
প্রকাশিত: আগস্ট ২৬, ২০২৩, ০৩:৫১ পিএম
বরগুনায় সড়কে ধস, দুর্ভোগে স্থানীয়রা

অতি বর্ষণের কারণে বরগুনার বেতাগী উপজেলার চান্দখালী বাজারের সড়ক ধসে বেশ কিছু অংশ নদীতে চলে গেছে। এতে হুমকির মুখে পড়েছে চান্দখালী বহুমুখী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সীমানা প্রাচীর। একই সঙ্গে বাধ্য হয়ে ভাঙা সড়ক দিয়ে ঝুঁকি নিয়ে শিক্ষার্থীসহ পথচারী ও যানবাহন চলাচল করছে।

শনিবার (২৬ আগস্ট) দুপুরে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, চান্দখালী বাজারের দক্ষিণ মাথার বন্যানিয়ন্ত্রণ বাঁধটি অতি বর্ষণের কারণে ধসে নদীতে বিলীন হয়েছে। এতে ঝুঁকিতে রয়েছে চান্দখালী বহুমুখী মাধ্যমিক বিদ্যালয়।

স্থানীয়রা জানান, এক সপ্তাহের টানা বর্ষণের কারণে চান্দখালী বাজারের পশ্চিম পাশের সড়কটি ধসে খাকদোন নদীতে বিলীন হয়েছে। এতে বিপাকে পড়েছেন স্থানীয়রা। দ্রুত এই সড়কটি মেরামত করা প্রয়োজন।

চান্দখালীর বাসিন্দা শাহ জাহান মিয়া বলেন, চলতি মাসের প্রথম দিকে টানা বর্ষণের কারণে চান্দখালী বহুমুখী মাধ্যমিক বিদ্যালয়টির পাশের রাস্তাটি ধসে পড়ে। এখন ওই রাস্তা দিয়ে ঝুঁকি নিয়ে মানুষকে চলাচল করতে হয়।

আশরাফ আলী নামের এক দোকানি বলেন, এই ভাঙা সড়ক দিয়ে মালামাল নিয়ে কোনো পরিবহন আসতে পারে না। বড় কোনো দুর্ঘটনার আগেই এই সড়কটি মেরামত করা প্রয়োজন।

চান্দখালী বহুমুখী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণির শিক্ষার্থী মোরসালিন ও নাজিবুর রহমান বলে, “স্কুলে আসা যাওয়ার রাস্তাটি ভেঙে নদীতে পড়েছে। ভাঙা স্থান দিয়ে স্কুলে ঢুকতে ও বের হতে হয়। এখান দিয়ে হাটতে অনেক ভয় হয়, কখন কী দুর্ঘটনা ঘটে।”

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বাবলুর রহমান বলেন, “ভাঙনের কারণে আমাদের বিদ্যালয়ের সীমানা প্রাচীর ভাঙন ঝুঁকিতে রয়েছে। ইতোমধ্যে পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তারা সড়কের ভাঙা স্থান পরির্দশন করেছেন। শিগগিরই সড়কটি মেরামত করা হবে বলে তারা জানিয়েছেন।”  

এ ব্যাপারে বেতাগী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাকসুদুর রহমান বলেন, “সড়কটি নদীতে ধসে পড়ার বিষয়টি বরগুনা নির্বাহী প্রকৌশলীর সঙ্গে কথা হয়েছে। অল্প সময়ের মধ্যে কাজ শুরু হবে বলে আমাদের আশ্বাস দিয়েছেন।”

বরগুনা পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. রাকিব বলেন, ভাঙনকবলিত স্থানটি পরিদর্শন করেছি। বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। আশা করছি দ্রুত সময়ের মধ্যে ভাঙন মেরামত কাজ করা হবে।” 

Link copied!