• ঢাকা
  • রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০, ১৪ শা’বান ১৪৪৫

তিন লাল কার্ডের ম্যাচে ড্র দিয়ে মৌসুম শুরু করল বার্সা


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: আগস্ট ১৪, ২০২৩, ০৩:০৩ পিএম
তিন লাল কার্ডের ম্যাচে ড্র দিয়ে মৌসুম শুরু করল বার্সা
ছবি: সংগৃহীত

গত মৌসুমের লা লিগা চ্যাম্পিয়ন বার্সেলোনা। তাদের মৌসুমটা শুরু হলো না চ্যাম্পিয়নদের মতো। লা লিগার নিজেদের প্রথম ম্যাচে গেতাফের সঙ্গে গোলশূন্য ড্র করেছে বার্সা। গোলের খেলা ফুটবল হলেও এই ম্যাচে হয়েছে কার্ডর খেলা। রেফারিকে পুরো সময় খেলোয়াড়ারদের কার্ড দেখানোতেই ব্যস্ত থাকতে হয়েছে। এই ম্যাচে তিনটি লাল কার্ড এবং ৮ টি হলুদ কার্ড দেখাতে হয়েছে রেফারিকে।

কলিসিয়াম আলফোনসো পেরেজ স্টেডিয়ামে বার্সেলোনার বনাম গেতাফে ম্যাচে কার্ডের বন্যা বয়ে গিয়েছে। যার শুরু টা হয় ম্যাচের ১৫ মিনিটের মাথায় গেতাফের স্তেফান মিত্রোভিচকে হলুদ কার্ড দিয়ে। এদিন বার্সা পাসিং ফুটবল খেলে বল নিজেদের দখলে রাখার চেষ্টা করে। এর মধ্যে জাভির শীর্ষরা ছোট ছোট সুযোগ তৈরি করতে থাকে। সেই সুযোগ কাজে লাগাতেও ব্যর্থ হয় তারা। বার্সা প্রথমার্ধ শেষ হবার ২ মিনিট আগে ১০ জনের দলে পরিণত হয়। রাফিনিয়া বলের দখল নিতে গিয়ে গেতাফের গাস্তন আলভারেজকে কনুই মেরে সরাসরি লাল কার্ড দেখেন। তিনি এর মিনিট পাঁচেক আগে অবশ্য রেফারির সঙ্গে তর্কে জড়িয়ে হলুদ কার্ড দেখেছিলেন।

এরপর গোলশূন্য থেকে দুই দলই বিরতিতে যায়। কাতালান ক্লাবটি ১০ জনের দল নিয়ে দ্বিতীয়ার্ধে মাঠে নামে। দশ জনের দলের বিপক্ষে তেমন সুযোগ তৈরি করতে পারে নি গেতাফে। উল্টা ৫৭ মিনিটে গেতাফের খেলোয়াড় হাইমে মাতা লাল কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন। তারাও ১০ জনের দলে পরিণত হয়ে যায়।

এরপর ম্যাচের ৭০ মিনিটে বার্সার মরোক্কান উইঙ্গার আবদেস সামাদ এজ্জালজোওলি ফাউলের শিকার হন। এরপরিই সহকারী রেফারির সঙ্গে বাগবিতন্ডায় জড়িয়ে পড়েন জাভি। রেফারি এসে লাল কার্ড দেখান বার্সেলোনা কোচকে। বাকি ম্যাচটা তাঁকে দেখতে হয় বক্সে বসে। পেদ্রি, লেভানদোভস্কিরা বক্সে বসে থাকা কোচকে মৌসুমের শুরু ম্যাচে গোল করে জয় এনে দিতে পারেননি। শেষ পর্যন্ত কোন গোল না হলে গোলশূন্য ড্র নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয় বার্সাকে।

এদিকে, ম্যাচ শেষে রেফারিং নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে বার্সেলোনার কোচ জাভি হার্নান্দেজ বলেছেন, ‘আমাদের বুঝতে হবে মানুষ কী দেখতে চায়। আমরা যা বিক্রি করে চলে থাকি সেই ফুটবল খেলা অনুপস্থিত ছিল ম্যাচটিতে। এটি লজ্জাজনক বিষয়। রেফারি কী করেছে সেটি সকলেই দেখেছে। ওদের বেশি সুযোগ দেয়া হয়েছে। ওরা সময় নষ্ট করেছে। কিন্তু রেফারি সেক্ষেত্রে চুপ ছিলেন। এ বিষয়ে আমাদের বসে থাকা উচিত না।’
তবে জাভির সঙ্গে একমত হতে পারেননি প্রতিপক্ষ গেতাফের কোচ হোসে বোরদালাস। তিনি বলেছেন, ‘আমার তো মনে হয়, তারা জিততে না পেরে এখন রেফারিকে দোষ দিচ্ছে। আমরাও তো কার্ড দেখেছি। ফলে এখানে রেফারিং নিয়ে কোনো কথা বলা উচিত না।’

Link copied!