• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ২০ জুন, ২০২৪, ৬ আষাঢ় ১৪৩১, ১৩ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

৯৯৯-এ ফোন, নৌযান থেকে নৃত্য শিল্পী উদ্ধার


গাজীপুর প্রতিনিধি
প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ২, ২০২১, ০৯:৪৮ পিএম
৯৯৯-এ ফোন, নৌযান থেকে নৃত্য শিল্পী উদ্ধার

গাজীপুরের কাপাসিয়ায় শীতলক্ষ্যা নদীতে পিকনিকে গিয়ে দুইজন পেশাদার নৃত্য শিল্পী যৌন হয়রানির শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। তাদের মধ্যে একজন দ্রুত জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯ নম্বরে কল করলে ঘটনাস্থলে গিয়ে ভুক্তভোগী দুই তরুণীকে উদ্ধার করে পুলিশ।

এসময় উদ্ধার অভিযানে যাওয়া পুলিশ সদস্যদের ওপর হামলার অভিযোগে ১৪ জনকে আটক করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২ সেপ্টেম্বর) কাপাসিয়া থানার ওসি মো. আলম চাঁদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

মো. আলম চাঁদ বলেন, “বুধবার রাত ৮টার দিকে কাপাসিয়ার গোদারাঘাট সংলগ্ন শীতলক্ষ্যা নদীতে একটি চলন্ত নৌযান থেকে এক তরুণী ৯৯৯-এ ফোন করেন। ওই তরুণী বলেন, তিনি ও আরেকজন তরুণী কাপাসিয়া থেকে ৫০-৬০ জন যুবকের একটি পিকনিক দলের সঙ্গে যোগ দেন। তারা মূলত পেশাদার নৃত্যশিল্পী, পিকনিকে নৃত্য পরিবেশন করার জন্য অর্থের বিনিময়ে তারা ওই পিকনিক দলে যোগ দেন। পিকনিকে নৃত্য পরিবেশন করার পর রাত হলেও তাদের নামিয়ে দেওয়া হচ্ছিলো না।”

বরং পিকনিক দলের বেশকিছু ছেলে তাদের কুপ্রস্তাব দেয় ও ধর্ষণের পরিকল্পনা করে। এরপর ওই তরুণী কৌশলে লুকিয়ে ৯৯৯-এ ফোন করেন। তরুণী ৯৯৯-এর কাছে তাদের দ্রুত উদ্ধারের জন্য অনুরোধ জানান। খবর পেয়ে পুলিশ একটি দল দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছায়।

পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে বখাটে যুবকরা তাদের বড় নৌযান দিয়ে পুলিশ দলের ছোট নৌযানকে সজোরে আঘাত করলে সেটি ডুবে যায়। পাশের অন্য নৌযানের মাঝিরা আহত পুলিশ সদস্যদের উদ্ধার করে। এরপর আহত পুলিশ সদস্যরা ৯৯৯-এ ফোন করে পরিস্থিতি জানান। কাপাসিয়া থানার ওসিকে অবহিত করলে সেখানে একাধিক পুলিশের দল পাঠানো হয়।

পরে দুই তরুণীকে উদ্ধার এবং পিকনিক দলের ১৪ যুবককে আটক করা হয়।

বৃহস্পতিবার তাদের গাজীপুর আদালতে পাঠানো হয়। এ ঘটনায় আহত পুলিশ দলের নৌযানের মাঝি ও এসআই সাজ্জাদকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

কাপাসিয়া থানার ওসি মো. আলম চাঁদ আরও বলেন, “এ ঘটনায় এসআই সাজ্জাদুল হক বাদী হয়ে ৩০ জনের নাম উল্লেখসহ ৪৫ জনের বিরুদ্ধে থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।”

Link copied!