• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন, ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ৭ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

সিরিজ জিততে টাইগারদের চাই ৯৪


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ৮, ২০২১, ০৫:৪০ পিএম
সিরিজ জিততে টাইগারদের চাই ৯৪

বাংলাদেশ ও নিউজিল্যান্ডের মধ্যকার চতুর্থ ম্যাচে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে সব কটি উইকেট হারিয়ে ৯৩ রান করেছে নিউজিল্যান্ড। কিউই ব্যাটসম্যান উয়িল ইয়াং করেন দলীয় সর্বোচ্চ ৪৬ রান। ৪ উইকেট করে নিয়েছেন নাসুম আহমেদ ও মোস্তাফিজ।

নিউজিল্যান্ডের হয়ে ব্যাটিংয়ে উদ্বোধন করতে নামেন তরুণ ব্যাটসম্যান রাচীন রবীন্দ্র ও বিধ্বংসী ফিল অ্যালেন। বাংলাদেশের হয়ে বোলিং আক্রমণে আসেন স্পিনার নাসুম আহমেদ। 

প্রথম ওভারে দুর্দান্ত বোলিং করেন নাসুম। তার বল ঠিকমতো খেলতেই পারছিলেন না রবীন্দ্র। প্রথম ওভারের পঞ্চম বলে শর্ট ফাইন লেগে মোহাম্মদ সাইফউদ্দীনের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরেন রবীন্দ্র। রানের খাতা খোলার আগেই বিদায় হন তিনি। কোনো রান না দিয়েই ওভার শেষ করেন নাসুম। 

দ্বিতীয় ওভারে বোলিং আক্রমণে আসেন সাকিব আল হাসান। সাকিবকে রিভার্স সুইপে পয়েন্টের ওপর দিয়ে ছয় মেরে বিধ্বংসী ব্যাটিংয়ের আভাস দেন অ্যালেন। সাকিবের এ ওভার থেকে আসে ১০ রান। 

ইনিংসের তৃতীয় ও ব্যক্তিগত দ্বিতীয় ওভারে অ্যালেনকেও তুলে নেন নাসুম। আবারও রিভার্স সুইপের লোভ সামলাতে না পেরে পয়েন্টে সাইফউদ্দীনের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরেন তিনি। ১টি করে চার ও ছয়ে ৮ বলে ১২ রান করেন তিনি। পরের ওভারে সাকিব এসে দেন মাত্র ১ রান। 

বোলিং ওপেন করা শেখ মেহেদী বল করতে আসেন ইনিংসের পঞ্চম ওভারে। ষষ্ঠ ওভারে মোস্তাফিজ তিন রান দিয়ে ওভার শেষ করলে পাওয়ার প্লের ৬ ওভার শেষে দুই উইকেট হারিয়ে ২২ রান করে টম লাথামের দল। 

তরুণ উয়িল ইয়াংকে নিয়ে দলের হাল ধরেন অধিনায়ক টম লাথাম। তাদের ৩৫ রানের জুটি ভাঙেন শেখ মেহেদী। মেহেদীর বল ক্রিজ থেকে বেরিয়ে এসে খেলতে চেয়েছিলেন লাথাম। কিন্তু বলের লাইন মিস করে স্টাপড হয়ে যান তিনি। ২৬ বলে ২১ রান এসেছে তার ব্যাট থেকে। 

পরের ওভারে আক্রমণে এসেই হ্যাটট্রিকের আশা জাগান নাসুম। পরপর দুই বলে তুলে নেন হেনরি নিকোলস ও কলিং ডি গ্রান্ডহোমকে। ৪ ওভারে মাত্র ১০ রান দিয়ে ৪ উইকেট তুলে নেন নাসুম। নাজমুল ইসলাম অপুর পর দ্বিতীয় বাংলাদেশি বোলার হিসেবে টি-টোয়েন্টিতে দুটি মেডেন নেন নাসুম। 

১৫তম ওভারে অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহর বলে দুর্দান্ত ছয় মারেন ইয়াং। পরের ওভারেই মিড অনে মেহেদীর দুর্দান্ত ক্যাচে পরিণত করে আউট করেন টম ব্ল্যান্ডেলকে। ওভারের শেষ বলে কোল ম্যাককনকিকে কট অ্যান্ড বোল্ড করেন মোস্তাফিজ। এক ওভারে আবারও দুই উইকেট হারাল সফরকারীরা। 

এক পাশ আগলে রেখে দলকে এগিয়ে নিতে থাকেন ইয়াং। দুর্দান্ত ইয়র্কারে এজাজ প্যাটেলকে বোল্ড করেন সাইফউদ্দীন। প্যাটেলের ব্যাট থেকে আসে ৪ রান। 

ইয়াং শেষ পর্যন্ত মোস্তাফিজের বলেই আউট হন তিনি। শেষ ওভারে আবারও দুই উইকেট তুলে নেন মোস্তাফিজ। 

শেখ মেহেদী ও সাইফউদ্দীন নিয়েছেন একটি করে উইকেট। 

আজও উইকেটশূন্য ছিলেন সাকিব। ৪ ওভারে ২৫ রান দেন তিনি। মালিঙ্গাকে ছাড়িয়ে যাওয়ার অপেক্ষা বাড়ল তার।

Link copied!