• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল, ২০২৪, ৪ বৈশাখ ১৪৩১, ৮ শাওয়াল ১৪৪৫

গরীবরা এখন পান্তাভাত খেতে চায় না : মতিয়া চৌধুরী


সংবাদ প্রকাশ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: আগস্ট ২৮, ২০২৩, ০৮:৪২ পিএম
গরীবরা এখন পান্তাভাত খেতে চায় না : মতিয়া চৌধুরী
ফার্মগেট কৃষিবিদ ইন্সটিটিউশন বাংলাদেশ অডিটোরিয়ামে আয়োজিত আলোচনা সভা

গরীবরা এখন আর পান্তাভাত খেতে চায় না বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় সংসদ উপনেতা এবং বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য বেগম মতিয়া চৌধুরী এমপি। তিনি বলেন, “জাতির জনক বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ আজ উন্নতির পথে আগাচ্ছে। অন্ন, বস্ত্র, শিক্ষা, খাদ্য, চিাকৎসা, বাসস্থানসহ প্রতিটি ক্ষেত্রেই বাংলাদেশ অভূতপূর্ব সফলতা লাভ করেছে।”

সোমবার (২৮ আগস্ট) বিকেলে ফার্মগেট কৃষিবিদ ইন্সটিটিউশন বাংলাদেশ (কেআইবি) অডিটোরিয়ামে বঙ্গবন্ধু কৃষিবিদ পরিষদ এবং কৃষিবিদ ইন্সটিটিউশন বাংলাদেশ এর যৌথ আয়োজনে ‘জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৮ তম শাহাদতবার্ষিকী এবং জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে’ দোয়া মাহফিল ও আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

মতিয়া চৌধুরী বলেন, “৭৫ এ জাতির পিতাকে হত্যার মাধ্যমে খুনি মুস্তাক জিয়া গং চেয়েছিল দেশকে অন্ধকারে নিয়ে যেতে। জননেত্রী শেখ হাসিনা সকল ষড়যন্ত্র প্রতিহত করে জনগণের মৌলিক অধিকারগুলো প্রতিষ্ঠা করেছেন। আমি কৃষিবিদ নই, কিন্তু কৃষকদের উন্নত জীবন দেওয়ার জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর যে আপ্রাণ চেষ্টা, সে চষ্টায় আমিও আপনাদের সঙ্গে আছি।

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন বলেন, “মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে বাংলাদেশ আজ সারা বিশ্বে উন্নয়নের রোল মডেল। তিনি সবার জন্য ভাবেন। তাঁর এই চিন্তাকে সম্মান জানিয়ে বাংলাদেশের পেশাজীবীরা আগামী নির্বাচনে তাঁকে আবার বিজয়ী করে আনবেন। আমরা যদি আবারও জননেত্রী শেখ হাসিনাকে বিজয়ী করতে পারি, তিনি বাংলাদেশকে স্বপ্নের অভিষ্ট লক্ষ্যে নিয়ে যাবেন।”  

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কৃষিবিদ আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম বলেন, “খুনের রাজনীতি প্রতিষ্ঠার জন্য সাম্প্রদায়িকতা সৃষ্টির জন্য, একাত্তরের পরাজয়ের প্রতিশোধের জন্য জাতির পিতাকে সপরিবারে হত্যা করা হয়। বাঙালি জাতি হিসেবে আমাদের স্বকিয়তায় আমরা বিশ্বের কাছে দাঁড়াব, জাতির পিতার এ লক্ষ্য ধ্বংশ করাই খুনি মুস্তাক জিয়াদের উদ্দেশ্য ছিলো। ২১ বছর খুনি জিয়া, এরশাদ, খালেদা জিয়া, নিজামী জোট খুনিদের লালন পালন করেছে। তারা একুশে আগস্ট কালো থাবা মেলে ধরার চেষ্টা করেছিলো। আমরা কৃষিবিদরা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার পাশে শেষ মুহুর্ত পর্যন্ত দাঁড়িয়ে থেকে গণতন্ত্রকে শক্তিশালী করব। বিএনপি জামাত সাম্প্রদায়িক শক্তি ও যুদ্ধাপরাধীদের হাত থেকে বাংলাদেশকে রক্ষার জন্য জনমত গড়ে তুলতে কৃষিবিদরা ভূমিকা রাখবে।”

কৃষক লীগের সভাপতি কৃষিবিদ সমীর চন্দ বলেন, “জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষিবিদদের প্রথম শ্রেণির মর্যাদা দিয়েছিলেন, তাই আমরা দেশ ও জাতির জন্য আজ মাথা উঁচু করে কাজ করতে পারছি। আগামী জাতীয় নির্বাচনে কৃষকরত্ন জননেত্রী শেখ হাসিনাকে আবারও বিজয়ী করে তার প্রতিদান দিতে সচেষ্ট থাকবো।

Link copied!