• ঢাকা
  • মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই, ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১, ১০ মুহররম ১৪৪৫

তক্ষক না কিনলে র‌্যাবে ধরিয়ে দেওয়ার ভয় দেখানো হতো


সংবাদ প্রকাশ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: এপ্রিল ২০, ২০২২, ০২:৪৯ পিএম
তক্ষক না কিনলে র‌্যাবে ধরিয়ে দেওয়ার ভয় দেখানো হতো

বিরল প্রজাতির প্রাণী তক্ষক কেনাবেচার সংঘবদ্ধ চক্রের ৫ প্রতারককে গ্রেপ্তার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।  

মঙ্গলবার (১৯ এপ্রিল) ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের গোয়েন্দা রমনা বিভাগের অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার ও মাদক নিয়ন্ত্রণ দল বিশেষ অভিযান চালিয়ে রাজধানীর উত্তরা পশ্চিম থানার আব্দুল্লাহপুর এলাকা ও গাজীপুর জেলার দুরাইল থানা এলাকা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করে।

গ্রেপ্তাররা হলেন সোয়েম আহম্মেদ ওরফে সোহেল (৩৯), মো. এনামুল হক (২৮), মো. হোসেন আলী (২৪), মো. মিজানুর রহমান (৩০), ও মো. মামুন মিয়া (৩৮)। এ সময় তাদের কাছ থেকে ১টি গামছা, ১টি প্লাস্টিকের লাঠি, নাইলন রশি, ১টি ওয়াকিটকি ও ১টি অ্যান্টেনাযুক্ত ল্যান্ডফোন জব্দ করা হয়।

বুধবার (২০ এপ্রিল) দুপুর সাড়ে ১২টায় দিকে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলন এসব তথ্য জানান ডিএমপির গোয়েন্দা বিভাগের (ডিবি) অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (প্রধান) এ কে এম হাফিজ আক্তার।

এ কে এম হাফিজ আক্তার জানান, গ্রেপ্তার সোয়েম আহম্মেদের গাজীপুর জেলার পুবাইল থানাধীন পুবাইল কলেজ রেলগেট বাধন সড়কে কথিত আন্তর্জাতিক মানবাধিকার গোয়েন্দা সংবাদ সোসাইটি নামের একটি অফিস আছে। সোয়েম অফিসে যুগ্ম পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। সোয়েম আহম্মেদ কথিত মানবাধিকার অফিস পরিচালনার আড়ালে ওই অফিসকে প্রতারণার আঁতুড়ঘর এবং একটি টর্চার সেল হিসেবে ব্যবহার করতেন। গ্রেপ্তাররা বিভিন্ন সময় বিভিন্ন লোকের নিকট তক্ষক বিক্রি করার প্রলোভন দেখিয়ে তাদের সোয়েম আহম্মেদের অফিসে নিয়ে আসতেন এবং প্রলোভনের ফাঁদে ফেলে তক্ষক কিনতে বাধ্য করেন। ভিকটিম তক্ষক কিনতে অস্বীকার করলে তাকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করাসহ ভয়-ভীতি দেখিয়ে তার কাছ থেকে নগদ টাকা জোর করে আদায় করত। টাকা না দিলে তারা ভিকটিমদের র‍্যাব দিয়ে ধরিয়ে দেবে বলে ভয়-ভীতি দেখাত।

গ্রেপ্তারদের বিরুদ্ধে উত্তরা পশ্চিম থানায় একটি মামলা করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় প্রতারণাসহ একাধিক মামলা রয়েছে বলেন জানান ডিবির এই কর্মকর্তা।

Link copied!