• ঢাকা
  • রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০, ১৪ শা’বান ১৪৪৫

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নিলেন ইমাদ ওয়াসিম


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: নভেম্বর ২৫, ২০২৩, ১১:০৫ এএম
আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নিলেন ইমাদ ওয়াসিম
পাকিস্তান অলরাউন্ডার ইমাদ ওয়াসিম। ছবি: সংগৃহীত

বেশ কিছুদিন ধরেই অলরাউন্ডার ইমাদ ওয়াসিম আছেন পাকিস্তান জাতীয় ক্রিকেট দলের বাইরে। এবার ম্যান ইন গ্রিনের জার্সিতে না খেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ৩৪ বছর বয়সী এই ক্রিকেটার। পাকিস্তান জাতীয় দল থেকে অবসরের ঘোষণা দিয়েছেন এক সময়ের টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের নাম্বার ওয়ান বোলার। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম এক্সে পোস্টে করে নিজের অবসরের ঘোষণা দিয়েছেন ইমাদ ওয়াসিম।

অবসর নিয়ে এক্সে করা পোস্টে ইমাদ লিখেছেন, “গত কয়েক দিনে আমার আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ার নিয়ে অনেক ভেবেছি। এরপর এই সিদ্ধান্তে এসেছি যে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নেওয়ার এটিই সঠিক সময়। অনেক বছর ধরেই সহায়তা করার জন্য পিসিবিকে ধন্যবাদ দিতে চাই। পাকিস্তানের প্রতিনিধিত্ব করা সত্যিই সম্মানের।”

২০২৩ বিশ্বকাপে পাকিস্তান দলের ভরা ডুবির কারণে দেশটির ক্রিকেট বোর্ডে রদ বদল এসেছে। পাকিস্তান এই অলরাউন্ডার শুভকামনা জানিয়েছেন দেশটির ক্রিকেটে আগামীর দিনগুলোর জন্য। ইমাদ বলেন, “ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি মিলিয়ে আমার ১২১টি ম্যাচের প্রতিটিই ছিল স্বপ্ন সত্যি হওয়ার মতো। নতুন কোচ ও নেতৃত্ব আসছে, ফলে পাকিস্তান ক্রিকেটের সামনে রোমাঞ্চকর দিন। সংশ্লিষ্ট সবাইকে সাফল্যের জন্য শুভকামনা। দলের উন্নতি দেখতে মুখিয়ে আছি আমি।”

পাকিস্তানের জার্সিতে সবমিলিয়ে ১২১টি ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি খেলেছিলেন ইমাদ ওয়াসিম। বয়সভিত্তিক দলে ছিলেন অধিনায়কও। সবশেষ ম্যান ইন গ্রিনদের হয়ে তাকে দেখা গিয়েছে চলতি বছরের এপ্রিলে। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে দেশের মাটিতে টি-টোয়েন্টি সিরিজে দলে ছিলেন তিনি। তবে শেষ ওয়ানডে খেলেছেন আরও বেশ কয়েক বছর আগে। তিনি আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে বিদায় জানালেও ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেট মাতিয়ে বেড়াবেন বিশ্বব্যাপী।

টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের মাধ্যমে ২০১৫ সালে লাহোরে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে পাকিস্তানের হয়ে আন্তর্জাতিক অভিষেক হয় ইমাদ ওয়াসিমের। এরপর একই বছরে কলম্বোতে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে অভিষেক হয় এদিনের ক্রিকেটে। রঙিন পোশাকে আলো ছড়িয়ে দ্রুতই দলের অপরিহার্য সদস্য হয়ে ওঠেন। বাঁহাতি স্পিনের পাশাপাশি দলের জন্য লোয়ার অর্ডারের ব্যাটিংয়েও বেশ কার্যকর ছিলেন ইমাদ।

পাকিস্তান এই অলরাউন্ডার ৬৬ টি-টোয়েন্টিতে ৬৫ উইকেট নেওয়ার সঙ্গে করেছেন ৪৮৬ রান। এছাড়া ৫৫ ওয়ানডে ক্যারিয়ারে ৪৪ উইকেটের পাশাপাশি ব্যাট হাতে ৪২.৮৬ গড়ে ৯৮৬ রান করেছেন। ২০১৭ সালে পাকিস্তানের হয়ে জিতেছেন চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির শিরোপাটাও।

Link copied!