• ঢাকা
  • সোমবার, ২৪ জুন, ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১,

বিদ্যুৎ-গ্যাসের খরচ কমানোর কৌশল


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: নভেম্বর ২৮, ২০২১, ১০:০৯ এএম
বিদ্যুৎ-গ্যাসের খরচ কমানোর কৌশল

বাড়িতে বিদ্যুৎ আর গ্যাসের ব্যবহার সারাক্ষণই হয়। অধিকাংশ বাড়িতেই এখন কার্ডে প্রিপেইড করে বিদ্যুৎ আর গ্যাসের ব্যবহার করতে হয়। হঠাৎ কার্ড ফুরিয়ে গেলেই হয় বিপত্তি। তাই সারাক্ষণ হিসেব করে বিদ্যুৎ আর গ্যাসের ব্যবহার করতে হচ্ছে। কারণ, বিদ্যুতের বিল বেশি উঠছে অন্যদিকে গ্যাসের খরচও বেড়েছে। সিলিন্ডার ব্যবহার করলে তো কথাই নেই। প্রতি বেলা হিসাব করেই গ্যাস খরচ করতে হয়। তাই ইচ্ছা থাক বা না থাক, সবাইকেই খরচ কমানোর অভ্যাস তৈরি করতে হবে। তা-ও খুব সচেতনভাবেই।

বিদ্যুৎ-গ্যাসের খরচ কমানোর কিছু কৌশল জানাব আজকের এই আয়োজনে।

  • গ্যাস বাঁচানোর ক্ষেত্রে সবচেয়ে বড় বন্ধু হতে পারে প্রেশার কুকার। মাংস বা যে রান্না হতে সময় লাগে. তা ভালো করে কষিয়ে প্রেশার কুকারে সেদ্ধ করে নিন। এছাড়া কিছু সবজি যেমন লাউ, পেঁপে, বাঁধাকপি সেদ্ধ হতে সময় নেয়। এগুলো সামান্য লবণ ও  চিনি দিয়ে প্রেশার কুকারে ভাপিয়ে নিন। এরপর ভিন্ন পাত্রে রান্না করুন।
  • চাল বা ডাল রান্নার আগে অনেকক্ষণ ভিজিয়ে রাখুন। রান্নার আগে পানি ফেলে দেবেন। চাল ও ডালও প্রেশার কুকারে দিয়ে সেদ্ধ করা যাবে। গ্যাস বাঁচবে এবং অল্প সময়ে রান্নাও হবে। 
  • প্রেশার কুকারে ভাত রান্না করতে না চাইলে অন্য ব্যবস্থাও রয়েছে। টগবগে গরম পানিতে ভিজিয়ে রাখা চাল ছেড়ে দিন। ভাত দুই বার ফুটে গেলে গ্যাস বন্ধ করে নিন। আধ ঘণ্টা অপেক্ষা করুন। চাল অনেকটা নরম হয়ে যাবে। প্রয়োজন হলে আরো একবার ফুটিয়ে নিন।
  • শীতের সময় বাড়িতে সবচেয়ে বেশি পানি গরম বা  বার বার চা করতে হয়। এ ক্ষেত্রে চায়ের পানি ভালো করে ফুটিয়ে নিয়ে ফ্লাস্কে ভরে রাখুন।
  • প্যান বা কড়াই ধুয়ে শুকনো করে গ্যাসে বসিয়ে নিন। এতে পাত্রটির পানি শুকাতে গ্যাস খরচ হবে না। 
  • রান্না করার সময় পরিমাণমতো পানি দিন। একগাদা পানি দিলে রান্না হতে সময় লাগবে এবং গ্যাসও খরচ হবে। 
  • রান্না বসানোর আগে সবকিছু হাতের কাছে নিয়ে রাখুন। কড়াই বসিয়ে মসলা বাটা বা সবজি কাটার কাজ করবেন না। এতে গ্যাস খরচ হয় বেশি।
  • গ্যাস বাড়িয়ে রান্না করবেন না। কম আঁচে ঢাকা দিয়ে রান্না করুন। গ্যাস বাঁচবে এবং খাবারের পুষ্টিগুণ ঠিক থাকবে।
  • বাড়িয়ে যে গ্যাজেট ব্যবহার হচ্ছে না, তা পুরোপুরি সুইচ অফ করে রাখুন। বিদ্যুৎ বাঁচানোর সবচেয়ে কার্যকর উপায় এটিই।
  • রিমোট সুইচ দিয়ে টিভি বা এসি অফ করলেও বিদ্যুৎ খরচ হয়। তাই পুরোপুরি সুইচ বন্ধ রাখুন।
  • ঘরে চড়া আলো না লাগিয়ে সাশ্রয়ী আলোর ব্যবস্থা রাখুন। টেবল ল্যাম্পও ব্যবহার করতে পারেন। ল্যাপটপ বা রিডিং টেবলের সামনে ভালো সিএফএল বালব দেওয়া ল্যাম্প লাগিয়ে নিন।
  • বাড়ির সব আলো একসঙ্গে না জ্বালিয়ে যে ঘরে আলো প্রয়োজন শুধু সেটাই জ্বালিয়ে রাখুন। ফ্যান বা এসিরও অপ্রয়োজনে চালিয়ে রাখবেন না। এতে বিদ্যুৎও বাঁচবে। লাইট, ফ্যান বা এসিও দীর্ঘ সময় চলবে।
Link copied!