• ঢাকা
  • বুধবার, ২৬ জুন, ২০২৪, ১১ আষাঢ় ১৪৩১,

আরো ৮ দিনের রিমান্ডে হেলেনা জাহাঙ্গীর


সংবাদ প্রকাশ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: আগস্ট ৩, ২০২১, ০৪:৫৪ পিএম
আরো ৮ দিনের রিমান্ডে হেলেনা জাহাঙ্গীর

চাঁদাবাজির অভিযোগ ও টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ আইনের মামলায় ব্যবসায়ী হেলেনা জাহাঙ্গীরকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আরো আট দিনের রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ।

মঙ্গলবার পল্লবী থানার দুই মামলায় আসামিকে সাত দিন করে হেফাজতে নেওয়ার আবেদন করে পুলিশ। শুনানি শেষে ঢাকার মহানগর হাকিম শাহিনুর রহমান চার দিন করে আট দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এর আগে গুলশান থানার ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় তিন দিনের রিমান্ড শেষে দুপুরে হেলেনা জাহাঙ্গীরকে আদালতে হাজির করা হয়।

রাষ্ট্রপক্ষের প্রধান আইনজীবী আবদুল্লাহ আবু বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, পল্লবী থানার দুই মামলার রিমান্ড শুনানির সময় হেলেনা জাহাঙ্গীর স্বাভাবিক থাকলেও পরে তাকে ভীষণ উদ্বিগ্ন দেখা যায়।”

হেলেনা জাহাঙ্গীরের আইনজীবী মো. শফিকুল ইসলাম রিমান্ড বাতিল করে জামিনের আবেদন করলে তা বাতিল করে আদালত। তিনি বলেন, “হেলেনা জাহাঙ্গীর ‘প্রতিহিংসার শিকার’।”

সোমবার বিকালে পল্লবী থানায় হেলেনা জাহাঙ্গীরের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির অভিযোগে মামলা করেন ভোলার আব্দুর রহমান তুহিন নামের এক ব্যক্তি। এজাহারে বলা হয়, হেলেনার মালিকানাধীন জয়যাত্রা টিভিতে ভোলা প্রতিনিধি হিসেবে নিয়োগ দেওয়ার নামে আব্দুর রহমান তুহিনের কাছ থেকে মোটা অঙ্কের টাকা নেয় কর্তৃপক্ষ।

ওই মামলায় আইপি টিভি জয়যাত্রার ব্যবস্থাপনা পরিচালক হেলেনা ছাড়াও অন্যতম সহযোগী হাজেরা খাতুন, জয়যাত্রা টিভির প্রধান সম্পাদক কামরুজ্জামান আরিফ, স্টাফ রিপোর্টার সালাউদ্দিন ও মাহফুজের নামও রয়েছে।

মামলার অভিযোগ তুলে ধরে পল্লবী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) পারভেজ ইসলাম বলেন, “প্রায় ৩২ মাস ধরে প্রতি মাসে ৩ হাজার টাকা করে তুহিনের কাছ থেকে চাঁদা নিত তারা এবং এই টাকা না দিলে তাকে জয়যাত্রার সাংবাদিকতা থেকে বাদ দেওয়ার কথা বলা হত।”

গত বৃহস্পতিবার রাজধানীর গুলশানের বাসা  থেকে হেলেনা জাহাঙ্গীরকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। তার বিরুদ্ধে পল্লবী ও গুলশান থানায় মোট চারটি মামলা হয়েছে।

শুক্রবার রাতে এফবিসিসিআইর পরিচালক হেলেনার বিরুদ্ধে টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ আইনে গুলশান থানায় দ্বিতীয় মামলা দায়েরের আগে সন্ধ্যায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় তাকে তিন দিনের রিমান্ডে পাঠায় আদালত।

পাশাপাশি মামলার তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য ১২ সেপ্টেম্বর দিন ধার্য করে দেয় আদালত।

হেলেনা জাহাঙ্গীর আওয়ামী লীগের মহিলাবিষয়ক উপকমিটিতে সদস্য ছিলেন। কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামী লীগেরও উপদেষ্টা পরিষদে ছিলেন তিনি।

Link copied!