• ঢাকা
  • বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ৮ ফাল্গুন ১৪৩০, ১১ শা’বান ১৪৪৫

মানুষ খুব পরিষ্কার করে বলছে, বিদায় হও : ফখরুল


সংবাদ প্রকাশ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: আগস্ট ৪, ২০২৩, ০৭:৩৬ পিএম
মানুষ খুব পরিষ্কার করে বলছে, বিদায় হও : ফখরুল

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, “যুক্তরাষ্ট্র কী বলল, যুক্তরাজ্য কী বলল বা ভারত কী বলল, এটা নিয়ে আমাদের মাথা ঘামানোর দরকার নেই। আমাদের দরকার, আমাদের মানুষ কী বলে। মানুষ খুব পরিষ্কার করে বলছে, বিদায় হও। আর সময় নেই। যেতে হবে। এই সরকারকে যেতেই হবে।”

শুক্রবার (৪ আগস্ট) বিকেলে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে আয়োজিত প্রতিবাদ সমাবেশে মির্জা ফখরুল এসব কথা বলেন।

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান ও তার স্ত্রী জুবাইদা রহমানকে সাজা দেওয়ার প্রতিবাদে এই সমাবেশের আয়োজন করে ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ শাখা বিএনপি।

মির্জা ফখরুল বলেন, “এই সরকারকে সরাতে হবে। আমাদের সামনে বিকল্প কোনো পথ নেই। ফিরে যাওয়ার কোনো পথ নেই। আমাদের অস্তিত্বের জন্য, জাতির অস্তিত্বের জন্য সবাইকে ঝাঁপিয়ে পড়তে হবে। সত্যিকার অর্থে গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র, জনগণের সরকার গঠন করতে হবে।”

মির্জা ফখরুল অভিযোগ করে বলেন, “সরকার জোর করে রাষ্ট্রযন্ত্রকে ব্যবহার করে, বিশেষ করে পুলিশ প্রশাসন ও বিচার বিভাগকে ব্যবহার করে ক্ষমতায় টিকে আছে।”

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ও তার স্ত্রীকে সাজা দেওয়ার বিষয়ে মির্জা ফখরুল বলেন, “তারেক রহমানকে তোমরা সাজা দিয়েছ। আজ যিনি অবৈধ ক্ষমতা দখল করে আছেন, তার বিরুদ্ধে ১৫টি মামলা ছিল দুর্নীতির। সেগুলো কায়দা করে বিভিন্ন কৌশলে এই বিচার বিভাগকে ব্যবহার করে তুলে দিয়েছেন।”

সরকারের সময় শেষ হয়ে গেছে দাবি করে বিএনপির মহাসচিব বলেন, “এদের সময় শেষ হয়ে গেছে। এ কারণে তারা এ দেশে আর কিছু অবশিষ্ট রাখেনি। তারা দুর্নীতি এমন একপর্যায়ে নিয়ে গেছে যে দুর্নীতি সর্বস্তরে ছড়িয়ে পড়েছে। ওয়াসার এমডি তাসকিনকে আবার এক্সটেনশন দিয়েছে। পত্রপত্রিকায় তার দুর্নীতির ব্যাপারে বহু ছাপা হয়েছে। তারা কানে তুলা দিয়েছে। আর বোঝাচ্ছে যে যা–ই করুক, কিছু যায়–আসে না।”

ক্ষমতাসীনদের উদ্দেশে ফখরুল বলেন, “খুব তো বলেছিলে, খেলতে চাও। ডিসেম্বরে খেলতে চাও। সব বাদ, দয়া করে কাতারে আসো, রাস্তায় আসো। আমি দুঃখিত, আজ আমাকে এ কথা বলতে হলো।”

সমাবেশে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, আবদুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির আহ্বায়ক আমান উল্লাহর সভাপতিত্বে সভার সঞ্চালনা করেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সদস্যসচিব তানভীর আহমেদ ও ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির সদস্যসচিব আমিনুল হক।

Link copied!