• ঢাকা
  • বুধবার, ২৯ মে, ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২০ জ্বিলকদ ১৪৪৫

নারী কেন বিবাহিত পুরুষের প্রেমে পড়ে?


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: এপ্রিল ৯, ২০২৪, ০১:১৪ এএম
নারী কেন বিবাহিত পুরুষের প্রেমে পড়ে?
ছবি: সংগৃহীত

কথায় বলে, নারীরাই নারীদের শত্রু। আদৌ কি ঠিক এই বাক্য? বিপরীত লিঙ্গ একে অপরের প্রতি আকর্ষিত হবে, এটাই স্বাভাবিক। পুরুষ ও নারীরা একে অপরকে ভালোবাসবে, একসঙ্গে থাকার প্রতিশ্রুতি দিবে। এটা পৃথিবীর স্বাভাবিক ঘটনা। এই স্বাভাবিক ঘটনাও মাঝে মধ্যে প্রশ্নবিদ্ধ হয়ে উঠে। যখন বিবাহিত নারী বা বিবাহিত পুরুষরা অন্য কোনো নারী বা পুরুষের সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়ে যায় তখনই তা অস্বাভাবিক হয়ে উঠে।

ইদানিং বিবাহিত পুরুষরা অন্য নারীদের প্রতি বেশি আকর্ষিত হচ্ছে। যার কারণে বিবাহ বিচ্ছেদও বেশি ঘটছে। বিষয়টি অন্যভাবে বললে বলা যায়, সিঙ্গেল নারীরা এখন বিবাহিত পুরুষদেরই বেশি পছন্দ করছেন। তারা সিঙ্গেল পুরুষদের চেয়ে বিবাহিত পুরুষদের মন দিয়ে বসেন। এরপরই হয় বিপত্তি। সম্পর্কের টানাপোড়নে বিবাহ বিচ্ছেদের ঘটনা বেড়েই চলেছে।

সম্প্রতি নারীদের জীবন নিয়ে এক গবেষণায়ও এটি প্রমাণিত হয়েছে। যেখানে বলা হয়, সিঙ্গেল  নারীদের অধিকাংশ সময়ই বিবাহিত ও বয়সে বড় পুরুষদের প্রতি বেশি আকর্ষণ থাকে। নারীরা  সিঙ্গেল পুরুষদের প্রতি তেমন আগ্রহ প্রকাশ করে না। বরং বিবাহিত পুরুষরাই নারীদের পছন্দের তালিকার শীর্ষ থাকে।

গবেষণায় এর পেছনের কারণ সম্পর্কেও জানানো হয়। কেন অধিকাংশ নারীরা বিবাহিত পুরুষদের প্রেমে পড়েন? এর পেছনে শারীরিক সম্পর্কের অভিজ্ঞতা রয়েছে না অন্য কোনো কারণ তা নিয়ে বিস্তর গবেষণা পরিচালনা হয়। জার্নাল অফ এক্সপেরিমেন্টাল সাইকোলজিতে গবেষণাটি প্রকাশ করা হয়। গবেষণায় উঠে আসে, ৯০ শতাংশ নারী ইতোমধ্যেই বিবাহিত বা কোনো সম্পর্কে আবদ্ধ আছেন এমন পুরুষের প্রতি আগ্রহ প্রকাশ করেন। অথচ সিঙ্গেল পুরুষদের প্রতি উত্সাহ দেখিয়েছেন মাত্র ৫৯ শতাংশ নারী।

গবেষণায় আরও উঠে আসে, অল্পবয়সী নারীদের অধিকাংশই বয়স্ক পুরুষের প্রেমে পড়ে। আর বয়স্ক পুরুষরা বিবাহিত বা অন্য কারো সঙ্গে আগে থেকেই সম্পর্কে থাকেন।

জার্নাল হিউম্যান নেচারের গবেষণায় জানা যায়, ইতোমধ্যেই একজন নারী বেছে নেওয়া পুরুষকে অন্য আরেক নারীও পছন্দ করেন। কারণ অল্প বয়সী নারীদের একাংশের ধারণা, বিবাহিত পুরুষরা শারীরিক সম্পর্কের সঙ্গী হিসেবে ভালো হয়। অভিজ্ঞতাসম্পন্ন ‍‍`ম্যাচিওর্ড‍‍` পুরুষরা শারীরিক সম্পর্কের জন্য সঙ্গী হিসেবে তুলনামূলকভাবে ভালো। তাছাড়া সিঙ্গেল পুরুষের সঙ্গে সম্পর্ক করলে প্রতিশ্রুতি দিতে হয়। আর যারা বিবাহিত বা কোনো সম্পর্কে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ, তাদের সঙ্গে নতুনভাবে কমিটমেন্ট করতে হয় না। স্বাধীনচেতা নারীরা প্রতিশ্রুতি ছাড়াই সম্পর্কে থাকতে পছন্দ করেন। যার কারণে বিবাহিত পুরুষের প্রতি তাদের ঝোঁকও বেশি থাকে।

মনোবিদ ও সম্পর্ক বিষয়ক বিশেষজ্ঞরা জানান, এমন নারীরা শুধুই মুহূর্তের ভালো লাগা খুঁজেন। তারা দীর্ঘস্থায়ী সম্পর্কে থাকতে চান না।

বিবাহিত পুরুষের প্রতি আকর্ষিত হওয়ার পর এক তরুণী জানান, এই সম্পর্ক থেকে কোনো প্রত্যাশা ছিল না। আবার সঙ্গীর বিবাহিত জীবনও খারাপ করতে চাননি। কিন্তু সেই ব্যক্তিকে ‘ম্যাচিওর’ বলে মনে হয়েছে, তাই আকর্ষণ বেড়েছে।

বিবাহিত পুরুষের প্রতি আকর্ষিত হওয়া ৩১ বছর বয়সী ব্রিটিশ নারী জেনি ডি বলেন “আমি বিবাহিত এক লোকের সঙ্গে রাত কাটানো ও রোমাঞ্চ খুব পছন্দ করতাম। সে আমার থেকে ১০ বছরের বড় ছিল। আমি জানতাম এই সম্পর্কের পরিণতি নেই। তবুও আমি তার সঙ্গ উপভোগ করেছি এবং এটা আমি সবসময় মনে রাখব।“

২৩ বছর বয়সী অন্য আরেক নারী বলেন, “এক রাতে একটি বারে এক লোকের সঙ্গে দেখা হয় এবং সেই রাতে আমরা একসঙ্গে থেকেছি। পরদিন সকালে ঘুম ভাঙার পর দেখতে পাই তার মোবাইল ফোনের স্ক্রিনের ব্যাকগ্রাউন্ডে তার এবং অন্য এক মহিলার বিয়ের ছবি। বুঝলাম সে বিবাহিত। তাকে বিষয়টি জিজ্ঞেস করলাম, সে জানাল তার স্ত্রী যখন শহরের বাইরে থাকে, তখন সে এমন অনেক কিছুই করে। আমি তার এবং নিজের প্রতি বিরক্ত হয়েছিলাম।“

ভিভিয়ান ডব্লিউ নামে আরও এক ব্রিটিশ নারী নিজের অভিজ্ঞতা জানিয়ে বলেন, “আমি সেই প্রতারিত মেয়েদের মধ্যে একজন ছিলাম, যার ধারণা ছিল বিবাহিত লোকটি আমার জন্য তার স্ত্রীকে ছেড়ে দিবে। এই বিশ্বাস থেকে আমি তার প্রেমে পড়েছিলাম এবং তার সঙ্গে রাত কাটিয়েছি। আমরা দুই বছর একসঙ্গে ছিলাম। প্রতি মাসে সে আমাকে জানাত তার বিবাহবিচ্ছেদ হচ্ছে। দুই বছর পার হওয়ার পর আমি বুঝতে পেরেছিলাম যে সে কখনই বিবাহবিচ্ছেদ করবে না এবং আমি কখনই তাকে আমার করে পাব না।“

৩৩ বছর বয়সী কেরি ডি নামক আরেক নারী বলেন, “আমি মনে করি না যে একজন বিবাহিত পুরুষের সঙ্গে যৌন সম্পর্ক করা খারাপ। কারণ সে আমাকে পছন্দ করে এবং আমরা একে অপরের সম্পর্ক উপভোগ করি।“

গবেষকদের মতে, শারীরিক আকর্ষণ থেকেও নারীরা মানসিক আকর্ষণকে বেশি গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করেন। এছাড়াও নারীরা আরও বেশকিছু কারণে বিবাহিত নারীদের প্রতি আকর্ষিত হন। যেমন_

একজন পুরষ যখন একজন নারীর কাছে আকর্ষণের কেন্দ্র হয়ে উঠেন তখন অন্য নারীরাও তাকে আকর্ষণীয় ব্যক্তি বলে মনে করেন। অন্য এক নারীর অভিজ্ঞতাই ওই পুরুষকে সম্পর্কের জন্য উপযুক্ত বলে প্রতিভাত করে।

অঙ্গীকার ও প্রতিশ্রুতি রক্ষার আগে থেকে সম্পর্কে থাকা পুরুষরা বেশি নির্ভরযোগ্য বলে মনে করেন অধিকাংশ নারী। কারণ ইতোমধ্যেই সেই পুরুষ একটি সম্পর্কে তার নির্ভরযোগ্যতা প্রমাণ করেছেন। বিশেষত যেসব নারীর সম্পর্ক বিচ্ছিন্ন তাদের মধ্যে এই প্রবণতা বেশি।

ইতোমধ্যে সম্পর্কে থাকা ব্যক্তিদের অভিজ্ঞতা ও পরিণতমনস্কতা অনেকক্ষেত্রেই আকৃষ্ট করে নারীদের। সম্পর্কের ঘাত প্রতিঘাত সামলানোতে বিবাহিত পুরুষরা অবিবাহিত পুরুষদের থেকে বেশি সক্ষম বলে মনে করেন অধিকাংশ নারী। এমনটাই মত গবেষকদের।

বিবাহিত বা একবার সম্পর্কে জড়ানো পুরুষরা বারবার সম্পর্কে জড়াতে দ্বিধাবোধ করে থাকেন। যা সম্পর্ককে স্থায়ীত্ব দিতে পারে। অবিবাহিত পুরুষদের চঞ্চলতা অনেক নারীর পছন্দ নয়।

বিবাহিত পুরুষদের পক্ষে পরকীয়া সম্পর্কে জড়ানো একটা বড় ঝুঁকি। যখন কোনো বিবাহিত পুরুষ পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়েন তখন তা প্রমাণ করে যে তিনি এই দ্বিতীয় নারীর জন্য বড় ঝুকি নিতেও প্রস্তুত। এই নিষিদ্ধ আকর্ষণ অনেক নারীকেই টেনে নেয় বিবাহিত পুরুষদের কাছে।   

বিশেষজ্ঞরা জানান, বিবাহিত পুরুষ যখন অন্য নারীর সঙ্গে সম্পর্কে জড়ান তাতে প্রথম সম্পর্ক হুমকির মুখে পড়ে। কোনো কোনো ক্ষেত্রে প্রথম সম্পর্ক ভেঙেও যেতে পারে। নতুন সম্পর্কে থাকা দ্বিতীয় নারী তখন নিজেকে বিশেষভাবে গুরুত্বপূর্ণ মনে করেন এবং ওই পুরুষকে ভরসা করেন। এই দিকটিও নারীদের আকর্ষিত করে বলে গবেষণায় উঠে এসেছে।

বিশেষজ্ঞরা আরও জানান, এই ধরনের গবেষণা বা সমীক্ষা সমাজের কিছু নির্দিষ্ট নারীদের নিয়ে করা হয়। তাই সব নারীদের ক্ষেত্রে এমনটা নাও হতে পারে।

Link copied!