• ঢাকা
  • সোমবার, ২৪ জুন, ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১, ১৭ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

দিনাজপুরে নীলসাগর এক্সপ্রেসের ৩ বগি লাইনচ্যুত


দিনাজপুর প্রতিনিধি
প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ৬, ২০২৩, ০৭:২১ পিএম
দিনাজপুরে নীলসাগর এক্সপ্রেসের ৩ বগি লাইনচ্যুত

দিনাজপুরের পার্বতীপুরে নীলসাগর এক্সপ্রেসের তিনটি বগি লাইনচ্যুত হয়েছে। বুধবার (৬ সেপ্টেম্বর) বিকেল ৩টার দিকে পার্বতীপুর রেলস্টেশনে প্রবেশমুখে এ ঘটনা ঘটে। এতে করে দুই নম্বর প্লাটফর্মে দেড় ঘণ্টা অন্য কোনো ট্রেন প্রবেশ করতে পারেনি।

ট্রেনের যাত্রী ও স্টেশন মাস্টার জানান, বিকেল ৩টা ২৫ মিনিটের দিকে ট্রেনের ঝ, ঞ এবং ট বগির চারটি চাকা লাইনচ্যুত হয়। পরে বিকেল ৫টার দিকে দুটি বগি কেটে রেখে নীলসাগর এক্সপ্রেসটি নীলফামারী চিলাহাটী অভিমুখে ছেড়ে যায়।

সালাম নামের এক যাত্রী বলেন, ট্রেনটি স্টেশনে প্রবেশের আগে বিকট শব্দ করে থেমে যায়। এ সময় যাত্রীরা চিৎকার শুরু করেন।

রহিমা নামের আরেক যাত্রী বলেন, “বড় ধরনের দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পেয়েছি। গতি বেশি থাকলে ক্ষয়ক্ষতি হতো।”

ট্রেনের পরিচালক মো. সিফাত বলেন, “হুইল মেজারমেন্টর সমস্যার বিষয়টি পাঁচদিন আগে বঙ্গবন্ধু সেতুর পূর্বপাশে চেকিংয়ের সময় আমাদের নজরে আসে। বিষয়টি তাৎক্ষণিক ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়। গত রাতে চিলাহাটী থেকে ঢাকা অভিমুখে যাওয়ার পথে সান্তাহার রেল স্টেশনে ক্যারেজ ফিটাররা দেখে ঠিক করে দেয়। বুধবার ট্রেনটি জয়পুরহাট থেকে বিরামপুর স্টেশনে পৌঁছানোর পর থেকে সমস্যা দেখা দিলে বিভাগীয় মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারকে আবারও জানানো হয়। তিনি ৬০কিলোমিটার গতিতে গাড়ি চালিয়ে যেতে বলেন। তারপরও এ ঘটনা ঘটল।”

লোকোমোটিভ মাস্টার (চালক) মেহেদী হাসান বলেন, “বিষয়টি গার্ড আমাকে আগেই অবহিত করেছিল। পার্বতীপুর-সান্তাহার স্টেশনের মধ্যে ট্রেনের গতি ৯০ কিলোমিটার হলেও আমি ৬০ কিলোমিটার গতিতে চালিয়ে আসি। পার্বতীপুর স্টেশনে প্রবেশকালে এ দুর্ঘটনা ঘটে।”

পার্বতীপুর স্টেশন মাস্টার রাকিব চৌধুরী বলেন, “দেড় ঘণ্টা বিলম্বে ৪টা ৫৫ মিনিটে তিনটি বগি কেটে রেখে ট্রেনটি চিলাহাটী অভিমুখে ছেড়ে যায়। কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।”

Link copied!