• ঢাকা
  • রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০, ১৫ শা’বান ১৪৪৫

‘বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করে ইসলামি প্রজাতন্ত্রের রাষ্ট্র ঘোষণা দেয় খুনিরা’


সংবাদ প্রকাশ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: আগস্ট ১৬, ২০২৩, ০৬:২১ পিএম
‘বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করে ইসলামি প্রজাতন্ত্রের রাষ্ট্র ঘোষণা দেয় খুনিরা’
বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে বঙ্গবন্ধুর ৪৮তম শাহাদতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবসের আলোচনা সভায় প্রধানমন্ত্রী

খুনিরা বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করে বাংলাদেশের নাম পরিবর্তন করে ফেলতে চেয়েছিল বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেছেন, “বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর বাংলাদেশকে ইসলামি প্রজাতন্ত্রের রাষ্ট্র হিসেবে ঘোষণা দেয়। বাংলাদেশ বেতারের নাম পরিবর্তন করে রেডিও বাংলাদেশ করে। জয় বাংলা স্লোগান বাদ দিয়ে জিন্দাবাদ স্লোগান নিয়ে আসে।”

বুধবার (১৬ আগস্ট) বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে বঙ্গবন্ধুর ৪৮তম শাহাদতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, “বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর দেশের মানুষের উন্নতির সব স্বপ্ন বন্ধ হয়ে যায়। খুনি মোশতাক নিজেকে রাষ্ট্রপতি ঘোষণা করে, জিয়াকে সেনাপ্রাধান বানায়। জিয়াউর রহমান এ হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে ওতপ্রোতভাবে জড়িত। মীর জাফর যেমন তিন মাসের বেশি থাকতে পারেনি। তেমনি মোশতাকও থাকতে পারেনি। জিয়া ক্ষমতা দখল করে।”

শেখ হাসিনা বলেন, “ক্ষমতা দখল করে নিজেকে রাজনীতিবিদ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করার চেষ্টা করে জিয়া। আর্মি রুলস ভঙ্গ করে একটা রাষ্ট্রপতি নির্বাচনও করে। ভোট কারচুপি ও ভোট চুরি তো সেখান থেকে শুরু। এরপর বিএনপি নামক সেই দল প্রতিষ্ঠা করে।”

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ১৫ আগস্ট তার জন্মদিন প্রমাণ করতে পারবেন না জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “খালেদা জিয়া শোকের দিন বেছে নিয়েছিলেন উৎসব করার জন্য।”

১৫ আগস্ট বাঙালি জাতির জীবনে সবচেয়ে কলঙ্কজনক অধ্যায় উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “স্বাধীন বাংলাদেশে সবচেয়ে দুঃখজনক ঘটনা। সেদিন ঘাতকের বুলেটে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ পরিবারের সবাইকে হত্যা করা হয়। ইতিহাসে এ ধরনের জঘন্য ঘটনা বাংলার মাটিতে ঘটে যায়। এটি সেই কারবালার ঘটনাকেও হার মানায়।”

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে সূচনা বক্তব্য দেন দলটির সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

Link copied!