প্রেম সুড়ঙ্গে হাঁটলেই ইচ্ছে পূরণ!


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: নভেম্বর ৬, ২০২২, ০৫:৪৫ পিএম
প্রেম সুড়ঙ্গে হাঁটলেই ইচ্ছে পূরণ!

এই পথ যদি না শেষ হয় তবে কেমন হতো…. গানটির কথার মতোই উপলব্ধি হবে বিস্ময়কর এক স্থানে প্রবেশ করলে। এটি একটি সুড়ঙ্গ পথ। যে পথে প্রবেশ করলেই মন প্রশান্তিতে ভরে উঠে। সবুজের ঘেরা চারপাশ। প্রিয়জনের সঙ্গে হেঁটে বেড়াচ্ছেন। ভাবুন তো, কেমন হবে সময়টা! এমনই মনোরোম নৈস্বর্গীক স্থান থেকে ঘুরে আসতে পারেন আপনিও। স্থানটি হলো লাভ টানেল বা প্রেমের সুড়ঙ্গ।

বিশ্বব্যাপী বেশ আলোচিত ও জনপ্রিয় রোমান্টিক ডেস্টিনেশন হচ্ছে লাভ টানেল। এই টানেল ৩ কিলোমিটার দীর্ঘ। এটি  ইউক্রেনের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলের ক্লেভান ও ওরঝিভ গ্রামের মধ্যে অবস্থিত। সবুজে ঘেরা পুরো টানেলটি। লাভ টানেলের পাশে সুদূরপ্রসারী বনে আচ্ছাদিত পর্বতমালা ও দুর্দান্ত কৃষ্ণ সাগর উপকূলরেখা আছে। ঋতু বদলে প্রকৃতি যখন নিজের রং বদলায়,  তখন বদলে যায় টানেলের রংও ।

টানেলের মধ্য দিয়ে এখনও ট্রেন যাতায়াত করে। প্রতিদিন একবার করে যাতায়াত করে ট্রেনটি।  কাছের এক কাঠ কারখানায় কাঠের লগ পৌঁছে দেওয়াই ট্রেনটির কাজ। একটি নির্দিষ্ট সময় ট্রেনটির যাতায়াত হয়। তাই ওই সময় ছাড়া অন্য সময় পুরো টানেলটি পর্যটকদের জন্য উন্মুক্ত থাকে। নিজের মন মতো টানেলে ঘুরে বেড়াতে পারেন পর্যটকরা।

আগে প্রেমের এই সুড়ঙ্গ পথ ছিল রেলের একটি অংশ। এখন এটি বিশ্বপ্রেমীকদের অন্যতম প্রধান গন্তব্য়। পর্যটকদের অধিকাংশই থাকে প্রেমিক যুগল। বিভিন্ন দেশ থেকে দম্পতিরা সেখানে হানিমুনে যান। অনেকে সেখানে গিয়ে বিয়েও করেন। দম্পতির মনের ইচ্ছে পূরণ হয় এই টানেলে প্রবেশ করলেই। স্থানীয়রা বিশ্বাস করেন, প্রেম যদি পবিত্র ও আন্তরিক হয় তবে সেই দুইজন হাতে হাত ধরে এই সুড়ঙ্গ অতিক্রম করবে। সুড়ঙ্গটি অতিক্রম করলেই তাদের মনে ইচ্ছা পূরণ হবে।

Link copied!