• ঢাকা
  • সোমবার, ১৫ এপ্রিল, ২০২৪, ২ বৈশাখ ১৪৩১,

চিকিৎসা পাচ্ছেন না সু চি


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ১৫, ২০২৩, ০৩:১৯ পিএম
চিকিৎসা পাচ্ছেন  না সু চি
অং সান সু চি (সংগৃহীত)

মিয়ানমারের সামরিক সরকার দেশটির কারাবন্দী নেত্রী অং সান সু চিকে চিকিৎসাসেবা ও খাবার থেকে বঞ্চিত করছে বলে অভিযোগ করেছে তার দল ন্যাশনাল লিগ ফর ডেমোক্রেসি। বৃহস্পতিবার (১৪ সেপ্টেম্বর) প্রকাশিত এক বিবৃতিতে দলটি আরও দাবি করে, এর ফলে সুচির জীবন বিপন্ন হচ্ছে। খবর ফ্রন্টিয়ার মিয়ানমারের।

২০২১ সালের ফেব্রুয়ারিতে দেশটির সামরিক বাহিনী ক্ষমতা দখল করার পর ৭৮ বছর বয়সী অং সান সু চিকে আটক করা হয়। সাম্প্রতিক সময় স্থানীয় গণমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদনে জানা যায়, নোবেল বিজয়ী এই নেত্রী দাঁতের সংক্রমণের কারণে মাথা ঘোরা, বমি ও খেতে না পারা সমস্যায় ভুগছেন।

ন্যাশনাল লিগ ফর ডেমোক্রেসি বলেছে, “আমরা বিশেষভাবে উদ্বিগ্ন যে তিনি পর্যাপ্ত চিকিৎসা সেবা পাচ্ছেন না এবং তারা তার জীবন বিপন্ন করতে তাকে পর্যাপ্ত পরিমাণে স্বাস্থ্যকর খাবার ও বাসস্থান সরবরাহ করছে না। যদি অং সান সু চির জীবন বিপন্ন হয়, তবে তার জন্য একমাত্র জান্তা সরকার দায়ী।”

মিয়ানমারের একটি সামরিক আদালতে সু চির ১৯ মাসের বিচার চলাকালীন অধিকার গোষ্ঠীগুলো ক্রমাগত এর নিন্দা করেছিল। সু চি নিয়মিতভাবে স্বাস্থ্যগত কারণে শুনানিতে অনুপস্থিত ছিলেন। গত বছর শেষ হওয়া বিচারে ক্ষমতাচ্যুত স্টেট কাউন্সিলরকে ৩৩ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়। পরে জান্তা প্রধান সিনিয়র জেনারেল মিন অং হ্লাইং তার সাজা ছয় বছর কমিয়েছিলেন।

অং সান সুচির যুক্তরাজ্যে থাকা ছেলে কিম অ্যারিস গত সপ্তাহে বিবিসিকে বলেছিলেন যে জান্তা তার মায়ের মাথা ঘোরা ও মাড়ির রোগের জন্য চিকিৎসা সেবা দিচ্ছে না। যদিও সু চির সঙ্গে তার সরাসরি যোগাযোগ নেই।

দেশটির সামরিক সরকারের এক মুখপাত্র উ জাও মিন তুন গত সপ্তাহে এএফপিকে বলেছিলেন, অং সান সু চির অসুস্থতার খবর ‘গুজব’।

তিনি আরও বলেন, “তিনি (সু চি) কিছুতেই ভুগছেন না। কারণ তার ডাক্তাররা তার স্বাস্থ্যের যত্ন নিচ্ছেন।”

Link copied!