• ঢাকা
  • সোমবার, ১৫ জুলাই, ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১, ৮ মুহররম ১৪৪৫

নারীর সঙ্গে হোটেলে, ডেপুটি সুপারিনটেনডেন্ট এখন কনস্টেবল


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: জুন ২৩, ২০২৪, ০১:২৩ পিএম
নারীর সঙ্গে হোটেলে, ডেপুটি সুপারিনটেনডেন্ট এখন কনস্টেবল
ভারতের উত্তর প্রদেশ পুলিশের সদর দপ্তর। ছবি : সংগৃহীত

ভারতের উত্তর প্রদেশে নারীর সঙ্গে বিব্রতকর অবস্থায় ধরা পড়ায় কৃপা শংকর কানৌজিয়া নামের পুলিশের এক ডেপুটি সুপারিনটেনডেন্টকে কনস্টেবল পদে পদাবনতি দিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

ইন্ডিয়া টুডে জানিয়েছে, কৃপা শংকর আগে উত্তর প্রদেশের উন্নাওয়ের বিঘাপুরের সার্কেল অফিসার (সিও) পদে ছিলেন। এখন তাকে পদাবনতি দিয়ে রাজ্যের গোরখপুরের ২৬তম প্রাদেশিক আর্মড কনস্ট্যাবুলারি (পিএসি) ব্যাটালিয়নে নিযুক্ত করা হয়েছে।

জানা গেছে, ২০২১ সালের জুলাইয়ে কৃপা শংকর ছুটি নিয়ে ‘নিখোঁজ’ হন। পারিবারিক কারণে ছুটি নিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু ছুটি নিয়ে তিনি বাড়ি যাননি। গিয়েছিলেন রাজ্যের কানপুরের একটি হোটেলে। হোটেলে তার সঙ্গে ছিলেন এক নারী কনস্টেবল। হোটেলে ওঠার সময় কৃপা শংকর তার ব্যক্তিগত ও অফিশিয়াল উভয় মোবাইল নম্বরই বন্ধ করে রাখেন।

এদিকে কৃপা শংকরের হঠাৎ ‘নিখোঁজ’ হওয়ার বিষয়ে উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েন তার স্ত্রী। তিনি স্বামীর খোঁজে উন্নাওয়ের এসপির সঙ্গে যোগাযোগ করেন।

পরে রাজ্য পুলিশের একটি নজরদারি দল উদ্‌ঘাটন করে, কানপুরের হোটেলটিতে পৌঁছানোর পর কৃপা শংকরের মোবাইল নেটওয়ার্ক কাজ করা বন্ধ করে দেয়। উন্নাওয়ের পুলিশ দ্রুত হোটেলটিতে যায়। তারা হোটেলটিতে কৃপা শংকর ও এক নারী কনস্টেবলকে একত্রে দেখতে পায়।

কৃপা শংকর ও নারী কনস্টেবলের হোটেলে প্রবেশের দৃশ্য সিসিটিভি ক্যামেরায় ধরা পড়েছিল। পরবর্তী সময়ে তদন্তের ক্ষেত্রে এই ফুটেজ গুরুত্বপূর্ণ প্রমাণ হিসেবে কাজ করে।

ঘটনার পর সরকারের কাছে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করা হয়। প্রতিবেদন পর্যালোচনার পর কৃপা শংকরকে কনস্টেবল পদে পদাবনতির সুপারিশ করে সরকার।

Link copied!