• ঢাকা
  • শুক্রবার, ১৯ জুলাই, ২০২৪, ৪ শ্রাবণ ১৪৩১, ১৩ মুহররম ১৪৪৫

গ্যাসবেলুন বিস্ফোরণ: আশঙ্কামুক্ত নন রনি, কমিটি গঠন


সংবাদ প্রকাশ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ১৭, ২০২২, ০২:৫৬ পিএম
গ্যাসবেলুন বিস্ফোরণ: আশঙ্কামুক্ত নন রনি, কমিটি গঠন

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের (জিএমপি) চতুর্থ বর্ষপূর্তি অনুষ্ঠানে গ্যাসবেলুন বিস্ফোরণে দগ্ধ কৌতুক অভিনেতা আবু হেনা রনি আশঙ্কামুক্ত নন বলে জানিয়েছেন চিকিৎসক। শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের হাই ডিপেন্ডেন্সি ইউনিটে (এইচডিইউ) রাখা হয়েছে তাকে। তিনি এখনো শঙ্কামুক্ত নন।

শনিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) এইচডিইউয়ের সার্জারি ইনস্টিটিউটের আবাসিক সার্জন এস এম আইউব হোসেন এ তথ্য জানিয়েছেন।

ডা. এস এম আইউব হোসেন জানান, গাজীপুরে গ্যাসবেলুন বিস্ফোরণে দগ্ধ হয়ে দুইজন এসেছেন। এরমধ্যে আবু হেনা রনির (৩২) শরীরের ২৫ শতাংশ দগ্ধ হয়েছে। তার শ্বাসনালী দগ্ধ হয়েছে।

ওই চিকিৎসক আরও বলেন, “চিকিৎসকরা সর্বাত্মক চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। কলকাতা থেকেও অনেকেই ফোন করছেন। আমরা আমাদের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গেও কথা বলেছি। তার শরীরের ২৫% পুড়ে গেছে। আমাদের আরও অপেক্ষা করতে হবে।”

গাজীপুর জেলা পুলিশ লাইনসে শুক্রবার বিকেলে গ্যাস বেলুন বিস্ফোরণে রনিসহ পাঁচজন দগ্ধ ও আহত হন।

রনিকে বার্ন ইনস্টিটিউটে নিয়ে আসা সাদিক আল হাসান জানান, জিএমপির বর্ষপূর্তির অনুষ্ঠানে অভিনয় করতে গিয়েছিলেন এ কৌতুক অভিনেতা। সেখানে গ্যাস বেলুন বিস্ফোরিত হয়। তখন পাশেই দাঁড়িয়ে থাকা রনিসহ অন্যরা দগ্ধ ও আহত হন।

দগ্ধদের শুরুতে গাজীপুরের তাজউদ্দীন আহমদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। দগ্ধের মাত্রা বেশি হওয়ায় সেখান থেকে রাতে ঢাকায় পাঠানো হয় রনিকে।

বিস্ফোরণের ঘটনায় তদন্ত কমিটি

জিএমপির চতুর্থ প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে গ্যাসবেলুন বিস্ফোরণে চার সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে পুলিশ। শুক্রবার (১৬ সেপ্টেম্বর) রাতে জিএমপির ডিসি (উপ-কমিশনার, উত্তর) আবু তোরাব শামসুর রহমানকে প্রধান করে এ কমিটি গঠন করেন জিএমপি কমিশনার। কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন এডিসি (উত্তর) রেদোয়ান আহমেদ, এসি প্রসিকিউশন ফাহিম আশজাদ ও গাজীপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রফিকুল ইসলাম। তিন কার্যদিবসের মধ্যে কমিটিকে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে। জিএমপির সহকারী কমিশনার (মিডিয়া) আবু সায়েম নয়ন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
 

Link copied!