• ঢাকা
  • সোমবার, ১৫ এপ্রিল, ২০২৪, ২ বৈশাখ ১৪৩১,

চুমু বিতর্কের সেই হারমোসোর নৈপুণ্যেই অলিম্পিকে স্পেন


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ২৪, ২০২৪, ০২:৫৫ পিএম
চুমু বিতর্কের সেই হারমোসোর নৈপুণ্যেই অলিম্পিকে স্পেন
স্পেনের প্রথম গোল করার পর হারমোসোর উচ্ছ্বাস। ছবি: সংগৃহীত

বিশ্বব্যাপী আলোচিত নারী ফুটবলার জেনি হারমোসোর নৈপুণ্য ও গোলে প্রথমবারের মতো অলিম্পিক ফুটবলের মূলপর্বে জায়গা করে নিয়েছে স্পেন দল। শুক্রবার রাতে উয়েফা ওমেন্স নেশন্স লিগের সেমিফাইনালে নেদারল্যান্ডসকে ৩-০ গোলে হারিয়ে দেয় স্পেন। সেই সঙ্গে প্যারিস অলিম্পিকের চূড়ান্ত পর্বও নিশ্চিত হয় তাদের।

নেশন্স লিগের ফাইনালে স্পেন মুখোমুখি হবে ফ্রান্সের। যারা অন্য সেমিফাইনালে জার্মানির মত শক্তিশালী দলকে ২-১ গোলে হারিয়ে দিয়েছে।

নারী ফুটবল বিশ্বকাপের ফাইনালে শিরোপা জেতার পর পুরস্কার বিতরণী মঞ্চে বিজয়ী দলের খেলোয়াড় হারমোসোর ঠোটে চুমু দিয়ে বেশ বিতর্কের জন্ম দিয়েছিলেন স্প্যানিশ ফুটবল ফেডারেশনের সভাপতি লুইস রুবিয়ালেস। যে ঘটনার জের ধরে সভাপতির পদ থেকে সরে দাঁড়াতেও হয়েছিলো তাকে।

সেই হারমোসোই এবার নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে গোলের সূচনা করেন। ৪১ মিনিটে প্রায় এককভাবেই তিনি নেদারল্যান্ডস ডিফেন্ডারদের কাটিয়ে গোল করেন। ৪৫ মিনিটে ব্যালন ডি’অর বিজয়ী নারী ফুটবলার আইতানা বোনমাতি করেন দ্বিতীয় গোল। ৭৭ মিনিটে লেফট ব্যাক ওনা ব্যাটল তৃতীয় গোল করে স্পেনের বিজয় নিশ্চিত করেন।

গত সেপ্টেম্বরে কোচ পরিবর্তন করে মন্তসি টমিকে দায়িত্ব দেয়ার পর বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন দল হিসেবে প্যারিস অলিম্পিকে অংশ নেয়ার চ্যালেঞ্জ জেতাটাই তাদের প্রথম বড় সাফল্য। এবার উয়েফা ওমেন্স লিগের শিরোপা জিততে পারলে সেটা হবে তাদের দ্বিতীয় বড় সাফল্য। 

মন্তসি টমি বলেন, ‘আমি এবং আমার স্টাফরা দায়িত্ব নিয়েছিলাম কঠিন এক সময়ে। যে সময়টাকে আসলে কেউই চায় না। কঠিন সময় পাড়ি দিয়ে এখন আমরা একধাপ এগিয়ে। আমরা খুবই গর্বিত যে, আমাদের কাজ সঠিকভাবে চালিয়ে নিতে পেরেছি। এই দলটি একটি অলিম্পিক গেমসে খেলার যোগ্যতা রাখে। আগের সব জেনারেশনই চেষ্টা করেছে অলিম্পিক ফুটবলে খেলার; তারা পারেনি। অবশেষে আমরা চেষ্টা করে সফল হলাম।’
 

Link copied!